somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

আমার পরিচয়

নমস্কার পাঠক, সামহোয়্যারের এই ব্লগে ঐশিকা আপনাকে স্বাগত জানায়। জীবনের নানা হাসি-কান্না, দুঃখ-বেদনার ইতিহাসে লেগে থাকে কতই না কাহিনী। সেসব কিছু নিয়েই আমার এই ব্লগ। সত্য-কল্পনার মিশেলে কিছু গল্পের ব্লগ। যদি পাঠকের ভাল লাগে। নিজেকে সার্থক বলে মনে করব।

আমার পরিসংখ্যান

ঐশিকা বসু
quote icon
নমস্কার পাঠক, সামহোয়্যার ব্লগে ঐশিকা বসু আপনাকে স্বাগত জানায়। জীবনের নানা হাসি-কান্না, দুঃখ-বেদনার ইতিহাসে লেগে থাকে কতই না কাহিনী। সেসব কিছু নিয়েই আমার এই ব্লগ। সত্য-কল্পনার মিশেলে কিছু গল্পের ব্লগ। যদি পাঠকের ভাল লাগে। নিজেকে সার্থক বলে মনে করব। অনেক গল্পসল্প লিখুন, আর পড়ুন। বাংলা সাহিত্যকে টিকিয়ে রাখতে দেশ-কাল নির্বিচারে সকলেরই সাহায্য প্রয়োজন। তাই আমি এক ভারতীয় হয়েও আপনাদের সঙ্গী হতে হাত মেলালাম। আশা করি আপনাদের প্রত্যুত্তরও হবে ইতিবাচক। ধন্যবাদ।
আমার সকল পোস্ট (ক্রমানুসারে)

অন্ত-হীন

লিখেছেন ঐশিকা বসু, ০৯ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ রাত ১০:১৪

হাওড়া-মালদা টাউন এক্সপ্রেস। কোচ নং এস সিক্স। আগে থেকেই স্টেশনের চা-ওলাকে জিগ্যেস করে জেনে নিয়েছিলাম কোচটা কোথায় পড়ে, তাই ব্যাণ্ডেল থেকে উঠতে হলেও অসুবিধা হয়নি। আমার বার্থ নং ছিল ৩৩। এবার সেখানে যেতেই চমকে উঠলাম। আমার সিটের উল্টোদিকে বসে রয়েছে সবুজ সালোয়ার পরা এক মহিলা। কি বীভৎস তার মুখ! মুখের... বাকিটুকু পড়ুন

১ টি মন্তব্য      ৫৭ বার পঠিত     like!

প্রতিস্পর্ধী (দ্বিতীয় ও শেষ অংশ)

লিখেছেন ঐশিকা বসু, ১১ ই জানুয়ারি, ২০১৭ রাত ১০:৪৭

'প্রতিস্পর্ধী' গল্পটির প্রথম অংশ এখানে -
http://www.somewhereinblog.net/blog/Aishika/30176209

আজ গল্পের দ্বিতীয় ও শেষ অংশ

দৃপ্তর মৃত্যুর পর অন্তত ১৫টা দিন কেটে গেছে। কিন্তু পুলিশের তরফ থেকে মাধব কিছুই জানতে পারেনি। অথচ অফিসার নিজেই সেদিন বলেছিলেন, সন্দেহভাজন কাউকে পেলেই উনি জানাবেন। তার মানে আজ এই এতদিন পরেও কাউকেই পাওয়া গেল না? নাকি ওনারা... বাকিটুকু পড়ুন

২ টি মন্তব্য      ২৩ বার পঠিত     like!

প্রতিস্পর্ধী (প্রথম পর্ব)

লিখেছেন ঐশিকা বসু, ০৭ ই জানুয়ারি, ২০১৭ দুপুর ১:১৫

আকাশটা তখনো গনগনে লাল। সন্ধ্যের পড়ন্ত বেলায় জায়গাটা নিস্তেজ হয়ে আসে। দু-একটা গাড়ির হুস হুস শব্দে সচকিত হয়ে ওঠে নিশ্ছিদ্র নিস্তব্ধতা। সাঁই সাঁই বেগে চলে গাড়িগুলো। তবু মেটে পথ ছেড়ে হাইরোডের রাস্তাটাই রোজ ধরে দৃপ্ত। এতে নাকি শর্টকাট হয়। হেঁটে হেঁটে রোজ এভাবে বাড়ি ফেরে সে। রাস্তার একধার দিয়ে সতর্ক... বাকিটুকু পড়ুন

৪ টি মন্তব্য      ৩৬ বার পঠিত     like!

এ মন চায় যে MORE...

লিখেছেন ঐশিকা বসু, ৩০ শে ডিসেম্বর, ২০১৪ রাত ৯:৩৯



এক,
দুই,
তিন,
...
একশো। মানে একশো টাকা। অর্থাৎ মাসের এই শেষ দিনটাতে কুন্তল স্যারের ব্যাচে নিয়ে যাওয়ার জন্য এই একশোটা টাকাই সম্বল। না, তার মানে এই নয় যে স্যারের মাইনে বাবদ সে এই টাকাটা নিয়ে যাচ্ছে। তার বন্ধুসার্কেলে টিকে থাকতে গেলে আজ টাকাটা জরুরী। ভীষণ জরুরী।
আসলে হয়েছে কি, অভিলাষের স্কুলে একটা বন্ধুগ্রুপ... বাকিটুকু পড়ুন

১ টি মন্তব্য      ২৬ বার পঠিত     like!
আরো পোস্ট লোড করুন
ব্লগটি ২৪৫ বার দেখা হয়েছে

আমার পোস্টে সাম্প্রতিক মন্তব্য

আমার করা সাম্প্রতিক মন্তব্য

আমার প্রিয় পোস্ট

আমার পোস্ট আর্কাইভ