somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

আমার পরিচয়

আমার পরিসংখ্যান

আমার সকল পোস্ট (ক্রমানুসারে)

গল্পটা কি শুধুই অরিত্রীর?

লিখেছেন নির্ভাণা, ০৯ ই ডিসেম্বর, ২০১৮ দুপুর ১২:২২

পরম স্নেহে পরম আদরে, তিল তিল করে গড়ে তোলা সন্তানের পরিণতি হোক অরিত্রীর মতো, সেটা কোন বাবা মায়েরই কাম্য নয়। বাবা মায়ের পর যিনি কলম ধরা শেখান, তিনি হচ্ছেন শিক্ষক। তাই একজন শিক্ষকের দায়িত্ব এবং দায়বদ্ধতাও অনেক বেশী। শিক্ষক যেমন শাসন করবেন, স্নেহ, মমতা দিয়ে আগলেও রাখবেন। সেই সাথে নৈতিকতা... বাকিটুকু পড়ুন

২ টি মন্তব্য      ৪৯ বার পঠিত     like!

সামাজিক প্রেক্ষাপটে #me_too (শেষ পর্ব)

লিখেছেন নির্ভাণা, ২৩ শে নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১১:৪৪

এ পর্যন্ত শুধুমাত্র শারীরিক যৌন হয়রানীর কথা গুলো আমরা শুনেছি, তবে অফিস এবং অন্যান্য প্রতিষ্ঠানে, নারীরা প্রতিনিয়ত যেই মানুষিক যৌন হয়রানীর শিকার হচ্ছেন, সেটাও কিন্তু সহনীয় নয়। দেহের আকৃতি, চলা ফেরা, পোশাক নিয়ে, এমনকি প্রোমোশন নিয়ে যেই কটূক্তি গুলো নারীরা শুনে থাকেন, সেই কথা গুলোর জন্য #me_too হতে পারে একটি... বাকিটুকু পড়ুন

৪ টি মন্তব্য      ১৪৫ বার পঠিত     like!

সামাজিক প্রেক্ষাপটে #me_too (১)

লিখেছেন নির্ভাণা, ২৩ শে নভেম্বর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:৪৮

ছোটবেলায়, মুরুব্বীদের মুখে একটা কথা শুনতাম, ‘বেটি-মাটি’, অর্থাৎ মেয়ে মানুষকে হতে হবে, মাটির মতো নমনীয়, যার ত্যাজ থাকবেনা, প্রতিবাদী মনোভাব থাকবেনা, অনায়াসে সোয়ে যাবে অনেক কিছু (অন্যায়কেও) এবং বক্তব্য থাকবে কম। সহজ ভাষায় বলা যেতে পারে, মাটির মতো নমনীয়, ঠাণ্ডা এবং নিম্ন মুখী। অতটুকু বয়সে যুক্তি বুদ্ধি দিয়ে বিবেচনা... বাকিটুকু পড়ুন

৭ টি মন্তব্য      ১০৮ বার পঠিত     like!

যখন আমি পথিক-১

লিখেছেন নির্ভাণা, ০৯ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১২:৩৭

বাস থেকে ধানমন্ডি ২৭-এ নেমে মনের সুখে হাটা দিলাম পান্থপথের উদ্দেশ্যে। রথ-ও দেখা হলো, কলাও বেচা হলোর কনসেপ্টে, ভাবলাম, ক্যালোরিও বার্ন হলো, পছন্দের একটা ম্যাগাজিনও কেনা হলো আবার অল্প বিস্তর কিছু স্ট্রিট ফুডও খাওয়া হলো। চানাচুর মাখা হাতে নিয়ে, খাচ্ছি, হাঁটছি আর শহর দেখছি। চানাচুর শেষ কিন্তু হাটার রাস্তাতো এখনও... বাকিটুকু পড়ুন

২ টি মন্তব্য      ৯০ বার পঠিত     like!

একটি চলচ্চিত্র... একটি বই...... কিছু এলোমেলো অনুভূতিতে

লিখেছেন নির্ভাণা, ০৩ রা নভেম্বর, ২০১৮ রাত ৮:১২

লেখাটি শুরু করার আগে অনেক বার ভেবেছি, লেখাটি কে আসলে কোন ছকে ফেলব, পাঠ প্রতিক্রিয়া নাকি চলচ্চিত্র পর্যালোচনা নাকি এই দুই-এর মিশেলে আমার নিজস্ব কিছু অনুভূতি।

প্রথমে না হয় চলচ্চিত্র প্রসঙ্গেই আসি। আজ থেকে আনুমানিক ১০ বছর আগের কথা, গ্রন্থ কীট পদবী তো দুরস্থান, জীবনে কোন উপন্যাস ও ধরে দেখিনি। ‘জি... বাকিটুকু পড়ুন

৩ টি মন্তব্য      ৪২ বার পঠিত     like!

