somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

আমার পরিচয়

...............................

আমার পরিসংখ্যান

আমার সকল পোস্ট (ক্রমানুসারে)

ক্লান্তিজনিত

লিখেছেন নৈশচারী, ২৭ শে ফেব্রুয়ারি, ২০১২ বিকাল ৪:৪৬

প্রিয় অন্যজন,



এই ভীড়ের শহরে প্রতিদিন সকাল থেকে রাত অবধি কটা করে গুমখুন হচ্ছে তার হিসেব রাখবার আদৌ কোন প্রয়োজন আছে কি, বলো তো? যেখানে ভোরের মুখ দেখে পথে বেরিয়ে পড়া মাত্রই একশো একটা চারচাকার তীব্র হর্ন আর জেগে ওঠা যন্ত্রশহরের সম্মিলিত হুঙ্কারের নীচে চাপা পড়ে অবলীলায় খুন হয়ে যাচ্ছে তোমার... বাকিটুকু পড়ুন

৭৪ টি মন্তব্য      ৫৪৬ বার পঠিত     ১৬ like!

অসংলগ্ন আত্মপ্রলাপ ও বনপাখির অব্যক্ত জবানবন্দী

লিখেছেন নৈশচারী, ২৪ শে নভেম্বর, ২০১০ রাত ২:৪৫

০১.

তাকে আমি পেয়েছিলাম পুরোপুরি গুঁড়িয়ে যাওয়া দুমড়ে মুচড়ে অন্ধকারে সেঁধিয়ে থাকা বিস্রস্ত এক ভীত হরিণীর বেশে।

তার চোখের কোণায় জল জমে ছিল তখন অবধি। সেখানে জমাট বাঁধা সংখ্যাতীত দ্বিধা আর অমীমাংসিত প্রশ্নগুলো তার দৃষ্টি থেকে মুছে দিয়েছিল শৈশবের সারল্যকে। কারণ তখন সে আর সেই দেবশিশুটি নেই যাকে এক বিষাক্ত অজগর গ্রাস... বাকিটুকু পড়ুন

১০৩ টি মন্তব্য      ৯৬৪ বার পঠিত     ৩৯ like!

একটি সোনার পানদানি ও গফুর খাঁ-র কয়েকদিন

লিখেছেন নৈশচারী, ২০ শে অক্টোবর, ২০১০ রাত ২:২০



০১.

সেটা ছিল অমাবস্যার তিথি।

গাঢ় অন্ধকারের পিঠে গোরস্থানের পাহারাঘরে দূরবর্তী নক্ষত্রের মত মিটমিটিয়ে জ্বলছিল একটা বেওয়ারিশ লন্ঠণ। ঘুটঘুটে আঁধার চারপাশটায় জমাট বেঁধে লেপ্টে ছিল এমনভাবে যেন রাতের গায়ে ঘন এক পোচ আলকাতরা মাখিয়ে দিয়েছে কেউ। দু চারটা রাতখেকো শেয়াল আর ঝিঁঝিঁপোকাদের ক্লান্তিহীন ডাকাডাকি নিস্তব্ধতার জাল ছিঁড়ে দিলেও রাতের আঁধারের গাঢ়ত্ব আর... বাকিটুকু পড়ুন

১৭৭ টি মন্তব্য      ৯০২ বার পঠিত     ৫০ like!

স্থবির সময়ের ব্যবচ্ছেদ

লিখেছেন নৈশচারী, ১৫ ই অক্টোবর, ২০১০ রাত ৩:২৪

একেকটা সময় আসে যখন আশেপাশের সবকিছুকেই নিরর্থক লাগতে শুরু হয় খুব বেশি মাত্রায়। হাসি,কান্না,কথা বলা,ভাবনা,বেঁচে থাকা এমনকি মরে যাওয়াটাও। এই সময়গুলির নাম দিয়ে থাকি স্থবির সময়। কেননা ওই সময়টায় কিছু মুহূর্তের জন্য হলেও আমি যুগপৎ ভাষাহীনতা ও স্থবিরতায় আক্রান্ত হই। আর সময়ের সুতোগুলো হাত থেকে খুলে খুলে হারিয়ে যায় একটু... বাকিটুকু পড়ুন

৯৫ টি মন্তব্য      ৫০৯ বার পঠিত     ৩২ like!

