somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

কোন ব্লগার কিভাবে প্রিয়তমাকে প্রপোজ করিবেন এবং অপরপ্রান্তের জবাব কি হইবে? (আবারো সামুপাগলার ফাজলামি) :P

১৭ ই জুলাই, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:১৩
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :

পূর্বের পোস্টের পরে নানা ধরণের মন্তব্যে আমার ফাজিল মন আরো বেশি ফাজিল হয়ে গেছে। ;) সেসবের প্রকাশ ঘটাতেই চলে এলো আরেকটি পর্ব ব্লগারদের প্রপোজ স্টাইল নিয়ে। সিটবেল্ট বেঁধে নিন, সামুপাগলার হাসির গাড়ি ছুটল বলে...... :)

পূর্বের পর্ব: কোন ব্লগার কিভাবে প্রিয়তমাকে প্রপোজ করিবেন এবং অপরপ্রান্তের জবাব কি হইবে? (সেই লেভেলের ফাজলামি পোস্ট):P

-----------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------

আবুহেনা মোঃ আশরাফুল ইসলাম

মাই ডিয়ার ডার্লিং ব্লগার হচ্ছেন হেনাভাই। শুধু উনিই নন, ওনার পরিবারের প্রতি সদস্যকে আমার আপন মনে হয়। ওনার স্ত্রীকে বুড়িভাবী ডাকি এবং তার গল্প হেনাভাইয়ের কাছ থেকে শুনি সবসময়। ওনার নাতনী তো আমারো নাতনী। অসাধারণ মানুষ, এবং ব্লগারের পরিবারটিও অসাধারণ! ওনাকে প্রপোজ পোস্টে আনা হচ্ছে পাবলিক ডিমান্ডে! :)

প্রপোজ স্টাইল: ও গো শুনছ, তোমাকে কিছু কথা বলি। ব্লগে সামুপাগলার প্রপোজ পোস্ট দেখে আমারো সাধ জাগল প্রপোজ করার। তোমাকে তো সেভাবে কখনো প্রপোজ করিনি মানে ভালোবাসার কথা জানাইনি। আজকে করে ফেলি, কি বলো?
নয়নতারার দাদী, আমার জীবনে যা কিছু শুভ তার পেছনে শুধু তোমারই হাত আছে। তোমার উৎসাহ, প্রেরণা, ও সম্মতি না থাকলে আমি কখনোই জীবনে সফল হতে পারতাম না, বই লিখতে পারতাম না। তুমি আমাকে আমার চেয়েও বেশি বোঝ। এত বছর আমাকে সহ আমার পুরো সংসারকে আগলে রেখেছ। তোমার মতো অর্ধাঙ্গিনী পেয়ে আমি ধন্য।

যুগে যুগে আমি তোমার উত্তু, তুমি আমার সূচি,
তোমার আমার প্রেম জোড়াতে লাগে না কোন মুচি! :D

ওগো প্রিয়তমা, আমি তোমাকে অনেক ভালো...

বুড়িভাবী: হ্যাঁ গো! কি বলো? লাজ শরম কোথায় বেঁচে এলে গো? চুপ করো। বুড়ো মিনসে, পুরো জীবন জ্বালিয়ে খেল, এখন এ বয়সে এসে তার মনে প্রেম জেগেছে! B:-) একে তো নাচুনে বুড়ো, তার ওপর ঢোলের বাড়ি! ঐ সামুপাগলা তোমার মাথা আরো খেয়েছে। একরত্তি মেয়ে, তার মাথায় এত শয়তানি আসে কি করে? এক আড্ডাঘর দিয়ে তোমাকে বানিয়েছে পাগলের সর্দার, আবার শুরু করেছে এই নতুন নাটক! ছ্যা ছ্যা, এযুগের মেয়েদের লাজ শরম নেই কোন! এত মানুষের সামনে প্রেম পিরিতির কথা বলে! যত্তসব! ;) :D
আরে, বাড়িতে তোমার ছেলে, ছেলের বউ, নাতনী আছে! দাদা হয়েছ, সে কথা কি ভুলে গেছ? এমন কথা যদি তাদের কানে যায় আমি কি আর লজ্জায় ছেলে, বউমাকে মুখ দেখাতে পারব? কত রং রস এর সময় ছিল, তুমি তখন তো কিছু করতে না। :P আর এখন সময় পেরিয়ে, আমাকে বুড়ি বানিয়ে, নাটক দেখাচ্ছে! তোমার এসব আদিখ্যেতায় আমার গা জ্বলে। শোন, তোমার তো লজ্জা শরমের বালাই নেই, আমার আছে। আর যদি এসব কথা শুনি, তবে আমি বাপের বাড়ি চলে যাব, বলে দিলাম! আমার জীবনটা ভ্যা ভ্যা শেষ করে ভ্যা ভ্যা আজ পিরিত ভ্যা ভ্যা....

