somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

নিদ্রাহীন রাত - কবি জেরার্ড ম্যানলি হপকিন্স

০৫ ই আগস্ট, ২০১৯ সকাল ৭:১৫
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :



কবি জেরার্ড ম্যানলি হপকিন্সের " গভীরভাবে ব্যক্তিগত ও এখনো সার্বজনীন আবেদন "নিদ্রাহীন রাত কবিতা "" কবি ১৮৮০ সালে আয়ারল্যান্ডে বসবাস কালীন সময়ে যখন দুশ্চিন্তায় ভুগছিলেন ঠিক তখনই এই কবিতাটি লেখেন। কবিতাটিতে হপকিন্সের দ্বান্দ্বিক ন্যায়ে বিশ্বাসী আত্ম-বিশ্লেষণ এবং আত্মা-সন্ধানের বিষয়ে প্রাণবন্ত চিত্র ও ভাষার শক্তিশালী ব্যবহারর ফলে নিদ্রাহীন রাতের বিবরণের একটি আন্তরিক কবিতা হিসাবে ভুয়সী প্রশংসা লাভ করে।

কবিতা- নিদ্রাহীন রাত-
মূল - জেরার্ড ম্যানলি হপকি্ন্স
ইংরেজী - Sleepless Night
--------------------------
আমি ঘুম থেকে জেগে ওঠে ,আলো নয়
অন্ধকারের পতন অনুভব করি,
কি ঘন্টা, হায় কি কালো ঘন্টা কটিয়েছি !
এই রাতে ! কি দৃশ্য হৃদয় দেখেছিলো !
কি পথে তুমি গিয়েছিলে..
এখনও অবশ্যই আরো আলোর দীর্ঘায়িত বিলম্ব।

আমি একিই কথা সাক্ষীর সঙ্গে বলি,
কিন্তু ঘন্টা বলতে আমি বলি বছর,
মানে জীবন এবং আমার-ই- বিলাপ,
যা অজস্র কান্নাকাটি করে, যেন একান্ত আপনজনকে মৃতের পাঠানো চিঠি
যে হায় ! সুদূরে আল্লাহর কাছে বাস করে !

আমি অবাধ্য ও আমার বুকে জ্বালা
আল্লাহর গভীর আদেশ মানতে আমার স্বাদ হতো তিতকুটে ; আমার স্বাদ ছিলো আমারই
আমার মধ্যে তৈরি হাড়,মাংসাল দেহ,রক্তে প্রবাহিত হয় বৃহৎ অভিশাপ,

আত্মকেন্দ্রিক আত্মা এক নিস্তেজ ময়দার মিশ্রণ ; আমি দেখতে পাই
যারা হারিয়ে গেছে তার এইরকম; আর তাদের শাস্তি হবেই হবে,
এই আমি যেমন আমার, তাদের ঘামে ঝরানো কৃতদাস ; কিন্তু খারাপ.
-------------------------------------------------------------------------
ফুটনোট --
কবি জেরার্ড মানালি হপকিন্সকে (২৮ জুলাই ১৮৪৪ - ৮ জুন ১৮৮৯) ভিক্টোরিয়ান যুগের সর্বকালের অন্যতম সেরা কবি বলে মনে করা হয় । তবে তার এই শৈলী সমসাময়িক কবিদের থেকে এতটাই ভিন্ন ছিল যে, তার জীবদ্দশায় তার শ্রেষ্ঠ কবিতাগুলো প্রকাশের জন্য গৃহীত হয়নি। এমনকি বিশ্বযুদ্ধের পর পর্যন্ত তার কৃতিত্ব পুরোপুরি স্বীকৃত ছিল না । হপকিন্সের জন্ম ও বেড়ে ওঠা তার পরিবারের সাথে ইংল্যান্ডের এসেক্স-এ। তারুন বয়সেই তার লেখালেখিতে শৈল্পিক প্রতিভা দেখা যায়। তবে হপকিন্স রোমান ক্যাথলিক ধর্মে ধর্মান্তরিত হলে তার প্রোটেস্টান্ট ফ্যামিলি থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যান।পরবর্তীতবে তিনি পুরোহিত হওয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে তার সব কবিতা পুড়িয়ে ফেলেন এবং বহু বছর লেখালেখি করেননি । ১৮৮৯ সালে তিনি টাইফয়েড হয়ে মারা যান, তার জীবদ্দশায় অপ্রকাশিত থেকে যায় তার সকল লেখা । হপকিন্স-এর মৃত্যুর প্রায় ৩০ বছর পরে তাঁর বন্ধু রবার্ট ব্রিজেস ১৯১৮ সালে তার কবিতাগুলির একটি সংস্করণ ছাপিয়েছিলেন। সময়ের সাথে অনেক কিছু হারিয়ে গেলেও কালি ও কলমে লিখে যাওয়া লিপিবদ্ধ স্বরলিপি মুছে যায় না।
সর্বশেষ এডিট : ২২ শে আগস্ট, ২০১৯ রাত ১০:৩০
১১টি মন্তব্য ১১টি উত্তর

