somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

ইহা একটি বাংলাদেশী বেগুনের বিজ্ঞাপন ।তবে উপকারী :) :) :)

২৪ শে মার্চ, ২০১৬ রাত ১:৩৮
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :



জী ভাই ঠিকিই ধরেছেন ইহা একটি বাংলাদেশী বেগুনের বিজ্ঞাপন ।বেশি বেশি দেশী বেগুন খান আর দেহের ভিতর এনার্জি ছড়ান। আপনি কি জানেন আমাদের বাংলাদেশী বেগুনে রয়েছে অনেক অনেক গুনাগুন । তাছাড়াও এ বেগুন আপনার দেহের অনেক কাজে আসে ।আমাদের বাঙালিদের রসনাবিলাসের একটি বিশাল অংশজুড়ে রয়েছে নানা গুণসমৃদ্ধ এই বেগুন। ভর্তা, ভাজি তো আছেই তাছাড়াও আছে বেগুন পোড়া এবং বিভিন্ন তরকারি ও লাবড়া ইত্যাদিও তাই বেগুন কিন্তু কম জনপ্রিয় না । এছাড়াও রমজান মাসে বাংলাদেশে ইফতারের একটি জনপ্রিয় খাবার হলো তেলে ভাজা বেগুনী । ওটা লম্বা লম্বা বেগুন কেঁটে সাইজ করে নিতে হয় । সবজি হিসেবেও জনপ্রিয়তার কম নেই আমাদের বেগুনের। এটা এমন এক বেহাইয়া সবজি যাকে আপনি বারো মাস আপনার হাতের কাছে পাবেন । এটার দামও কম । এটা কম দামী সবজি হলেও এর রয়েছে বহুমাত্রিক গুণাগুণ। এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে উপকারি খাদ্য উপাদান।
যেমন প্রতি ১০০ গ্রাম বেগুনে রয়েছে
খাদ্যশক্তি= ২৫ কিলোক্যালরি।
শর্করা= ৫.৮৮ গ্রাম ।
চিনি= ৩.৫৩ গ্রাম।
খাদ্যআঁশ= ৩ গ্রাম।
চর্বি= ০.১৮ গ্রাম।
আমিষ= ০.৯৮ গ্রাম।
থায়ামিন= ০.০৩৯ মিলিগ্রাম ।
রিবোফ্লেভিন= ০.০৩৭ মিলিগ্রাম।
নিয়াসিন= ০.৬৪৯ মিলিগ্রাম ।
প্যানটোথেনিক অ্যাসিড= ০.২৮১ মিলিগ্রাম ।
ভিটামিন বি৬= ০.০৮৪ মিলিগ্রাম।
ফোলেট= ২২ আইইউ।
ভিটামিন সি= ২.২ মিলিগ্রাম।
ভিটামিন ই= ০.৩ মিলিগ্রাম।
ভিটামিন কে= ৩.৫ আইইউ।
ক্যালসিয়াম= ৯ মিলিগ্রাম।
আয়রন= ০.২৩ মিলিগ্রাম।
ম্যাগনেসিয়াম= ১৪ মিলিগ্রাম।
ম্যাংগানিজ=০.২৩২মিলিগ্রাম।
ফসফরাস= ২৪ মিলিগ্রাম।
পটাশিয়াম=২২৯ মিলিগ্রাম ।
জিংক= ০.১৬ মিলিগ্রাম ।

খাদ্যগুণে ভরপুর বেগুন বিভিন্নভাবে আমাদের শরীরের উপকার করে। যেমনঃ
১। বেগুনে রয়েছে শক্তিশালী অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট যা পাকস্থলী ও ক্ষুদ্রান্ত এবং কোলন ক্যানসার প্রতিরোধ করে। যেকোনো ক্ষতস্থান দ্রুত শুকাতেও বেগুন অনেক সাহায্য করে।
২। এতে চিনি এবং চর্বির পরিমাণ খুবই কম। তাই ডায়াবেটিকস ও হৃদরোগ এবং অধিক ওজন রয়েছে যাঁদের তাঁরা নিশ্চিন্তে বেগুন খেতে পারেন।
৩। বেগুনে উপস্থিত রিবোফ্লেভিন মুখ ও ঠোঁট এবং জিহ্বার ঘা দূর করে । জ্বর জ্বর ভাব কমায়। এর ভিটামিন এ চোখের রোগ প্রতিরোধ করে । ভিটামিন সি ত্বক নখ ও চুলে পুষ্টি জোগায় এবং ভিটামিন ই ও কে রক্তজমাট বাঁধার বিরুদ্ধে কাজ করে।
৪। বেগুনে রয়েছে খাদ্যআঁশ যা খাদ্য হজমে সহায়তা করে এবং কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে।
৫। বেগুনে রয়েছে নাসুনিন নামে একটি উপাদানঃ যা মস্তিষ্কের শিরা উপশিরার দেয়ালে চর্বি জমা হতে বাধা দেয়। ফলে ব্রেইন স্ট্রোক এবং মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণজনিত রোগের ঝুঁকি কমে যায়। মস্তিষ্কে অক্সিজেনের মাত্রা বেড়ে গিয়ে কর্মোদ্দীপনা বৃদ্ধি পায়।
৬। বেগুন রক্তে খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রা কমিয়ে দেয় এবং ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণেও সাহায্য করে।
৭। বেগুনের ম্যাগনেসিয়াম এবং ক্যালসিয়াম দাঁত, হাড় ও নখ মজবুত করে।
৮। মৌসুমি সর্দি, কাশি, কফ দূর করতে বেগুন সাহায্য করে।
খাদ্যগুণের পাশাপাশি বেগুনের রয়েছে কিছু ভেষজগুণও। যেমনঃ
১। আগের দিন সন্ধ্যাবেলা বেগুন সেদ্ধ করে পরদিন এর শাঁস মধু মিশিয়ে খেলে অনিদ্রা দূর হয়।
২। বেগুন পোড়ানো ছাই গায়ে মাখলে চুলকানি ও চর্মরোগ সেরে যায়।
৩। বেগুন সেদ্ধ করে এর পুলটিস দিলে বিষফোঁড়া তাড়াতাড়ি পেকে যায়।
৪। কাঁচা বেগুনের রস খেলে ধুতুরার রস নেমে যায়।
৫। রোজ সকালে খালি পেটে বেগুন পুড়িয়ে এর সাথে গুড় মিশিয়ে খেলে ম্যালেরিয়ার কারণে লিভার বড় হয়ে যাবার ঝুঁকি কমে।