দৃষ্টি বিষয়ক

লিখেছেন নৈশচারী, ০৬ ই অক্টোবর, ২০১০ রাত ৩:২১

Roll your eyes,roll your eyes & roll your eyes...........

দ্যাখো তোমার চোখের ভেতর সাঁই করে বিঁধে গেছে ইকারাসের ছুঁড়ে মারা একশো একটা তীর। তাদের আহ্বান তুমি এড়াবে কেমন করে?

কি করে ফেরাবে তাদের, যখন তোমার ছাইরঙা চোখ বেয়ে জলপ্রপাতের মত ঝরে পড়ছে মুহুর্মুহু ফোঁটা ফোঁটা রক্ত অথবা পেঁজা পেঁজা মেঘ?

তার চেয়ে বরং... বাকিটুকু পড়ুন

১১৬ টি মন্তব্য      ৫৯৯ বার পঠিত     ৩১ like!

একটি আকস্মিক মৃত্যু এবং কিছু ভেসে যাওয়া দীর্ঘশ্বাস

লিখেছেন নৈশচারী, ২৮ শে সেপ্টেম্বর, ২০১০ রাত ১২:২৪



******

ছয়তলার ছাদের পানির ট্যাঙ্কির উপর পা ঝুলিয়ে বসে আছি। বিগত দুই ঘন্টা ধরে। শুনছি চড়ুই পাখিদের দৈনন্দিন সাংসারিক কলহের সংলাপ। এবং উদ্দেশ্যহীন দৃষ্টিতে দেখছি চ্যাপ্টা হয়ে দৃষ্টির সমকোণে ঝুলে থাকা আকাশ। চার পাঁচটা পুড়ে যাওয়া সিগারেটের অবশিষ্টাংশ পায়ের নিচে ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে এখানে সেখানে। দুদিন আগে খাওয়া হয়েছিল ওগুলো। এখনো... বাকিটুকু পড়ুন

১১১ টি মন্তব্য      ৬৭২ বার পঠিত     ৩০ like!

এবং মাতৃত্ব.......

লিখেছেন নৈশচারী, ১৪ ই সেপ্টেম্বর, ২০১০ বিকাল ৩:১৬



আমি তখন পানশালায় বসে মদ্যপানে বিভোর ছিলাম। আর ক্লান্ত শহরের মধ্য যৌবনবতী রাত আমার শরীরের ক্ষয়িষ্ণু হাড়গুলো খুবলে খুবলে খাচ্ছিলো। কিছুক্ষণ আগেই অনাগত চতুর্থ সন্তানের গর্ভপাত ঘটিয়ে এসে শ্রান্ত শরীর ও মনের সাময়িক ধকল কাটাবার উদ্দেশ্যে আমি সারারাত পানশালায় কাটানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম। কিন্তু পরিকল্পনায় বাধ সাধলো হতচ্ছাড়া বুড়ো ওয়েটার,"বার বন্ধ... বাকিটুকু পড়ুন

১৯০ টি মন্তব্য      ১১১৩ বার পঠিত     ৪২ like!

