somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

আমার পরিচয়

অদ্য কিংবা শতাব্দান্তে কে তুমি পড়িছ এই ব্লগ

আমার পরিসংখ্যান

হযবরল
quote icon
জন্ম চট্টগ্রাম। শৈশব এবং কৈশোর চট্টগ্রামে। কৈশোর থেকে যৌবনে পদার্পণ ঢাকা শহরের বুকে। কর্ণেল অরেলিয়ানোর মত বত্রিশটা বিফল বিপ্লবের নায়ক হতে পারিনি, তবে হৃদয়ে দুটো শহরের স্বপ্ন নিয়ে বড় হয়েছি। এখন তৃতীয় এক শহরকে ভালবাসছি সময়ের প্রয়োজনে।



আমার সকল পোস্ট (ক্রমানুসারে)

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ঃ অসংখ্য ইকারুসের জন্মদাত্রী

লিখেছেন হযবরল, ২৪ শে আগস্ট, ২০০৭ ভোর ৬:৫৫

কষ্ট হয়, নষ্ট হয়

কষ্টেরা সব নষ্ট হয়

কিছুই থাকেনা প্রভূ

তোমারি বন্দনা করি না কভূ

আপন নিয়তি সরবে ঠুকি তোমার জ্ঞানবৃক্ষে

কিছুই টেকে না প্রভূ

তুমি আমি সকল বন্দনাকারী ... বাকিটুকু পড়ুন

৫ টি মন্তব্য      ৫৭৫ বার পঠিত     like!

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে হামলার প্রতিবাদ জানাই

লিখেছেন হযবরল, ২০ শে আগস্ট, ২০০৭ রাত ১১:০১

যে কোন পরিস্থিতিতেই ঢাকা বিশ্ববিদ্যায়ে বর্বর পুলিশী হামলার নিন্দা জানাই , প্রতিবাদ জানাই। যখন সেপাইয়ের বর্ম ভেদ করে ত্রসরেণু রুপী আন্দোলন ঢুকতে শুরু করে, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হয় আক্রান্ত। দেশব্যাপী বন্যা মোকাবেলায়, ডায়রিয়া মোকাবিলায় যখন প্রয়োজন সদাজাগ্রত শিক্ষার্থীদের তখনই এহেন ঘৃণ্য কাজের প্রতি নিন্দা জানাই।



তীব্র এবং স্পষ্ট ভাষায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের... বাকিটুকু পড়ুন

৫৭ টি মন্তব্য      ১০০৪ বার পঠিত     ২১ like!

টেকমোল্লাতন্ত্রের হেডঅপিসঃ সামহোয়্যার

লিখেছেন হযবরল, ৩০ শে জুলাই, ২০০৭ রাত ১১:২৫

সাধুর পোস্ট কেন মুছলো, কেন বার বার মুছলো এবং কেন মন্তব্য করলে, সামনের পাতায় আহে না, এইটা পোস্টের বক্ত্যব্যে হৃদয়ঙ্গম হয়। যেই মুচছে, সে নিজেরে ছাগলের পয়দা না ভাবলে সাধুর পোস্টে মন্তব্য আকারে নিশ্চয়ই কইতো।



টেকমোল্লাতন্ত্রের জন্ম দিতাছে সামহোয়্যার, এই সার্ভারে আরেকটা লাল মসজিদ জন্মানোর আশংকা করতাছি, তা না হইলে... বাকিটুকু পড়ুন

২২ টি মন্তব্য      ৬৪৮ বার পঠিত     ১৫ like!

শহীদ জননী তোমায় সালাম

লিখেছেন হযবরল, ০২ রা জুলাই, ২০০৭ রাত ১২:০০

লম্বা সময় পর হপ্তাখানেকের একটা ছুটি নিয়েছিলাম সমস্ত কাজ থেকে। সত্যিকারের বিরতি। ছুটির মাঝে একবারের জন্যে, কাজ নিয়ে গবেষণা নিয়ে ভাবিনি। সকালে ঘুম থেকে উঠে ভরপেট খাওয়া, এক কাপ চা, একটা সিগারেট। এরপর আড্ডা কিছুক্ষণ। অবশ্য ছুটিতে সিগারেট খাওয়া কিছুটা কমে গিয়েছিলো। এটার কারণ হতে পারে, কাছের মানুষদের সাথে সময়... বাকিটুকু পড়ুন

১৯ টি মন্তব্য      ৭৮৫ বার পঠিত     like!