এন্ড ইট কন্টিনিউস..... ;)
বেচারা হেনাভাই, সবসময় শুনেই যান, কিছু বলার সুযোগ পান না! :P
অবশ্য সেভাবে প্রকাশ না করেই যদি এত বছর ভালোবাসা অমলিন থাকে, তবে তাই শ্রেয়! :)

কাল্পনিক_ভালোবাসা

ব্লগের সবার প্রিয় মডু! একসময়ে চুটিয়ে ব্লগিং করেছেন, এখন অতো রেগুলার না হলেও পর্দার পেছনে ব্লগ এবং ব্লগারদেরকে আগলে রেখেছেন। সবার প্রিয় মানুষটির প্রপোজ স্টাইল কেমন হবে দেখি চলুন:

প্রপোজ স্টাইল: আমার নামেই আছে ভালোবাসা, তবে কল্পনা নয় বাস্তবেই তোমার প্রেমে আমি হয়েছি পাগল। তোমাকে আমি ভালোবাসি ব্লগিং এর মতো করে। যেভাবে ব্লগারদেরকে নিরাপদ করে, নির্বাচিত পাতায় জায়গা দিয়ে উৎসাহিত করা আমার কাজ, সেভাবেই আমি তোমাকে জীবনের সকল কাজে উৎসাহ দেব। ব্লগের শান্তি নিশ্চিত করার ক্ষেত্রে যেভাবে থাকি তৎপর, সেভাবে তোমার হৃদয় শান্তিতে পূর্ণ করব!
মেয়ে: আপনি কি বলছেন? আমি বাবা এসব বুঝিনা। তার চেয়ে বলুন, আপনার এমন কোন গুণ আছে যা আমাকে মুগ্ধ করবে?
কাভা ভাই: হ্যাঁএএএ আছে তো, আমি বেশ ভালো রান্না করতে পারি। ব্লগে রান্নার পোস্ট দিয়েছি মাঝেসাঝে। আমার লেটেস্ট কিছু পোস্টও রান্না সংক্রান্ত।
মেয়ে: উফফ! আবারো ব্লগ? নতুন কিছু বলুন।
কাভা ভাই: আরেহ বলছি বলছি, শোন আমার সব ধরণের বিষয়েই ইন্টারেস্ট আছে। আমি নানা ধরণের টপিকে জ্ঞান রাখি। ব্লগেই যেমন রাজনীতি, খেলাধূলা, রম্য, ভ্রমণ, রাজনীতি, ব্যাবসা, গল্প, অভিজ্ঞতা, সমসাময়িক সহ সবকিছু নিয়েই লিখেছি।
মেয়ে: কাভা ভাইয়ের কলার চেপে ধরে - শোনেন আর একবার যদি ব্লগ শব্দটা উচ্চারণ করেন আমি আপনাকে খুন করে ফেলব বললাম! আমাকে প্রপোজ করছেন, আমাকে নিয়ে কিছু বলুন!
কাভা ভাই: হ্যাঁ, হ্যাঁ বলছি, তুমি বেশ অন্যরকম মেয়ে। ব্লগের প্রতিবাদী নারী ব্লগারদের মতো। ;) আর তোমার সৌন্দর্য নিয়ে কি বলব? তোমায় দেখে বিখ্যাত ব্লগার "রূপনগরের পরী ৪২০" ;) নিকের অধিকারী এক ব্লগারের কথা মনে পড়ে যায়। তার সেই ছোট্ট প্রোফাইল পিকচারের দিকে কত দিনরাত তাকিয়ে থেকেছি! :P তোমাকেও একই রকম মুগ্ধতায় দেখি!
মেয়ে: আপনি পুরোপুরি পাগল, আর সেটাও আমার প্রেমে নয়, ব্লগের প্রেমে। আপনার চেহারা যদি আরো কোন দিন দেখান, আমার জিম ট্রেইনার ভাইকে দিয়ে আপনার চেহারার জিওগ্রাফি পাল্টে দেব! :D
মেয়ে চলে যেতে লাগল....
কাভা ভাই: মনে মনে - মেয়েটি ব্লগের ক্যাচালবাজ পাবলিকদের মতো! ওহো! যাই ব্লগের ক্যাচাল মিটিয়ে আসি! :)

