somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

আমার পরিচয়

মীরসরাই[email protected]

আমার পরিসংখ্যান

সাইমুম
quote icon
শখ : অতি সাধারণ। বই পড়া আর বিদেশ ভ্রমণ।
আমার সকল পোস্ট (ক্রমানুসারে)

আমার একখান বই বের অইছে

লিখেছেন সাইমুম, ১০ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১২ দুপুর ১:৪৮

বইমেলায় এবার আমার বই এলো। নাম ‘শত বন্দনা’। প্রকাশক দিব্যপ্রকাশ। দাম মাত্র সাড়ে চারশো টাকা।



‘ভুবনগাঁয়ে তথ্যের জম্পেশ সমাবেশ নিত্য মনে করিয়ে দেয়, আমরা বাস করছি গোলকায়নের যুগে। কোনো তথ্যই ফেলনা নয়, যেমন করে সংসারে আবর্জনাও সার হয়।



চারপাশের চিরচেনা খুঁটিনাটি বিষয় আর পারিপার্শ্বিকতার মাঝে লেপ্টে আছে মানবজিজ্ঞাসার বয়েসী দলিল। অনেকটা... বাকিটুকু পড়ুন

২৮ টি মন্তব্য      ৩৫২ বার পঠিত     like!

শব্দের পোস্টমর্টেম -২১৮ (কন্যা )

লিখেছেন সাইমুম, ৩১ শে মে, ২০১১ বিকাল ৩:৩৩

কন্যা শব্দের মূল অর্থ কাম্যা। শব্দটিকে যৌনগন্ধী বলা যেতে পারে। কন্যা যে কাম্যা, তার একটা ব্যাখ্যা দিয়েছেন মহাভারতের রচয়িতা বেদব্যাস। তিনি লিখেছেন, ‘সর্বান্ কাময়তে যম্মাং।’ এদিক থেকে পশ্চিমা নারীদেরও অবস্থা প্রাচ্যের চেয়ে ভালো নয়। কারণ ইংরেজি woman এর মূলে রয়েছে wifeman । এ শব্দে নারীর স্বতন্ত্র সত্তার স্বীকৃতি দেয়া হয়নি।... বাকিটুকু পড়ুন

৭২ টি মন্তব্য      ১২৮০ বার পঠিত     ১১ like!

শব্দের পোস্টমর্টেম -২১৭ (কদম)

লিখেছেন সাইমুম, ২৭ শে মে, ২০১১ সন্ধ্যা ৭:৩৭

সংস্কৃত কদম্ব থেকে আসা বাংলা কদম এক জাতীয় গাছ ও তার ফুল (কদম কেশর ঢুকেছে আজ বনতলের ধূলি -রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর; মালতীলতার বনে, কদমের তলে, নিঝুম ঘুমের ঘাটে, কেয়াফুল শেফালীর দলে - জীবনানন্দ দাশ; স্তব্ধ কদমের ডালে ক্লান্ত হরিয়াল - আহসান হাবীব)।

আবার আরবি কদম থেকে আসা বাংলা কদম অর্থ পদপে... বাকিটুকু পড়ুন

১২ টি মন্তব্য      ৬০২ বার পঠিত     like!

শব্দের পোস্টমর্টেম -২১৬ (কাপড় )

লিখেছেন সাইমুম, ০৫ ই মে, ২০১১ সন্ধ্যা ৬:০৪

এক সময় নাতা, ন্যাকড়া আর কাপড় এক অর্থে প্রচলিত ছিল। এই অর্থে ওড়িয়া ভাষায় ‘কবটা’ মানে ‘দীর্ঘ ছিন্ন বস্ত্র’। সোজা কথায়, এক কালে যা ছেঁড়া ন্যাকড়া নামে পরিচিত ছিল, তা-ই এখন আমরা কাপড় নামে দিব্যি পরিধান করছি (ওর সন্ধান করতে যাওয়া আর চাঁদের আলোতে কাপড় শুকাতে দেওয়া একই কথা -... বাকিটুকু পড়ুন

১৪ টি মন্তব্য      ৪২৮ বার পঠিত     like!

