somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

অনেকেরই অপরিচিত কিন্তু গা শিউরে ওঠা কয়েকটি হরর মুভির রিভিউ, যেগুলোর প্রত্যেকটাই মুগ্ধ করেছে এবং করবে মুভিখোরদের

০৪ ঠা নভেম্বর, ২০১২ রাত ১০:২৭
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :

১ম পোষ্টে লিখেছিলাম "হরর মুভির দর্শকের সংখ্যা অনেক কম ব্লগে।" কিন্তু আমার এধারনা ছিল ভুল। হরর মুভির একটা মজার ব্যাপার হলো সব ধরনের মুভি প্রেমীরাই মাঝে মাঝেই হরর মুভি দেখতে অনেক পছন্দ করে। বাস্তবতার একঘেমী কাটাতে কিছুক্ষনের জন্য হলেও ঘুরে আসে অশরীরিদের অবাস্তব জগতে আর সেই সাথে হররপ্রেমীরা তো আছেই। সেইভাবে হিসাব করলে ব্লগে হরর মুভী প্রেমিকের সংখ্যা নিতান্তই কম না। এই ধরনের সব হরর প্রেমীদের কথা মাথায় রেখে নিয়ে আসলাম আমার হরর মুভী রিভিউ এর ২য় পর্ব। এই পর্বের অনেক মুভির নামই অনেকের অজানা কিন্ত-কিন্তু-কিন্তু কথা দিতে পারি এর প্রায় প্রত্যেকটাই হয়ত চমকে দিবে আপনাদের, মুগ্ধ হবেন ঠিকই কিন্তু মুভি দেখা শেষে হয়ত ভাবতে বাধ্য হবেন- এমনটা কি হওয়ার কথা ছিল?




Fright Night 1985 : ২০১১ সালের ফ্রাইট নাইট মুভিটা নিশ্চয় অনেকেই দেখেছেন? যদি কেউ ভাবেন একই টাইপ হবে ১৯৮৫ সালের ফ্রাইট নাইট মুভিটা তাহলে ভুল করবেন। যদিও মূল থীমটা প্রায় একই।
ঘটনা সংক্ষেপ: চার্লি নামের এক টিনেজার হঠাৎ একদিন খেয়াল করলো ওদের নতুন প্রতিবেশী এক ভ্যাম্পয়ার। গভীর রাতে পিশাচ হয়ে ওঠে সেই লোকটা। কেউ বিশ্বাস করলো না চার্লির কথা। শেষে নিজের গার্লফ্রেন্ড, একজন বন্ধু এবং একজন টিভি ভ্যাম্পায়ার হান্টারকে নিয়ে মিশনে নেমে পড়ে চার্লি। হয় নিজে শেষ হবে নাহলে সমূলে উচ্ছেদ করবে ভ্যাম্পায়ার গোষ্টিকে।
একটা কথা বলতেই হয় ১৯৮৫ সালের মুভি হিসেবে যতটা না ইফেক্ট দেখাতে পারার কথা তার চেয়ে অনেক ভালো হরর ইফেক্ট দেওয়া হয়েছে এই মুভিটাতে আর মুভি পাগলরা তো জানেনই , ইফেক্ট হরর মুভির অন্যতম ইম্পর্টেন্ট একটা ব্যাপার।