কি করি আজ ভেবে না পাই

সবার প্রিয় ব্লগার। ব্লগের অন্যতম মেধাবী ছড়াকার। শুধু লেখা নয়, মন্তব্য প্রতিমন্তব্যেও নিমিষে ছড়া কেটে ফেলেন প্রতিভাবান ব্লগার। সবার সাথে বেশ দুষ্টুমিও করেন ভীষন রসবোধসম্পন্ন মানুষটি। সেসবের ছাপই রয়েছে তার প্রপোজ স্টাইলে।

প্রপোজ স্টাইল:

কি করি আজ ভেবে না পাই
তোমার রূপের মায়ায় হারিয়ে যাই
আমি যেন আর আমি নাই
আমার সব যে এখন তুমি তাই!

বালিকা তুমি জানো না
আমি তোমার বড় দিওয়ানা
তোমাকে ছাড়া
আমি একদম তাড়ছিড়া!

ব্লগে সবার সাথে করি মাস্তি
"বাদর, ফাজিল, শয়তান, দুষ্টু" :)
এসব কথা রটায় বদ নিন্দুকে
শুধু তুমিই আছো মন সিন্দুকে। :`>

মানুষ যতোই বলুক আমায় মাংকি
আমি পোলা খাঁটি,
করবনা হ্যাংকি প্যাংকি
বিশ্বাস করে হাত বাড়াও লক্ষ্মীটি!

সত্যি, প্রথম দেখার দিন খেয়েছিনু ক্রাশ
গ্রহণ করে আমায়, পূরণ করো আশ
প্রেম পরীক্ষায় করে দাও পাস
দোহাই তোমার, দিয়ো নাকো বাঁশ! :P

বালিকার উত্তর: এই, এই যে মিস্টার, আপনি কি কচি খোকা? এভাবে ছড়া লিখে কেউ প্রপোজ করে? আমার বান্ধবীদেরকে ইয়া বড় বড় সুন্দর সুন্দর কবিতা লিখে প্রপোজ করেছিল তাদের বিএফরা! আর আপনি? আর ছড়ার কি কথা! পাস! বাঁশ! হ্যাংকি প্যাংকি! আপনার নিন্দুকেরা ভুল বলে, ফাজিল নয় আপনি মহাফাজিল একটা! আপনার জন্যে আমার একটা ছড়া রইল,

কি করি তুই আপন না, পর
যা, দূরে গিয়া মর!! X(( ;)

ভ্রমরের ডানা

হুমম! এই মহাশয়কে লাস্ট পোস্টে রাখা হয়নি সেই দুঃখে তিনি আমারই প্রপোজ স্টাইল নিয়ে তিনটি পার্ট লিখে ফেলেন মন্তব্যে! পচানি খেতে এত বেশি উন্মুখ আর কেউ হতে পারে বলে মনে হয়না! ওনাকে আনতে তো হতোই! একতো ওনার মনের খায়েশ পূরণে। দ্বিতীয়ত পূর্ব পচানির প্রতিশোধ নেবার জন্যে! ;) :D চলুন দেখি, ব্লগের গুনী কবি ও ব্লগার কি করে প্রপোজ করেন?

প্রপোজ স্টাইল:

জলকাব্য - পর্ব - ৪২০ - ভ্রমরের ডানার চিঠি ;)

ফুল তুই কি খবর রাখিস?
ভ্রমরের ডানার মানচিত্রে
থাকে কতশত প্রেম কাব্যের ইতিহাস
ভূগোল - বিজ্ঞান - রাজনীতি? ;)
মন্ত্রমুগ্ধ রূপ - মোহ - মায়ায়-
এ ফুল থেকে সে ফুল - দেখে সর্ষেফুল :D
ডানা ঝাপ্টে তীব্র অসহনীয় হাওয়ার সাথে
জীবন মরণ যুদ্ধে - পূর্ণ উদ্দ্যমে
প্রেম খুঁজে দিশাহারা ভ্রমর! :P