ভালোবাসা এবং মায়াঃ সম্পর্কের উপজাত

লিখেছেন হযবরল, ০৯ ই জুন, ২০০৭ রাত ৯:৩৯

ভালোবাসা এবং মায়া, দুটো শব্দে বিস্তর তফাৎ। ভালোবাসা'র উপজাত হিসেবে মায়া তৈরি হওয়া আমাদের জীবনের বহুলঘটিত বিষয়। মায়ার উপজাত হিসেবে ও ভালবাসা হয়। তবে পরিস্থিতি কিছুটা ভিন্ন।



বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রথম বর্ষে একটা জিন্স কিনেছিলাম চট্টগ্রাম হকার্স থেকে। সেই পাৎলুন সকাল থেকে রাত অবধি সাড়ে পাঁচ বছর আমাসংলগ্ন থেকে সারা দেশ দেখেছে।... বাকিটুকু পড়ুন

৭ টি মন্তব্য      ৬১০ বার পঠিত     like!

হে বঙ্গ ভান্ডারে তব বিবিধ রতন

লিখেছেন হযবরল, ০২ রা জুন, ২০০৭ ভোর ৬:২১

মাহবুব মোর্শেদের নতুন শব্দ, অব্যবহৃত শব্দ পোস্টগুলো দেখে অনুপ্রাণিত। কিছু আঞ্চলিক শব্দ আছে যেগুলো সারাদেশের লোক জানেনা। এখন সেইরকম আর ব্যবহার ও হয় না। অন্তত আমি দেখিনা কাউকে ব্যবহার করতে। সেরকম কিছু শব্দের কথা ভাবছি মাঝে মাঝে বলবো।



এতে দুটো কাজ হবে। আম ও পাবো, ছালা ও পাবো। পোস্টের সংখ্যা... বাকিটুকু পড়ুন

৬ টি মন্তব্য      ৭৩০ বার পঠিত     like!

অ্যাবসার্ডঃ স্মৃতিখেলাপী

লিখেছেন হযবরল, ৩১ শে মে, ২০০৭ সকাল ১১:৪০

বড় ধরণের বিপর্যয় হবে যদি, একদিন সব কথা শেষ হয়ে যায়। সেরিবেলাম উল্টে পাল্টে, দেখা যাবে দেউলিয়া ঘোষিত হয়েছি। কিম্বা স্মৃতিখেলাপী ও ঘোষণা করা হতে পারে। ভেস্ট্রিবিউলোসেরেবেলামের বদৌলতে উচ্চ সুদের হারে স্মৃতি ধার করতে হবে। জলপাই মামাদের মত কিছু ধূসর পদার্থ হাঁটুতে স্থানান্তর একটা গ্রহণযোগ্য সমাধান হতে পারে। সে ক্ষেত্রে... বাকিটুকু পড়ুন

৫ টি মন্তব্য      ৪৭৬ বার পঠিত     like!

আজাইরা-১৩

লিখেছেন হযবরল, ২৮ শে মে, ২০০৭ সকাল ১১:২৬

আইজ দেখলাম আমাদের সেরা ব্লগার আলী ভাই প্রেমিকা চাই শিরোনামে পোস্টাইছে। সেইটা দেইখা একটা মজার স্মৃতি মনে পড়লো। নটরডেমে আমি আছিলাম গ্রুপ সেভেনে। আমাদের বাংলা ক্লাস নিতো মুখতার স্যার। উনার একটা নিজস্ব স্টাইল আছিলো। আইজকা স্টাইল নিয়া কমু না। আইজকা প্রেমপত্র বিষয়ে। প্রেমপত্র বিষয়ে স্যারের একটা প্রধান মূলনীতি হইলো, বাবা’রা... বাকিটুকু পড়ুন

২১ টি মন্তব্য      ৫৮৭ বার পঠিত     like!

সবার লাইগা

লিখেছেন হযবরল, ২৮ শে মে, ২০০৭ রাত ১:০৬
১০ টি মন্তব্য      ৫১১ বার পঠিত     like!

কর্তৃপক্ষঃ চিত্রত্যাচারের প্রতিবাদ করবার হাতিয়ার চাই

লিখেছেন হযবরল, ২৬ শে মে, ২০০৭ রাত ১১:২১

প্রিয় কর্তৃপক্ষ



যূথচারীর ফাঁকা পোস্ট গুলো দেখে মনে হলো পেছনে গিয়ে দেখি কোন কলংক ঢাকবার জন্য সে ফাঁকা পোস্ট দিচ্ছে। যূথচারীকে ধন্যবাদ দিতেই হয়। বাঙ্গালী হয়ে লজ্জা পাওয়ার মত একটা কলংকই সে ঢাকতে চাইছিল। গোলাম আযমের খাপসুরত দেওয়া একটা পোস্ট।



সচরাচর এ ধরণের একটা অশ্লীল, কদাকার এবং নৃশংস পোস্ট দেখলে... বাকিটুকু পড়ুন

১৫ টি মন্তব্য      ৫২১ বার পঠিত     like!