দিনলিপি-৩

লিখেছেন নির্ভাণা, ১৯ শে অক্টোবর, ২০১৮ সকাল ৮:৪৭

কবে যেন একটা দিন এসেছিল, সংসারের গল্প দেখাতে। সূর্য উঠার সাথে সাথেই কোন এক অট্টালিকার বারান্দায় গাছের পাতা গুলো আড়মোড়া ভেঙে জেগেছিল। কি উজ্জ্বল, কি টলটলে, না জানি কত যত্নে, সংসার গল্পের প্রধান পরিচালক তাকে আগলে রাখে।

বারান্দাটায় রৌদ পড়েছে, চড়া রৌদ। রোজকার কাপড় গুলো রৌদ পোহায়, আর পরিচ্ছন্ন হওয়ে,... বাকিটুকু পড়ুন

৭ টি মন্তব্য      ৪৯ বার পঠিত     like!

দিনলিপি -২

লিখেছেন নির্ভাণা, ১৮ ই অক্টোবর, ২০১৮ বিকাল ৪:৫৮

কোন একটা দিন আসে এক ঝাঁপি স্মৃতি নিয়ে। পর্দা খুলছে আর নামছে, যেন একদিনেই শেষ করতে চায় নাটকের সব পর্ব। ঐ বিশ দিনের টোনা-টুনির সংসারটা যেন হয়েছিল দ্বিতীয় মধুচন্দ্রিমা। বাবা মা বিশ দিনের জন্য উড়ালপঙ্খি হওয়ার আগে, হাতে চাবি ধড়িয়ে দিয়ে বলেছিলেন, ‘এই কয়দিন তোরা দুই জন একটু বাসায়... বাকিটুকু পড়ুন

৭ টি মন্তব্য      ৭১ বার পঠিত     like!

দিনলিপি -১

লিখেছেন নির্ভাণা, ১৭ ই অক্টোবর, ২০১৮ রাত ১২:৪৪

চপিং বোর্ডে সব্জি কাটা আর অফিস এর ডেডলাইন চলছে একই গতিতে। দিনের শুরু সূর্য ওঠার আগে, শেষ কখন জানি না !!!!!

প্রতিদিনের সাংসারিক ডেডলাইন গুলো নিশ্চিন্তে ঘুমায়, কারণ ওরা জানে সময়ের আগে সব তৈরি থাকবে। ফোনের ওপার থেকে কান শুনতে পায়, ‘কালকে গ্রেইড সাবমিসান-এর লাস্ট ডেইট’। অফিসের ডেডলাইন-টাও জানে, ৪৮ ঘণ্টায়... বাকিটুকু পড়ুন

৯ টি মন্তব্য      ৮৮ বার পঠিত     like!

অধরা-৪ (শেষ পর্ব)

লিখেছেন নির্ভাণা, ১৬ ই অক্টোবর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:৪৩

‘হ্যালো, রাফিদ বলছিলাম, আপনি কি অধরা’

‘জি, আমি অধরা। ভাল আছেন?’

ভাল আছেন কথাটার কোন উত্তর না দিয়ে, রাফিদ আসল কথাটাই বলল, ‘মানে…… আ… আমি আপনার সাথে একটু কথা বলতে চাচ্ছিলাম।‘

‘জি অবশ্যই, বলুন’

‘না আসলে ফোনে না, সামনা সামনি, আজকে অফিসের পর ফ্রি আছেন?’

‘জি আছি, কিন্তু আমি আসলে বুঝতে পারছিনা ব্যাপারটা কি, হঠাৎ... বাকিটুকু পড়ুন

৬ টি মন্তব্য      ১১০ বার পঠিত     like!

অধরা-৩

লিখেছেন নির্ভাণা, ১৫ ই অক্টোবর, ২০১৮ বিকাল ৫:৫৮

সারা সপ্তাহ অফিসের পর, বৃহস্পতিবার রাতটা যেন একেবারে ইচ্ছে গাছ। আর সেই সাথে রাতে যদি থাকে বার্সেলোনার খেলা, আর কি চাই।
এমনই এক সময়, মুখে বেশ একটা আহ্লাদ আহ্লাদ ভাব নিয়ে, রাফিদের কাছে আরমিন কথাটা পারলো, ‘এই বেবি শোন না, কালকে কিন্তু তুমি আমার সাথে পিংক সিটি যাবা, আমি অনেক... বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ৬৭ বার পঠিত     like!