এটা শুধু তোমার কথা ভেবেই লিখেছি আমার ফুল! ব্লগে এমনিতে আমি জলকাব্য, সনেট, ব্যবচ্ছেদ, শিরোনামহীন (পাশে শিরোনাম দিয়ে ;) ), পিরামিড কাব্য, খেয়ালি পোলাও থুক্কু প্রেমিক, ইত্যাদি নানা কিসিমের কঠিন কঠিন কবিতা লিখি। সবগুলো সিরিজ আকারে পর্ব পর্ব করে লিখি, যেন কবিতা না কোন লম্বা উপন্যাস! ;) ওসব দেখে আবার আমাকে দার্শনিক ভেবোনা, ব্লগে টিকে থাকতে হলে একটু আকটু ভাবুক, বিরাট চিন্তার ভাব ধরতে হয়! :P এমনিতে আমি কি লিখি নিজেও বুঝিনা, পাঠক যা বলে, তার সাথেই তাল মিলিয়ে চালিয়ে দেই! :-B কিছু বুঝি আর না বুঝি, তোমাকে যে ভালোবাসি সেটা আমি বেশ বুঝি। জলকাব্যে ধুয়ে আনা এ হৃদয়কে গ্রহণ করো নির্ভয়ে, ওহ ভ্রমরের ফুল!

ফুলকন্যার জবাব: ঐ, তুই কি জানিস না বখাটে ছেলেদেরকে বলা হয় যে তারা ভ্রমরের মতো ফুলে ফুলে মধু খেয়ে বেড়ায়? সেই নামই রাখলি? তোর ক্যারেক্টার যে আমার ছোটভাই ডাবলুর হাফ প্যান্টের মতো ঢিলা :P সেটা নাম শুনে আর কবিতা পড়েই বোঝা যায়। এ ফুল থেকে সে ফুল? বদমাইশ, পাজি! তোর মতো কবি স্বভাবের রোমিওদের আমি ভালো জানি। কিং লুইস এর বংশধর! :P এই এক কবিতা কপিপেস্ট করে কতজনকে শোনাবি? আমার বান্ধবী তার বান্ধবী, এলাকার সব মেয়ের তো মুখস্থ! মহল্লাহ সবাই তোর ফুল না? ;) যেদিকে যাস বাগান দেখিস শয়তান? তোর সব আমি জানি, আমি বাংলায় ফুল হতে পারি, ইংলিশে ফুল নই! ;) তাই বলছি, যদি ভালো চাস, আর কোনদিক চেহারা দেখাবি না! X(( ;)

ভ্রমরের ডানা: আরেহ শোন না, ফুল গো, জান গো

ফুলকন্যা পা থেকে স্যান্ডেল হাতে নিয়ে এগিয়ে গেল ভ্রমরের ডানার দিকে, আর ভ্রমরের ডানা দিল দৌড়! মেয়ে দৌড়ায়, উনিও দৌড়ায়!
শেষে উনি মার খেয়েছিলেন কিনা সে কথা ওনার সম্মান রক্ষার্থে ব্লগে প্রকাশ করিলাম না। (ভ্রমরের ডানা দেখেছেন, আমি কত্ত ভালো? ;) )

রাজীব নুর

ওনাকে আনা হয়েছে আমার আদরের ব্লগীয় বোন, অচেনা হৃদি বা হৃদি আপুর কথায়। :)

পুরোন ব্লগার, এতদিন সামুতে টিকে থাকা সহজ কিছু নয়। চেষ্টা করেন সমালোচনা থেকে কিছু শিখতে। বেশ ভালোমনের সুখী মানুষ মনে হয় ওনাকে। রাজীব ভাইয়ের লেখা থেকে জানা যায়, ভাবী এবং তিনি, দুজনেই বেশ রোমান্টিক। সুখে থাকুক তারা এভাবেই।

প্রপোজ স্টাইল: সুরভি, তোমাকে আমি কত ভালোবাসি তা শুধু তুমি নয় জানে দেশবাসী থুক্কু ব্লগবাসী! ব্লগের প্রতি পাতায় আমি লিখে রেখেছি তোমার সাথে আমার প্রথম দেখার ইতিহাস, তোমার আমার প্রেমময় দাম্পত্য জীবনের গল্পগাঁথা! একসময়ে যেকোন পোস্টেই আমি দিয়ে রাখতাম তোমার ছবি। কেননা আমার কাছে পৃথিবীর সব থেকে সুন্দর তুমিই! একবার ভাবো, কতটা ভালোবাসলে এভাবে সবার সামনে প্রকাশ করা যায়? ভালোবাসি ভালোবাসি ভালোবাসি! :`>