তাহলে আমাদের বোঝতে বাকি নেই যে আসলে বেগুনের কত গুনাগুন ।তা সর্তেও অনেকে ভাবেন বেগুন খেলে শরীর চুলকায় ।তাদেরকে বলি আপনাদের এই ধারনাটি ভুল তাই বেশি বেশি বেগুন খান আর দেহে রোগ প্রতি রোধের ক্ষমতা বাড়ান । সকলের শরীর ও মন সুস্থ কামনা থাকল ।

ছবিতথ্য সূত্রঃ ইন্টারনেট ।
সর্বশেষ এডিট : ২৪ শে মার্চ, ২০১৬ রাত ১:৩৮
৩টি মন্তব্য ৩টি উত্তর

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছবি সংযুক্ত করতে এখানে ড্রাগ করে আনুন অথবা কম্পিউটারের নির্ধারিত স্থান থেকে সংযুক্ত করুন (সর্বোচ্চ ইমেজ সাইজঃ ১০ মেগাবাইট)
Shore O Shore A Hrosho I Dirgho I Hrosho U Dirgho U Ri E OI O OU Ka Kha Ga Gha Uma Cha Chha Ja Jha Yon To TTho Do Dho MurdhonNo TTo Tho DDo DDho No Po Fo Bo Vo Mo Ontoshto Zo Ro Lo Talobyo Sho Murdhonyo So Dontyo So Ho Zukto Kho Doye Bindu Ro Dhoye Bindu Ro Ontosthyo Yo Khondo Tto Uniswor Bisworgo Chondro Bindu A Kar E Kar O Kar Hrosho I Kar Dirgho I Kar Hrosho U Kar Dirgho U Kar Ou Kar Oi Kar Joiner Ro Fola Zo Fola Ref Ri Kar Hoshonto Doi Bo Dari SpaceBar
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :
আলোচিত ব্লগ

সামুর প্রতিষ্ঠাতা, মডু এবং লেখক পাঠকদের প্রতি

লিখেছেন শের শায়রী, ০৮ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৫:৪৫

সুপ্রিয় জানা আপা এবং সন্মানিত সামু মোডারেটর (“গন” ও হতে পারে আমার জানা নেই)

সালাম সহকারে নিবেদন এই যে,

বেশ কিছু দিন হয়ে গেল মাননীয় সরকার সামু ব্লগের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে... ...বাকিটুকু পড়ুন

জীবনের গল্প- ২৪

লিখেছেন রাজীব নুর, ০৮ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ৯:৫৪



জনাব আহাদ সাহেব একজন সফল মানুষ।
অথচ তিনি দরিদ্র পরিবারে জন্মগ্রহন করেছেন। তারা দুই ভাই, দুই বোন। তিনিই সবার বড়। লেখাপড়া দূর্দান্ত ছিলেন। দারুন মেধাবী। মেট্রিক-ইন্টার দু'টাতেই... ...বাকিটুকু পড়ুন

মীমাংসিত বিষয়সমুহও বাংলা ব্লগে ঘুরে ঘুরে ফেরত আসে।

লিখেছেন চাঁদগাজী, ০৯ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ৩:০৭



বাংলা ব্লগসমুহ চালু হবার পর, কিছু কিছু বিষয় নিয়ে অনেক বাহাস হয়েছে; এতে অনেক আলাপ-আলোচনা, তর্ক-বিতর্ক, গালাগালি হয়েছে; শেষে, এক সময়ে ওসব বিষয়গুলোর মোটামুটি মীমাংসা হয়ে গেছে। এখন... ...বাকিটুকু পড়ুন

কদম-বুচি....

লিখেছেন কিরমানী লিটন, ০৯ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ভোর ৫:৪৩


আকাশ গুলো এখন দেখি
চোখের চেয়ে ছোট,
সূর্যকে তাই বিদায় বলি-
অন্য কোথাও উঠো।

জীবন চেয়ে হচ্ছে যারা
চাল পিঁয়াজে- খুন,
বিকল বিবেক বধির তারা
নির্মলেন্দু গুণ।

খুনী বলে বিচার হবো
বিচার বলে খুনী,
তসবি জপে আইন খুঁজে
পালিয়ে... ...বাকিটুকু পড়ুন

ব্লগ ডে :: ২০১৯

লিখেছেন নীলসাধু, ০৯ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ দুপুর ১:১৪



আমরা যারা ব্লগে লেখালিখি করি তাদের কাছে ব্লগ বিশেষ কিছু।
ব্লগের প্রতিটি নিক আমাদের কাছাকাছি। নিকের পেছনে মানুষটিকে না চিনলে, না জানলেও তার লেখা এবং আমার লেখায় তাদের মন্তব্যের... ...বাকিটুকু পড়ুন

×