ডাউনলোড:Fright-Night




An American Werewolf in London : ভ্যাম্পায়ার এর পরই চলে আসি ওয়্যারউল্ফে। আমেরিকা থেকে দুই বন্ধু বেড়াতে আসে লন্ডনের অখ্যাত এক গ্রামে। সরাইখানায় মানুষের কুসংস্কারতা দেখে মনে হাসলেও মুখে কিছু না বলে বাইরে বেড়িয়ে আসে দুইজন। কিছুদূর যেতেই এক বিশাল নেকড়ে দ্বারা আক্রন্ত হয় নায়কের বন্ধু। তাকে মেরে ফেলে নায়ককে আক্রমন করে। সময়মতো গ্রামবামী এসে পড়ায় বেঁচে যায় নায়ক, শুধু দেহে ছোট্ট একটা আচঁড় ছাড়া আর কিছুই হয়না। নেকড়েটাকে মেরে ফেলার পর দেখা যায় ওটা আসলে একটা নেকড়েরূপী মানুষ যে কিনা বহুবছর ধরে আতঙ্ক হয়ে ছিল গ্রামবাসীর। হাঁফ ছেড়ে বাঁচল সবাই, অবশেষে মৃত্যু হয়েছে এই ভয়ঙ্কর আতঙ্কের। কিন্তু সত্যিই কি শেষ হয়ে গেল আতঙ্ক? তাহলে নায়কের হাতের আচঁড়টার কি হবে?

ডাউনলোড: An-American-Werewolf-in-London




Trick 'r Treat : চারটা গল্পের এক ভয়ঙ্কর সমাহার Trick 'r Treat। একজন স্কুল পিন্সিপালের গোপনীয় খুনে জীবন, কিছু টিনেজারের হ্যালোইন পালন করতে জঙ্গলে যাওয়া এবং সেখানে বাস্তব ভয়াবহ হ্যালোইন পালন এবং আরো দুটো গল্পের এক ভয়ঙ্কর মিশ্রন Trick 'r Treat। দেখে ফেলেন, ভয় বলেন আর মজা বলেন- পবেনই।
ডাউনলোড: Trick-r-Treat




Insidious : এক সুখী পরিবার, হঠাৎ খেয়াল করলো এক আত্মা ভর করেছে তাদের সন্তানের উপর। জানা গেল সেটা সাধারন কোন আত্মা নয় বরং ভয়ঙ্কর শয়তান এক আত্মা যে তাদের সন্তান কে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছে শয়তানের নিজস্ব জগতে। সন্তানকে বাঁচাতে তান্ত্রিকের সহায়তায় বাবাই পৌছে গেল সেই শয়তানের জগতে। বাবা কি পারবে তার সন্তানকে শয়তানের কবল থেকে মুক্ত করে আনতে? দেখতে থাকুন, ভয়াবহ এক টুইস্ট অপেক্ষা করে আছে আপনার জন্য।

ডাউনলোড: Insidious




The Others :দুই বাচ্চাকে নিয়ে গ্রেস স্টুয়ার্ট থাকে নির্জন এক বাড়িতে। বাচ্চাদুটোর আলো সহ্য করতে না পারা এক রোগ আছে যেজন্য দিনের বেলাতেও বাসাটায় বিরাজ করে রাতের মতো অন্ধকার। একদির ২ জন মহিলা এবং একজন পুরুষ কাজ করতে আসে বাড়িটাতে। কিন্তু ওদের আচরন কেমন যেন অদ্ভূত? ঘটতে থাকে অদ্ভূত ভয়ঙ্কর সব ঘটনা। কে ওরা, কি চায়? জানতে পারবেন মুভির শেষে আর সাথে অবশ্যই অকল্পনীয় এক টুইস্ট।
ডাউনলোড: দ্যা আদারস


সবগুলোরই ডাউনলোড লিংক দেওয়া আছে। এর মধ্যে আবার অনেকগুলো লিংক পাবেন। ভালো হয় পুটলকার থেকে প্লে করলে। এখান থেকে সরাসরি মুভিটা অনলাইনে দেখতে পারেন আর আইডিএম থাকলে সরাসরি ডাউনলোড করতে পারবেন।