সুরভি ভাবী: তোমার জন্যে সবখানে আমাকে লজ্জায় পড়তে হয়। ব্লগ থেকে তোমার দূর সম্পর্কের খালাম্মা আমাদের প্রেম কাহিনী জেনে গেছে। কিসব কথা শোনাল! আমি নাকি তোমাকে শাড়ির আঁচলে বেঁধে রেখেছি, যাদুটোনা করেছি, সেজন্যে তুমি আমাকে ছাড়া কিছুই বোঝনা। তোমার ব্লগ এত পপুলার জানলে জীবনেও অমন পোস্ট দিতে দিতাম না। এখন কিভাবে লজ্জা থেকে বাঁচা যায় তাই ভাবছি, আর উনি এসেছেন আমাকে আরো লজ্জা দিতে! আমিই তোমাকে মাথায় তুলেছি, আমিই নামাব। ;) অফিস থেকে এসে শরবত পাবে না, ছাদে চাঁদ দেখতে যাব না, তুমি ঘুমানোর আগেই ঘুমিয়ে যাব। তাহলে তুমি শুধরাবে, আর ভালোবাসার ঢাকঢোল পিটিয়ে আমাকে লজ্জায় ফেলা বন্ধ করবে। এতদিন আমার নরম রূপ দেখেছ, আজ থেকে দেখবে গরম রূপ! হুমম! X((

জাহিদ অনিক

ওনাকে বেশ প্রথম থেকেই দেখে আসছি। লেখার ধরণে নিজস্বতা আছে। বেশ অল্প সময়েই ব্লগে নিজের জায়গা তৈরি করেছেন এবং সেই জায়গা ধরে রেখেছেন। সত্যিই উন্নতমানের এক ব্লগার। আমার ভীষন প্রিয়, আপন বন্ধুসম ব্লগার।

প্রপোজ স্টাইল:

প্রিয়তমা,
তুমি কখনো জানবেনা
শরীর মনের অস্বস্তি, ছটপটানি
রাতের পর রাত কেটেছে নির্ঘুম
দিনের পর দিন ছিলাম-
অভুক্ত, তৃষ্ষার্ত
কবি হবার সাধনাই মত্ত ছিলাম
অজান্তে প্রেমিক সত্ত্বা উঠল জ্বলে!

পাজরের হাড়গোড় ভেঙ্গে দেওয়া;
আলিঙ্গন
ক্ষনিকের বিরহে পতঙ্গ অগ্নির মিলন
একরত্তি মায়া-
একটুকু স্পর্শে মিশে কায়া-
অল্পই চাওয়া!

প্রিয়তমা, ব্লগের পাতায় বহু কবিতা লিখেছি, প্রচুর পাঠক পড়ে সেসব। আজ শুধু তোমার জন্যেই লিখলাম কবিতা। আজকাল তো ইংলিশ অনুবাদও শুরু করেছি। আমি ইংলিশে কত ভালো ব্লগের সবাইকে জানাতে এবং বাংলা ছবির মতো ইংলিশ লিখে শিক্ষিত হবার প্রমাণ রাখতে। B-) তুমি বললে এই কবিতাটিরও ইংলিশ ভার্সন লিখে দেব। তুমি যা চাও তাই দেব। শুধু আমার ভালোবাসা গ্রহণ করো। প্লিজ এক্সপেক্ট থুক্কু একসেপ্ট মাই লাভ! :`>

মেয়েটির জবাব: ঐ চারচোখা ছোকরা, তোর কি শেভ করারও পয়সা নাই? জংগল থেইক্কা উইঠা আইলি? দাড়ি গোফ রাইখা কি অবস্থা করছে, দেহো! কবি হইছে, নেকুউউউ! প্রেম শুরুই হয়নি আর আলিঙ্গন, স্পর্শ চাস? B:-) প্রেম শুরুর হবার পরে কি চাইবি ব্যাটা? তোর মতো পোলারে আমি ভালোই চিনি, তুই একটা ######*#*#*#**##*------------ (গালিগুলোকে ব্লগের পাতায় শালীনতার খাতিরে আনা গেলনা) :P

