somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

পোস্টটি যিনি লিখেছেন

নতুন নকিব
আলহামদুলিল্লাহ। যা চাইনি তার চেয়ে বেশি দিয়েছেন প্রিয়তম রব। যা পাইনি তার জন্য আফসোস নেই। সিজদাবনত শুকরিয়া। প্রত্যাশার একটি ঘর এখনও ফাঁকা কি না জানা নেই, তাঁর কাছে নি:শর্ত ক্ষমা আশা করেছিলাম। তিনি দয়া করে যদি দিতেন, শুন্য সেই ঘরটিও পূর্নতা পেত!

স্বাগত হিজরি নববর্ষ ১৪৪৬

০৮ ই জুলাই, ২০২৪ দুপুর ২:৩৩
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :
স্বাগত হিজরি নববর্ষ ১৪৪৬

ছবি কৃতজ্ঞতা, অন্তর্জাল।

সময়ের কাটা ঘুরতে ঘুরতে আমরা পেরিয়ে এলাম আরেকটি বছর। শুরু হলো হিজরি নতুন বর্ষ ১৪৪৬। গতকাল সন্ধ্যায় মুহাররমের চাঁদ দেখা গেছে বাংলাদেশের আকাশে। ক্যালেন্ডারের হিসেব অনুযায়ী এ বছর ১০ মুহাররম অর্থাৎ, আশুরা হবে ১৭ জুলাই।

চলুন, নববর্ষের সূচনালগ্নে আমরা সুন্নাহর অনুসরণে পাঠ করে নিই চমৎকার অর্থবহ নির্ধারিত দোআটি-

اَللّٰهُمَّ أَدْخِلْهُ عَلَيْنَا بِالْأَمْنِ وَالْإِيْمَانِ وَالسَّلَامَةِ وَالإِسْلَامِ وَجِوَارٍ مِنَ الشَّيْطَانِ وَرِضْوَانٍ مِنَ الرَّحْمٰنِ

Pronunciation:

আল্লাহুম্মা আদখিলহু আলাইনা বিল-আমনি ওয়াল-ঈমানি ওয়াস-সালামাতি ওয়াল-ইসলামি ওয়া জিওয়া-রিম মিনাশ-শাইতানী ওয়া রিদওয়ানিম মিনার-রাহমান

Translation:

হে আল্লাহ! আপনি আমাদের মাঝে এ মাস/ বছরের আগমন ঘটান- শান্তি, নিরাপত্তা, ঈমান এবং ইসলামের (উপর অবিচলতার) সাথে; এবং শয়তান থেকে সুরক্ষা ও দয়াময় আল্লাহর সন্তুষ্টির সাথে।

সাহাবায়ে কেরাম নতুন মাস বা নতুন বছর শুরুর এ দুআটি তেমন গুরুত্ব দিয়ে শিখতেন, যেভাবে কুরআনুল কারীম শিখতেন। -আল ইসাবাহ ফী তাময়ীযিস সাহাবাহ, ইবনে হাজার আসকালানী, খ. ৪, পৃ. ২১৮, দারুল কুতুবুল ইলমিয়্যা, বৈরুত, প্র. সংস্করণ ১৪১৫ হি.