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছবি সংযুক্ত করতে এখানে ড্রাগ করে আনুন অথবা কম্পিউটারের নির্ধারিত স্থান থেকে সংযুক্ত করুন (সর্বোচ্চ ইমেজ সাইজঃ ১০ মেগাবাইট)
Shore O Shore A Hrosho I Dirgho I Hrosho U Dirgho U Ri E OI O OU Ka Kha Ga Gha Uma Cha Chha Ja Jha Yon To TTho Do Dho MurdhonNo TTo Tho DDo DDho No Po Fo Bo Vo Mo Ontoshto Zo Ro Lo Talobyo Sho Murdhonyo So Dontyo So Ho Zukto Kho Doye Bindu Ro Dhoye Bindu Ro Ontosthyo Yo Khondo Tto Uniswor Bisworgo Chondro Bindu A Kar E Kar O Kar Hrosho I Kar Dirgho I Kar Hrosho U Kar Dirgho U Kar Ou Kar Oi Kar Joiner Ro Fola Zo Fola Ref Ri Kar Hoshonto Doi Bo Dari SpaceBar
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :
আলোচিত ব্লগ

মনস্তাপ

লিখেছেন ইসিয়াক, ১১ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ সকাল ৭:৩৫


কি গান শুনবে বলো প্রাণাধিক প্রিয়?
তুমি কি চেয়ে দেখো মোর মুখপানে?
দেখো না।
খিড়কী খুলে বসে আছি ,
রয়েছি বাতায়নে পথ চেয়ে, তোমারই পথ পানে।
একমনে সুর সাধি, যদি তুমি... ...বাকিটুকু পড়ুন

রাস্তায় পাওয়া ডায়েরী থেকে-১২১

লিখেছেন রাজীব নুর, ১১ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ সকাল ১০:০৩



১। রবীন্দ্রনাথ কোনো রাজনীতিবিদ ছিলেন না। তিনি ছিলেন একজন সমাজ সচেতন এবং সমাজ বৈষম্য নিধনকারী, পবিরর্বতনকামী নাগরিক। তিনি চেয়েছেন মানুষের মধ্যে ঐক্য ও উদার মানবিকতার প্রতিফলন ঘটুক। তিনি... ...বাকিটুকু পড়ুন

বাঙালি মেয়েরা না কি নোংরা, তাদের না কি মিয়ানমার সেনাবাহিনী এবং বৌদ্ধ জনগোষ্ঠীর কেউ ছোঁবেও না!!!!!!!!!!!!

লিখেছেন নতুন নকিব, ১১ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ সকাল ১০:৩৪


প্রতিবাদকারীরা দ্য হেগের পিস প্যালেসের সামনে রোহিঙ্গা সংখ্যালঘুদের সমর্থনে একটি বিক্ষোভে অংশ নিয়েছে। 10 ডিসেম্বর, 2019 এএফপি

বাঙালি মেয়েরা না কি নোংরা, তাদের না কি মিয়ানমার সেনাবাহিনী এবং বৌদ্ধ জনগোষ্ঠীর... ...বাকিটুকু পড়ুন

তবু যদি থেমে যায় সব কল্পনা

লিখেছেন স্বপ্নবাজ সৌরভ, ১১ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৩:৩৪



জাঁকালো শীত পড়েছে। রেল লাইনের ধারে কালাইয়ের রুটির দোকানে ভীড়। স্টেশন সরগরম - সেদ্ধডিম , ঝাল মুড়ি। অপেক্ষা আর ব্যস্ততা। জবুথুবু যাত্রীরা চায়ের দোকানে , অনবরত... ...বাকিটুকু পড়ুন

সু-চি'র বক্তব্য নিয়ে সাধারন মানুষ যা ভাবছেন

লিখেছেন রাজীব নুর, ১১ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৫:৪৮



১। নেদারল্যান্ডের আন্তর্জাতিক বিচার আদালতে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর সরবরাহ করা স্ক্রিপ্ট পড়ে বিশ্ববাসীর সামনে মিথ্যাচার করলেন সু-চি! এই মানুষরুপী শয়তান মহিলা কিভাবে নোবেল পেয়েছেন তা আমার মাথায় ঢুকছেনা!

২। কত বড়... ...বাকিটুকু পড়ুন

×