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন

আমার ভীষন প্রিয় ও আপন এক ব্লগীয় ভাইয়া। তার আপুমনি ডাকটিতে প্রচুর আন্তরিকতা মিশে থাকে। আসলেই ওনাকে অনেক পছন্দ করি। এজন্যে অধিকার নিয়ে পচাতে যাচ্ছি! :)

প্রপোজ স্টাইল: প্রাণপ্রিয়া, মাহাথিরের জীবন থেকে অনেককিছু শেখার আছে, বুঝলে? সে যেভাবে একটি রাষ্ট্রকে বদলে দিতে পারে, আমিও সুখের আলোয় তোমার জীবনকে বদলে দেব। তিনি ৯৩ বছর পূর্ণ করে সেঞ্চুরীর দিকে পা বাড়াচ্ছেন, আমিও তোমাকে ভালোবেসে জীবনের শত বছর পার করতে চাই। মাহাথির যেভাবে দূর্নীতির বিরুদ্ধে লড়ছেন, আমিও সেভাবে তোমার সকল দুঃখের পেছনে লড়ব। মাহাথির এক ঈদে ৫৫,০০০ মানুষের সাথে করমর্দন করেছেন, আমি শুধু তোমার সাথে হাজার বার হাত মেলাতে চাই। :D তোমাকে ভালোবাসার প্রধাণ কারণ কি জানো? তোমার আর মাহাথীরের নামের মিল আছে! সায়া চিনতা কামু (আমি তোমাকে ভালোবাসি) মাহাথির থুক্কু মাহহিয়া! :D

মাহহিয়ার জবাব: আপনি এক কাজ করেন, মালোয়েশিয়ার কোন পাগলা গারদে ভর্তি হয়ে যান। একটা মেয়েকে প্রপোজ করতে এসে যে মাহাথির কপচায়, তাকে সেখানেই মানায়! :P

ধ্রুবক আলো

চাকরি নিয়ে বেশ ব্যস্ত থাকেন এই ব্লগার। সে কারণেই হয়ত ব্লগে নন রেগুলার। নানা ধরণের লেখা এবং কমেন্টে সবার মনে ভালো স্থান তৈরি করেছেন।

প্রপোজ স্টাইল: মেয়ে, আমার একটা প্রশ্নের উত্তর দাও। জাতির মূল্যবোধের উন্নতিসাধন কবে হবে? শুধুমাত্র শহীদ মিনার ও স্মৃতিসৌধে ফুল দিয়েই কি দায়িত্ব শেষ? দেশ ও জাতি গড়ার পেছনে সবার কি প্রতিনিয়ত ভূমিকা রাখা উচিৎ না? নানা দূর্যোগ, অন্যায়, ধর্ষণের মাত্রা দিন দিনে বেড়ে চলেছে, মানবিকতা শুধু বইয়ের পাতার শব্দ হয়েই থেমে গেছে। কোনঠাসা হয়ে পড়েছে সাধারণের জীবন। রাষ্ট্র সংস্কারের উদ্দেশ্যে মূল্যবোধকে সংস্কার করতে হবে। সেই সংস্কার কাজে তুমি কি হবে আমার সহযোদ্ধা? তোমার ভালোবাসার সকল কোটায় লিখবে কি শুধুই আমার নাম? :P

মেয়ের জবাব: সিরিয়াসলি? শেষে এসে প্রপোজ? এই স্টাইলটাই দেখা বাকি ছিল জীবনে। আমি তো ভাবলাম দেশ ও দশের অবস্থা নিয়ে আলোচনা করছেন সরল মনে। আপনার প্রতিবাদী, সৎ সত্ত্বার জন্যেই আপনাকে আমি মায়ের পেটের আপন ভাইয়ের মতো সম্মান করতাম, :-B আর আপনি আমাকেই প্রপোজ করলেন? ছি ছি! আপনার চেহারা আর কখনোই দেখতে চাইনা আমি! চলে যান! :D

-----------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------

এই পোস্টটির আরো পর্ব সামনে আনার প্ল্যান বর্তমানে নেই। যাদের কথা বলা হয়নি তারা বেঁচে গেলেন খুব সম্ভবত! :)

আমি লিখতে গিয়েও অনেকবার হেসে উঠেছি, আশা করি পড়তে গিয়ে আপনারাও সেভাবে এনজয় করেছেন এবং কোন কথা কারো খারাপ লাগেনি। সবার জন্য রইল শুভেচ্ছা।
সর্বশেষ এডিট : ১৭ ই জুলাই, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:১৩
৪৬টি মন্তব্য ৪৭টি উত্তর