নববর্ষে করণীয়ঃ

নতুন একটি বছরের আগমন ঘটা মানে জীবনের নির্ধারিত সময় থেকে একটি বছর হারিয়ে যাওয়া। নির্ধারিত হায়াত হতে একটি বছর কমে যাওয়া। আর জীবন থেকে একটি বছর চলে যাওয়া মানে মৃত্যুর কাছাকাছি আরেক ধাপ এগিয়ে যাওয়া। তাই নতুন বছরে মৃত্যুর স্মরণ এবং পরকালের প্রস্তুতি ভালোভাবে নেওয়ার প্রত্যয় নেয়াই হওয়া উচিত পরকালে বিশ্বাসী একজন মুমিনের সত্যিকারের কাজ। কারণ, আমাদের বয়স আসলে বাড়ছে না, বরং কমছে। নির্দিষ্ট আয়ু বছর বছর কমছে আর আমরা দিনদিন মৃত্যুর কাছাকাছি এগুচ্ছি। তাই নতুন বছরের প্রথম ও প্রধান কাজ হলো জীবনের হিসাব গুছিয়ে নেয়া। আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তাআ'লা চূড়ান্ত হিসেব গ্রহণের আগে নিজের জীবনের হিসাব গুছিয়ে নিতে পারলেই জীবনের পরবর্তী ধাপগুলোতে ভালো কিছু করা সম্ভব। দ্বিতীয় খলিফা হযরত উমার রাদিআল্লাহু তাআ'লা আনহু একবার মিম্বরে দাঁড়িয়ে তার খুতবায় এক ঐতিহাসিক উক্তি উপস্থাপন করেছিলেন। তিনি বলেছিলেন,

"حاسبوا أنفسكم قبل أن تحاسبوا، وزنوا أعمالكم قبل أن توزن عليكم، وتزينوا للعرض الأكبر {يَوْمَئِذٍ تُعْرَضُونَ لا تَخْفَى مِنْكُمْ خَافِيَةٌ} [الحاقة:18]، وإنما يخف الحساب يوم القيامة على من حاسب نفسه في الدنيا

‘তোমাদের জবাবদিহি করার আগে নিজেদের হিসাব করে নাও, এবং তোমার কাজগুলোকে তোমার বিরুদ্ধে ওজন করার আগে ওজন কর, এবং সেই মহাবিচারের দিনে উপস্থাপন করার জন্য নিজেকে গুছিয়ে নাও, {সেই দিন একটি জিনিসও তোমাদের নিকট থেকে গোপন থাকবে না, সূরা আল-হাক্কাহ: 18}, তবে যে ব্যক্তি এই দুনিয়ায় নিজেকে দায়বদ্ধ করবে তার জন্য কিয়ামতের দিন হিসাব প্রদান করা সহজ হবে।'

মুহাররম/ আশুরার আমলঃ

কুরআনে বর্ণিত চারটি হারাম বা সম্মানিত মাসের মধ্যে মুহাররম অন্যতম। রমযানের রোজা ফরজ হওয়ার আগে ১০ মুহাররম তথা আশুরার রোযা ফরজ ছিল। আশুরার রোজার ফলে পূর্বের এক বছরের গুনাহ আল্লাহ ক্ষমা করে দিবেন মর্মে হাদিসে বর্ণিত হয়েছে। হাদীসের নির্দেশনা অনুযায়ী আমরা ১০ মুহাররম এবং এর আগে বা পরে আরও একদিনসহ মোট ২ দিন রোজা রাখব ইনশাআল্লাহ। আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তাআলা আমাদেরকে উত্তম আমলগুলো অধিক পরিমানে করার তাওফিক দান করুন।
সর্বশেষ এডিট : ০৮ ই জুলাই, ২০২৪ দুপুর ২:৪৯
০টি মন্তব্য ০টি উত্তর

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছবি সংযুক্ত করতে এখানে ড্রাগ করে আনুন অথবা কম্পিউটারের নির্ধারিত স্থান থেকে সংযুক্ত করুন (সর্বোচ্চ ইমেজ সাইজঃ ১০ মেগাবাইট)
Shore O Shore A Hrosho I Dirgho I Hrosho U Dirgho U Ri E OI O OU Ka Kha Ga Gha Uma Cha Chha Ja Jha Yon To TTho Do Dho MurdhonNo TTo Tho DDo DDho No Po Fo Bo Vo Mo Ontoshto Zo Ro Lo Talobyo Sho Murdhonyo So Dontyo So Ho Zukto Kho Doye Bindu Ro Dhoye Bindu Ro Ontosthyo Yo Khondo Tto Uniswor Bisworgo Chondro Bindu A Kar E Kar O Kar Hrosho I Kar Dirgho I Kar Hrosho U Kar Dirgho U Kar Ou Kar Oi Kar Joiner Ro Fola Zo Fola Ref Ri Kar Hoshonto Doi Bo Dari SpaceBar
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :
আলোচিত ব্লগ