শব্দের পোস্টমর্টেম-২১৫ (কলম)

লিখেছেন সাইমুম, ০৩ রা মে, ২০১১ সকাল ১০:২৪

বাংলা ভাষায় সাধারণত ছয় প্রকার কলমের সন্ধান পাওয়া যায়। বাংলায় বানান একই হলেও এদের উৎস ভিন্ন। আরবি ‘কলম’ বা সংস্কৃত ‘কলম’ থেকে তৈরি কলম বলতে লেখনী বুঝায়।



যে সব গাছের বীজ হয় না বা যে সব গাছের বীজ থেকে উদ্ভূত গাছে উৎকৃষ্ট ফল পাওয়া যায় না এবং ফল পেতে অনেক... বাকিটুকু পড়ুন

১২ টি মন্তব্য      ২৪৩৪ বার পঠিত     like!

শব্দের পোস্টমর্টেম -২১৪ (হামবড়া )

লিখেছেন সাইমুম, ২৪ শে এপ্রিল, ২০১১ রাত ৮:০১

হামবড়া হিন্দি শব্দ। মূলে হামবড়া মানে ‘আমি বড়’। কিন্তু প্রচলিত অর্থ আত্মগর্বী (হামবড়া ভাব, হামবড়া লোক)। হম বানানভেদ।



অবশ্য বাংলা একাডেমীর অভিধানে হম শব্দের মূল হিসেবে দেখানো হয়েছে সংস্কৃত ‘অহং’ শব্দকে।



মধ্যযুগের বাংলায় হম শব্দটি সর্বনাম হিসেবে ‘আমি’ বোঝাতো (আজু রজনী হম ভাগে গমায়ল - বিদ্যাপতি)।



হিন্দির অনুকরণে 'হম' শব্দটি... বাকিটুকু পড়ুন

৬ টি মন্তব্য      ৩৬৮ বার পঠিত     like!

শব্দের পোস্টমর্টেম-২১৩ (লোক)

লিখেছেন সাইমুম, ২৪ শে এপ্রিল, ২০১১ সন্ধ্যা ৬:৩৭

পৃথিবী বিশ্বজগতের অংশ। পৃথিবী অর্থে সাধারণত ত্রিলোক বুঝায় - স্বর্গ, মর্ত্য ও পাতাল। অন্য মত অনুসারে পাতাল ছাড়া ৭টি লোক আছে। যেমন ভূঃ, ভুবঃ, স্বঃ, মহঃ, জপ, তপ, সত্য। সাংখ্য ও বেদান্ত দর্শন মতে ৮টি লোক আছে। যথা - ব্রহ্মলোক, পিতৃলোক, সোমলোক, ইন্দ্রলোক, গন্ধর্বলোক, রাসলোক, যলোক, পিশাচলোক।



সুশ্রুতে লেখা আছে,... বাকিটুকু পড়ুন

২ টি মন্তব্য      ২৬৫ বার পঠিত     like!

শব্দের পোস্টমর্টেম-২১২ (ল্যাংবোট )

লিখেছেন সাইমুম, ২২ শে এপ্রিল, ২০১১ দুপুর ১:৩৯

হরিচরণ বন্দ্যোপাধ্যায় ‘ন্যাংবোট’ শব্দটিকে তাঁর অভিধানে ঠাঁই দিয়েছেন। তিনি গৌণার্থে ন্যাংবোট দিয়ে সহচর আর উপহাস্যে সঙ্গী নির্দেশ করেছেন (ন্যাংবোটদেরই বা একেবারে কালাপানির জল খাইয়ে শ্রীমন্ত সদাগর না হয় নাই সাজালে - অমৃতগ্রন্থাবলী)। তবে তিনি উল্লেখ করেছেন ইংরেজি long boat থেকে বাংলায় ন্যাংবোট শব্দটি এসেছে। তাঁর অভিধানে ‘ল্যাংবোট’ শব্দটি... বাকিটুকু পড়ুন

২ টি মন্তব্য      ১৭৯ বার পঠিত     like!