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছবি সংযুক্ত করতে এখানে ড্রাগ করে আনুন অথবা কম্পিউটারের নির্ধারিত স্থান থেকে সংযুক্ত করুন (সর্বোচ্চ ইমেজ সাইজঃ ১০ মেগাবাইট)
Shore O Shore A Hrosho I Dirgho I Hrosho U Dirgho U Ri E OI O OU Ka Kha Ga Gha Uma Cha Chha Ja Jha Yon To TTho Do Dho MurdhonNo TTo Tho DDo DDho No Po Fo Bo Vo Mo Ontoshto Zo Ro Lo Talobyo Sho Murdhonyo So Dontyo So Ho Zukto Kho Doye Bindu Ro Dhoye Bindu Ro Ontosthyo Yo Khondo Tto Uniswor Bisworgo Chondro Bindu A Kar E Kar O Kar Hrosho I Kar Dirgho I Kar Hrosho U Kar Dirgho U Kar Ou Kar Oi Kar Joiner Ro Fola Zo Fola Ref Ri Kar Hoshonto Doi Bo Dari SpaceBar
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :
আলোচিত ব্লগ

চামড়া ও চামড়াশিল্পের কেন আজ এই ভয়াবহ পরিস্থিতি?#২

লিখেছেন শেরজা তপন, ০৮ ই আগস্ট, ২০২০ সকাল ১১:২৯


আগের পর্বের জন্য: Click This Link
হাজারীবাগ
১৯৪০ এর দশকে এক ব্যবসায়ী আর.পি. শাহা কর্তৃক নারায়ণগঞ্জে বাংলাদেশের প্রথম ট্যানারি স্থাপন করা হয়েছিল। ট্যানারিটি পরে(১৯৪৫ সালে দিকে- মতান্তর আছে, কোথাও বলা হয়েছে... ...বাকিটুকু পড়ুন

খুকু ও মুনীরের পরকীয়ার বলি শারমীন রীমাঃ হায়রে পরকীয়া !!

লিখেছেন নূর মোহাম্মদ নূরু, ০৮ ই আগস্ট, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:৩১


পরকীয়া একটি নিষিদ্ধ সম্পর্কের নাম। মানবসমাজে কত ধরণের প্রেমই তো আছে! তবে যত ধরণের প্রেমই থাকুক না কেন ‘পরকীয়া’ প্রেমকে সবাই একটু ভিন্ন চোখে দেখে। নিষিদ্ধ জিনিষের প্রতি... ...বাকিটুকু পড়ুন

মেয়েটি চলল প্রবাসের পথে - আগমনী বার্তা (সামু পাগলার নতুন সিরিজ :) )

লিখেছেন সামু পাগলা০০৭, ০৮ ই আগস্ট, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:৪০



এই পোস্টটি মূলত নতুন সিরিজ আসার আগমনী বার্তা। আবার একদিক দিয়ে দেখলে আমার জীবনে প্রবাসের আগমনী বার্তাও বটে।
আমি সাধারণত কোন সিরিজ শুরু করলে শেষ করতে পারিনা। সেজন্যেই... ...বাকিটুকু পড়ুন

বৈরুত – হিরোশিমার মিনি ভার্সন

লিখেছেন শাহ আজিজ, ০৮ ই আগস্ট, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:৫৭



বৈরুতকে একসময় প্রাচ্যের প্যারিস বলা হত । ৪০এর দশকে আমাদের এই অঞ্চলের ছেলেরা বৈরুতের আমেরিকান বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তে যেত । ওখানে চিকিৎসা এবং হাসপাতাল ব্যাবস্থা খুব উন্নত ছিল... ...বাকিটুকু পড়ুন

নির্ঘুম রাত

লিখেছেন মিরোরডডল , ০৮ ই আগস্ট, ২০২০ রাত ১০:৫২





আবারও আসলাম কিছু প্রিয় গান নিয়ে ।
সাধারণত মেল ভোকালে বেশী গান শোনা হয় কিন্তু আজ কিছু ফিমেল ভোকালে গান শেয়ার করছি ।

আমি কেমনে কাটাই এ রাত... ...বাকিটুকু পড়ুন

×