ব্লগীয় বাঁদরামিনামা 7.1[আমার আবিষ্কৃত ইমোসমূহ সহ]

লিখেছেন নৈশচারী, ০৩ রা সেপ্টেম্বর, ২০১০ সন্ধ্যা ৬:৪১



দুপুরবেলা ঘুম থেকে উঠেই মেজাজটা বিলা হয়ে গেল। আম্মা প্রতিদিনের মত একগাদা বস্তাপচা ঝাড়ির বাক্সপ্যাটরা খুলে বসছে আর আমার ধারাবাহিকভাবে হাই তুলতে থাকা নির্লিপ্ত মুখের দিকে তাকিয়েও বিন্দুমাত্র না দমে বিপুল উত্সাহে বকেই যাচ্ছে,এইসব মেয়ের দুনিয়াতে কি হবে? ভবিষ্যত আছে কিছু এদের? আমি তো অন্ধকার ছাড়া আর কিছু দেখি... বাকিটুকু পড়ুন

৪৫৫ টি মন্তব্য      ২৭২৭ বার পঠিত     ৬০ like!

স্বপ্নবিষয়ক দুঃখবিলাস

লিখেছেন নৈশচারী, ২৯ শে আগস্ট, ২০১০ রাত ২:১৩



একেকটা দিন শেষ হয়ে গেলে আলস্যজড়ানো মস্তিষ্কে একটুখানি নাড়া দিয়ে যাপিত দিনের হিসেব মেলানোর চেষ্টা করি আজকাল। আলস্যের চূড়ান্ত সীমায় পৌঁছুতে পৌঁছুতে চিন্তার রেখাগুলিতেও আলস্য ছড়িয়ে গেছে ভাইরাসের মত। কিছু ভাবতে গেলেই অলস মস্তিষ্ক কোষগুলি আয়েশী আর আহ্লাদী বেড়ালের মত চিন্তার রাশ টেনে ধরে বলতে শুরু করে - কি... বাকিটুকু পড়ুন

১২০ টি মন্তব্য      ৮২৬ বার পঠিত     ৩৩ like!

বিভ্রান্তিভ্রমণ

লিখেছেন নৈশচারী, ২২ শে আগস্ট, ২০১০ রাত ১১:৪৮



সে বেরিয়ে এসেছিল অঝোর বর্ষণের ভেতর থেকে।

সমস্ত আকাশ জুড়ে ঝুমঝুম শ্রাবণধারা নামছে তখন টানা মেঘের করতাল বাজিয়ে।

মেঘের চিঠি - গায়ে মেখে মেখে ধীরে ধীরে হাঁটছে সে।

তার আনত চোখের পাপড়িতে ফোঁটা ফোঁটা বৃষ্টিকণা জমে আছে মুক্তোসদৃশ। চোখের মণিতে মেঘের ছায়া.........আর এক রাজ্য কুয়াশার বাস। অদ্ভুত সব খন্ড খন্ড কুয়াশামেঘ তার... বাকিটুকু পড়ুন

১৪২ টি মন্তব্য      ৭০০ বার পঠিত     ৩৪ like!

সারমেয় সংলাপ

লিখেছেন নৈশচারী, ০৮ ই আগস্ট, ২০১০ রাত ১১:৪৮



একটা দীর্ঘ স্থবির রাত শেষে স্ফুলিঙ্গের মত জেগে উঠতে থাকা আধ-ঘুমন্ত কাকেদের একদা একদল শ্বেত ভাল্লুক পুড়িয়ে দিয়েছিল সূর্যরশ্মির জ্বলন্ত আয়নায় ঝলসে। পোড়া কাকেদের গন্ধে বিলীন হলো মৃত শহর। আত্মম্ভরী আয়না তার ছায়া গ্রহণে অস্বীকৃতি জানিয়ে দাঁড়িয়ে রইলো উদ্ধত গ্রীবা উঁচিয়ে।

আয়নায় প্রতিফলিত হলো সূর্য,... বাকিটুকু পড়ুন

১৬০ টি মন্তব্য      ৭৬৮ বার পঠিত     ৩৬ like!

সূর্যের রক্তস্নান ও বিবিধ পাপোল্লাস

লিখেছেন নৈশচারী, ২৬ শে জুলাই, ২০১০ রাত ১:৩৩

০১.