অধরা-২

লিখেছেন নির্ভাণা, ১৪ ই অক্টোবর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:৩২

প্রথমটায় মেয়ে পক্ষ একটু দোলাচলে থাকলেও, বিয়েটা তোরজোড় করে হয়েই গেলো।
মালয়েশিয়া, সিঙ্গাপুর আর ব্যাংকক মিলে বেশ একটা হানিমুনও সেরে আসলো, সদ্য বিবাহিত এই কপোত কপোতী। তবে রাফিদের ভিন্ন একটা অভিজ্ঞতা হলো, গোটা হনিমুনটা, তার জন্য ছিলো সেলফি-ময়, দুই পা আগালেই একটা করে সেলফি, ঘুম থেকে উঠার পর একটা সেলফি, খাবার... বাকিটুকু পড়ুন

২ টি মন্তব্য      ৯৫ বার পঠিত     like!

অধর-১

লিখেছেন নির্ভাণা, ১৩ ই অক্টোবর, ২০১৮ সকাল ১১:১৫

(১)

আজও বেশ হন্তদন্ত করে অফিসে ঢুকল রাফিদ। মাথায় সেকেন্ডের কাটার টিকটিক নিয়ে, সময় শেষ হওয়ার এক মিনিট আগে কার্ড পাঞ্চ করে পা ফেলল অফিসে।
ঢোকার সাথে সাথেই নাঈমের ঠাট্টা ব্যঞ্জক উক্তি, ‘কি মামু আজকেও টায় টায়? আর কয়েক সেকেন্ড পর হলেই তো, আজকের বেতনের অর্ধেকটা খচাৎ।‘
রাফিদ বলল, ‘তুমি কি বুঝবা ভাই,... বাকিটুকু পড়ুন

৪ টি মন্তব্য      ১১৩ বার পঠিত     like!

টুকটুকির সাথে একদিন

লিখেছেন নির্ভাণা, ১১ ই অক্টোবর, ২০১৮ বিকাল ৪:২৪


ঝটিতি এক রাতে বাচ্চাদের একটা অনুষ্ঠানের শুটিং-এর অফার পেলাম, আর অনুষ্ঠানটি যেহেতু সিসিমপুর, তাই এক সেকেন্ডও সময় লাগল না উপরনিচে মাথা ঝেঁকে সম্মতি জানাতে। রাতে তাড়াতাড়ি ঘুমানোর জন্য বাচ্চাদেরকে খুব একটা চাপাচাপি করতে হল না, শুধু বলতে হয়েছে, ‘কালকে কিন্তু শিকু, হালুম, টুকটুকি আর ইকরির সাথে কথা বলতে হবে, তাই... বাকিটুকু পড়ুন

৬ টি মন্তব্য      ৭১ বার পঠিত     like!

ভাষা বিভ্রাট

লিখেছেন নির্ভাণা, ০৭ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ রাত ৩:৫৭

শহরের একটা ঘিঞ্জি গলি, তার মধ্যে ব্যক্তিগত গাড়ি আর রিক্সা পাল্লা পাল্লি দিয়ে বানিয়ে ফেলল তিনটি লাইন। ব্যাস !!! হয়ে গেল একটা জগা খিচুড়ি অবস্থা। দুই রিক্সার চাকায় লাগলো টক্কর, আর কে পায় ‘তুই আগে না মুই আগে’, ‘তুই আগাইলি কেন, তো, তুই ডাইনে ঘুরাইলি কেন’। এরপর এর বাক্য গুলো... বাকিটুকু পড়ুন

৫ টি মন্তব্য      ৯৬ বার পঠিত     like!

বইয়ের পাতার কলকাতায় আরও একবার….

লিখেছেন নির্ভাণা, ৩০ শে আগস্ট, ২০১৮ সকাল ৮:০০

‘২১শে মার্চ ফ্লাইট? কোথায় যাচ্ছেন?’
আমি: ‘ কলকাতায়’
‘কলকাতায় কি শপিংয়ে?’
আমি: ‘না, ঘুরতে।’
৩২ দাঁতের মুক্তোঝরা হাসিটা নিমেষেই মিলিয়ে গিয়ে, চোখ চরক গাছে তুলে, প্রশ্ন করলেন, ‘ঘুরতে???
কলকাতায়??? কলকাতায় ঘুরার জায়গা আছে নাকি?’
আমি: ‘আছেতো, ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়াল, রবীন্দ্রসদন, কলেজ স্ট্রিট, প্রিন্সেপ ঘাঁট……; আমারতো আরও ইচ্ছা ছিল শান্তিনিকেতন আর কাশী ঘুরার’
চেহারায় তখনও প্রশ্নবোধক চিহ্ন রেখে, ‘ও... বাকিটুকু পড়ুন

৬ টি মন্তব্য      ১৩২ বার পঠিত     like!
আরো পোস্ট লোড করুন
ব্লগটি ২২০৮ বার দেখা হয়েছে

আমার পোস্টে সাম্প্রতিক মন্তব্য

আমার করা সাম্প্রতিক মন্তব্য

আমার প্রিয় পোস্ট

আমার পোস্ট আর্কাইভ