“মুক্তিযোদ্ধা কোটা বিরোধী আন্দোলন” । কারো বিশেষ অধিকারকে স্বীকৃতি দেওয়াকে বৈষম্য বলে না।

লিখেছেন বাউন্ডেলে, ১১ ই জুলাই, ২০২৪ রাত ১০:০২


বৈষম্য কাহাকে বলে ? এটা আগে ভালো করে জানুন, তারপর গায়ের জোর দেখান। কারো অধিকারকে স্বীকৃতি দেওয়াকে বৈষম্য বলে না। প্রশ্নফাঁস জেনারেশন চিলের পিছনে ঘুরছে।
সবাই সমান নয়। সবার অবদানও... ...বাকিটুকু পড়ুন

দেখে এলুম অষ্ট্রেলিয়া…… পর্ব - ২ [ ছবি ব্লগ ]

লিখেছেন আহমেদ জী এস, ১১ ই জুলাই, ২০২৪ রাত ১০:৫২


এসেছি অষ্ট্রেলিয়া দেশটি দেখতে। ভাই-বোনেরাও দেশটি ঘুরিয়ে ফিরিয়ে দেখানোর জন্যে পাগল। তাই এখান থেকে ওখানে এতো এতো ঘুরতে হয়েছে যে খেই হারিয়ে ফেলতে হচ্ছে এখন লিখতে... ...বাকিটুকু পড়ুন

~~~কোটা তুমি মহান~~~

লিখেছেন জটিল ভাই, ১২ ই জুলাই, ২০২৪ সকাল ৮:৫০

♦أَعُوْذُ بِاللهِ مِنَ الشِّيْطَانِ الرَّجِيْمِ (বিতাড়িত শয়তান থেকে আল্লাহ্'র নিকট আশ্রয় প্রার্থনা করছি)
♦بِسْمِ ٱللَّٰهِ ٱلرَّحْمَٰنِ ٱلرَّحِيمِ (পরম করুণাময় অসীম দয়ালু আল্লাহ্'র নামে)
♦ٱلسَّلَامُ عَلَيْكُمْ (আপনার উপর শান্তি বর্ষিত হোক)


(ছবি নেট হতে... ...বাকিটুকু পড়ুন

রিজাইনার চিঠি

লিখেছেন খায়রুল আহসান, ১২ ই জুলাই, ২০২৪ সকাল ১১:৪৫

সাস্কাচুয়ানের গরম

আমি এখন আছি কানাডার সাচকাচুয়ান প্রভিন্সের প্রাদেশিক রাজধানী রিজাইনা শহরে। সাস্কাচুয়ানের নাম শুনলেই সবার মুখে এক কথাঃ উহ, কি ঠাণ্ডারে বাবা! সবার খালি মেঘে ঢাকা... ...বাকিটুকু পড়ুন

ব্রুকলীনের চিঠি

লিখেছেন সোনাগাজী, ১২ ই জুলাই, ২০২৪ বিকাল ৫:০৩



ব্রুকলীনের বাংগালী পাড়ার রাজধানী হচ্ছে ২টি রাস্তার ক্রসিং এলাকার মাঝে অবস্হিত শপিং এলাকা ( ১ বর্গ কিলোমিটার ), ইহার নাম চার্চ-ম্যাকডোনাল্ড; ইহা বাংগালীদের অর্থনৈতিক, সাংস্কৃতিক ও ধর্মীয় কেন্দ্র;... ...বাকিটুকু পড়ুন

×