সকাল থেকে মিলির বাঁ চোখের পাতা কাঁপছে। শিরশিরে একটা ভয় গলার ভেতর কাঁটার মত আটকে আছে- বেরোনোর পথ পাচ্ছে না। বাবাকে বলা হয়নি, ছোড়দা আজ আসবে বলে দুদিন আগে খবর পাঠিয়েছে গোপনে। আজকাল প্রতিটা দিন শামুকবন্দী পতঙ্গের মত কাটে দুরুদুরু বুকে জ্ঞাত অজ্ঞাত অযাচিত নানা আশঙ্কায়। খোলসের ভেতর ঢুকে যেতে... বাকিটুকু পড়ুন

১৩২ টি মন্তব্য      ৭২৯ বার পঠিত     ৪৩ like!

ঈশ্বরের হনন ও কতিপয় অন্ধ ও বধির গুটিপোকা

লিখেছেন নৈশচারী, ০৭ ই জুলাই, ২০১০ দুপুর ১:৩৯



০১.

শেষ রাত্রে লন্ঠনের টিমটিমে আলোর নিচে আমরা পাঁচজন রুদ্ধদ্বার বৈঠকে বসেছিলাম। আমি,ডেভিড,শান্তনু,লুকো শি আর ফ্র্যান্কেনস্টাইন। আমরা কথা বলছিলাম কিছু সাংকেতিক ধ্বনি ও ইশারার মাধ্যমে যার অর্থ কেবল আমরাই বুঝতে সক্ষম। আমাদের ঠোঁটের আগায় জানালার কার্নিশের মৃত বাদুড়ের মত ঝুলে থাকা পৈশাচিক ক্রূর হাসিই বলে দিচ্ছিল উদ্দেশ্য সাধনের জন্য আমরা যেকোনো... বাকিটুকু পড়ুন

১৮৪ টি মন্তব্য      ১০৪৫ বার পঠিত     ৩৮ like!

জল-জ্যোৎস্নার জীবন আর কিছু বোকা বোকা পাখি

লিখেছেন নৈশচারী, ০২ রা জুলাই, ২০১০ রাত ১০:৪৪

******

আমি কেবলি হাওয়ার ভেতর হারিয়ে যাচ্ছিলাম। আর থেকে থেকে এক সমুদ্র গভীর জলে ছেঁড়া কাগজের মত পাক খেতে খেতে ডুবে গিয়ে ফের ভেসে উঠছিলাম। কয়েক মুহূর্ত চোখের পাতা আলতো মেলে আমি সন্তর্পনে জলের তলায় হাত দুটোকে ছড়িয়ে দিলাম। ভেবে নিলাম এই বদ্ধ জলে আমার ছোট্ট দেয়ালের পরিধিটাকে দুহাত দিয়ে মেপে... বাকিটুকু পড়ুন

১১২ টি মন্তব্য      ৫৪৪ বার পঠিত     ৩৫ like!

আত্মার আত্ম-উচ্চারণ

লিখেছেন নৈশচারী, ২৯ শে জুন, ২০১০ দুপুর ১২:১৭

বলেছিলাম.........

বিভ্রম ক্যানভাস পুড়ে হবে ছাই,

যদি একবার উঠে দাঁড়াই!

এখানে হয়েছে চাষ -

বারোমাস,

সহস্র শতক জুড়ে

ঘুণে ধরা চেতনার আকাশ! ... বাকিটুকু পড়ুন

১২৮ টি মন্তব্য      ৬১৪ বার পঠিত     ৩৮ like!
আরো পোস্ট লোড করুন
ব্লগটি ৪৫৪৭৬ বার দেখা হয়েছে

আমার পোস্টে সাম্প্রতিক মন্তব্য

আমার করা সাম্প্রতিক মন্তব্য

আমার প্রিয় পোস্ট

আমার পোস্ট আর্কাইভ