আগের পর্বঃ গা শিউরে ওঠা কয়েকটি হরর মুভির রিভিউ, যেগুলোর প্রত্যেকটাই মুগ্ধ করেছে এবং করবে মুভিখোরদের
৫৬টি মন্তব্য ৫৫টি উত্তর পূর্বের ৫০টি মন্তব্য দেখুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছবি সংযুক্ত করতে এখানে ড্রাগ করে আনুন অথবা কম্পিউটারের নির্ধারিত স্থান থেকে সংযুক্ত করুন (সর্বোচ্চ ইমেজ সাইজঃ ১০ মেগাবাইট)
Shore O Shore A Hrosho I Dirgho I Hrosho U Dirgho U Ri E OI O OU Ka Kha Ga Gha Uma Cha Chha Ja Jha Yon To TTho Do Dho MurdhonNo TTo Tho DDo DDho No Po Fo Bo Vo Mo Ontoshto Zo Ro Lo Talobyo Sho Murdhonyo So Dontyo So Ho Zukto Kho Doye Bindu Ro Dhoye Bindu Ro Ontosthyo Yo Khondo Tto Uniswor Bisworgo Chondro Bindu A Kar E Kar O Kar Hrosho I Kar Dirgho I Kar Hrosho U Kar Dirgho U Kar Ou Kar Oi Kar Joiner Ro Fola Zo Fola Ref Ri Kar Hoshonto Doi Bo Dari SpaceBar
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :
আলোচিত ব্লগ

আহা প্রেম!

লিখেছেন কাজী ফাতেমা ছবি, ১৯ শে জুন, ২০১৯ বিকাল ৫:৪০



ইনবক্সের প্রেমের আর কী বিশ্বাস বলো
এসব ধুচ্ছাই বলে উড়িয়ে দেই হরহামেশা
অথচ
সারাদিন ডেকে যাও প্রিয় প্রিয় বলে.....
একাকিত্বের পাল তুলে যে একলা নদীতে কাটো সাঁতার
সঙ্গী হতে ডাকো প্রাণখুলে।

এসব ছাইফাঁস আবেগী... ...বাকিটুকু পড়ুন

ট্রলিং, বাঙালি জাতি ও খাদ্যে ভেজাল।

লিখেছেন মঞ্জুর চৌধুরী, ১৯ শে জুন, ২০১৯ রাত ১০:১৬

ট্রলিং বিষয়টা আমার অসহ্য লাগে। এমন না যে আমার সেন্স অফ হিউমার নেই, বা খারাপ। কিন্তু বাঙালি ট্রলিংয়ের সীমা পরিসীমা সম্পর্কে কোনই ধারণা রাখে না। ফাজলামি করতে করতে আমরা এমন... ...বাকিটুকু পড়ুন

কাছাকাছি থেকেও চির-অচেনা

লিখেছেন চাঁদগাজী, ১৯ শে জুন, ২০১৯ রাত ১১:২৪



স্ত্রীর জন্য স্যান্ডেল কিনতে বের হয়েছি; আমি ট্রেনে যাবার পক্ষে ছিলাম, গাড়ীর পার্কিং পাওয়া মোটামুটি অসম্ভব ব্যাপার; আরো ২/১ যায়গায় যেতে হবে, শেষমেষ গাড়ী নিয়ে বের হতে হলো; রেসিডেন্সিয়েল... ...বাকিটুকু পড়ুন

রাস্তায় পাওয়া ডায়েরী থেকে- ৯৮

লিখেছেন রাজীব নুর, ২০ শে জুন, ২০১৯ রাত ১২:২১


বাংলাদেশের জয় উদযাপন।

১। ভালো লেখক হতে হলে সর্বাগ্রে ভালো পাঠক হতে হবে। পাঠক হবার আগেই যদি সমালোচক হতে চাও, তবে তা হবে বোকামী। বিচারক হতে যেও না,... ...বাকিটুকু পড়ুন

আগে শিক্ষা তারপর সমালোচনা।

লিখেছেন মাহমুদুর রহমান, ২০ শে জুন, ২০১৯ দুপুর ২:৪১



পাঠকেরা সুন্দর সুন্দর মন্তব্য করবেন, ভালো না লাগলে চুপ করে কেটে পড়বেন, লেখার সমালোচনা করা যাবে না, লেখার উপর বিরূপ মন্তব্য করা যাবে না; তা'হলে, ব্লগ আপনার জন্য... ...বাকিটুকু পড়ুন

×