বিষয়ঃ ডালপুরি ভাজন এবং খাওন

লিখেছেন হযবরল, ২৬ শে মে, ২০০৭ বিকাল ৪:০৫

ভোর রাতের ভীমরতিতে ভাবলেন কিছু একটা করবেন। গিয়ে ধুয়ে ফেললেন হাড়ি-কুড়ি। এরপর মনে হলো আড়াইশো মাইল দূর থেকে কিনে আনা ডালপুরি গুলো ফ্রিজে মন খারাপ করে গাল চিপে বসে আছে। ওদের গাল ফুলোতে হবে, যেই ভাবা সেই কাজ। প্রস্তরীভূত নিয়ার্ন্ডথাল জমানার ডালপুরি ভাজতে বসে গেলেন। সকাল এখনো উঁকি দেয়নি। ঘড়িতে... বাকিটুকু পড়ুন

৭ টি মন্তব্য      ৩৫২ বার পঠিত     like!

আসক্ত

লিখেছেন হযবরল, ২৬ শে মে, ২০০৭ দুপুর ২:৫৪

নিরাসক্ত বোধ আবিষ্কারের জন্যই বোধকরি এখন

একটি আসক্তি দরকার।।

কাকাতুয়ার ঢেউ খেলানো ঝুঁটিতেও কারো কারো নেশা হয়,

যদিও কাকতাড়ুয়ার নেশা কদাপি শুনিনি;

নারী এবং পুরুষে সম্পুরক নেশা হয়

যদিও ক্ষত্রিয় নারী-পুরুষ নিরাসক্ত বোধ করে, আসক্তিতে।। ... বাকিটুকু পড়ুন

৮ টি মন্তব্য      ৩২০ বার পঠিত     like!

সেলফ এপ্রিসিয়েশন

লিখেছেন হযবরল, ২৫ শে মে, ২০০৭ সন্ধ্যা ৭:১৭

পদোন্নতি পেলে কার না ভাল লাগে। পদের উন্নতি বলে কথা। কর্তা থেকে কর্ম, কর্ম থেকে করণ এভাবে শনৈ শনৈ উন্নতি কার না ভাল লাগে। আরো ভালো হয় সে উন্নতি যদি তারকা মন্ডিত হয়। আমাদের সমরপ্রবররা দেশ ও জনগণের চরম ও পরম উন্নয়ন কর্ম সম্পাদন করবার পর ভাবলেন একটা তৃপ্তির ঢেকুর... বাকিটুকু পড়ুন

১৪ টি মন্তব্য      ৩৩৭ বার পঠিত     like!

দোহনবাজ

লিখেছেন হযবরল, ২৩ শে মে, ২০০৭ সকাল ৭:৫৬

এক নম্বর কার্পাস তুলার বালিশে মাথাটা ছটফট করে নাড়ছেন গাইসিদ্ধ ইসলাম। খুব সম্ভবত বেটা লেভেলে আছেন তিনি এখন।



সাড়ে সাত কিলো রাস্তার দুধারে বৃক্ষ রোপন করেছেন, ইট ফেলেছেন ৩০ হাজার। যদিও বন বিভাগের নিয়ম ছিলো প্রতি তিন ফিট অন্তর চারা লাগাতে হবে; কিন্তু ম্যানেজার কুতুব কে দিয়ে........।



যাই হোক, তিনি সদয়... বাকিটুকু পড়ুন

৭ টি মন্তব্য      ৩০৯ বার পঠিত     like!

আজাইরা-১২

লিখেছেন হযবরল, ২২ শে মে, ২০০৭ সকাল ১০:১২

কার্জন হলে জাহাঙ্গীর ভাইয়ের শেড কিম্বা মিলন ভাইয়ের দোকানের সামনে জবা গাছের নীচে তক্তায় চা-বিড়ি পান কইরা কইরা পুরা কার্জন হলের ছেলে-মেয়ে সবগুলিরে কম বেশী চেহারা চিনতাম। যেগুলির সাথে খাতির ছিলো তারমধ্যে অনেকের নাম জানতাম না কিম্বা ভুইলা যাইতাম। এদের সাথে দেখা হইলেই ডাক দিতাম, '' মাম্মা ''। বড়ই আজব... বাকিটুকু পড়ুন

১১ টি মন্তব্য      ২৮৬ বার পঠিত     like!
আরো পোস্ট লোড করুন
ব্লগটি ১১৩৯৩৭ বার দেখা হয়েছে

আমার পোস্টে সাম্প্রতিক মন্তব্য

আমার করা সাম্প্রতিক মন্তব্য

আমার প্রিয় পোস্ট

আমার পোস্ট আর্কাইভ