শব্দের পোস্টমর্টেম -২১১ (লেফাফাদুরস্ত)

লিখেছেন সাইমুম, ১৯ শে এপ্রিল, ২০১১ বিকাল ৪:২৬

লেফাফাদুরস্ত মানে বাহ্যদৃশ্যে নির্দোষ (কেদারায় বসে টানাপাখার হাওয়া খেয়ে কলম পেষা বেশ লেফাফাদুরস্ত - অমৃতগ্রন্থাবলী)।



আসলে মাকাল ফল বললেই ল্যাঠা চুকে যেতো। অথচ মাকাল ফল বুঝতে শেষ পর্যন্ত লেফাফাদুরস্তের ঘাড়ে চাপতে হলো! উপরে চমৎকার মসৃণ লাল অথচ ভেতরে কুৎসিত কালো, তাই হল মাকাল ফল। আর বাইরের সাজসাজ্জায়, আচরণে বা আদব-কায়দায় নিখুঁত... বাকিটুকু পড়ুন

৮ টি মন্তব্য      ৮৬১ বার পঠিত     like!

শব্দের পোস্টমর্টেম -২১০ (রাগ )

লিখেছেন সাইমুম, ১৯ শে এপ্রিল, ২০১১ দুপুর ২:৪৮

রাগের মূল অর্থ প্রীতি বা অনুরাগ। কিন্তু আধুনিক অর্থ ক্রোধ।



বাংলা ভাষায় রাগ শব্দটির উপযোগিতা বেশি। সংগীত শাস্ত্রে রাগ একটি বিশাল অধ্যায়। তবে বাংলা ভাষায় রাগ শব্দের কিছু বিশেষ ব্যবহার এখন আর নেই।



এক সময় সন্তোষ অর্থে ভোগ-রাগ শব্দটির ব্যবহার ছিল, এখন নেই। রঞ্জক পদার্থের তীব্রতা বোঝাতে রাগ শব্দের ব্যবহার ছিল... বাকিটুকু পড়ুন

৪ টি মন্তব্য      ১১০৬ বার পঠিত     like!

শব্দের পোস্টমর্টেম -২০৯ (যথেষ্ট)

লিখেছেন সাইমুম, ১৯ শে এপ্রিল, ২০১১ দুপুর ১২:১৩

বাংলা ভাষায় বহুল ব্যবহৃত ‘যথেষ্ট’ শব্দটিকে যদি তার আদি অর্থে ব্যবহার করার নির্দেশ আসে, তাহলে অনেক বাংলা বাক্য পাল্টিয়ে ফেলতে হবে। অন্ততপক্ষে ভাষাবিদরা বেকায়দায় পড়ে যাবেন। কারণ মূল অর্থে এখন আর ‘যথেষ্ট’ শব্দটিকে ব্যবহারের সুযোগ নেই।



বাংলা অভিধানগুলোতে যথেষ্ট শব্দের অর্থ হিসেবে এখন প্রচুর, অনেক, খুব, ঢের ইত্যাদিকে বেছে নেয়া... বাকিটুকু পড়ুন

৬ টি মন্তব্য      ২০০ বার পঠিত     like!

শব্দের পোস্টমর্টেম-২০৮ (যৎপরোনাস্তি )

লিখেছেন সাইমুম, ১৮ ই এপ্রিল, ২০১১ দুপুর ১:২২

শব্দটি দেখে মনে হতে পারে এটা সংস্কৃত। কিন্তু এটা মোটেও সংস্কৃত নয়। এটা বাংলা বিশেষণ পদ।



অভিধান প্রণেতা হরিচরণ বন্দোপাধ্যায় মতে, ‘যারপরনাই’ থেকে যৎপরোনাস্তি শব্দটি উদ্ভূত হয়েছে। তিনি শব্দটির গঠন দেখিয়েছেন এভাবে : যৎপর + ন + অস্তি।



তাঁর বঙ্গীয় শব্দকোষে শব্দটির অর্থে বলা হয়েছে, যাহার পর নাই, অত্যন্ত,... বাকিটুকু পড়ুন

৬ টি মন্তব্য      ১৭৩ বার পঠিত     like!

শব্দের পোস্টমর্টেম - ২০৭ (লাট )

লিখেছেন সাইমুম, ১৫ ই এপ্রিল, ২০১১ দুপুর ২:১৬

সংস্কৃত লট্ট থেকেও বাংলায় লাট শব্দটি এসেছে। মূলে সংস্কৃত লট্ট অর্থ নষ্ট স্বভাব, দুর্জন। এ কারণে নষ্ট, দুষ্ট, গর্বিত, অহংকৃত, দাম্ভিক অর্থেও লাট শব্দটি প্রচলিত।



আবার বাংলায় লাট শব্দটি রঙ্গ তামাশা বা ব্যঙ্গচ্ছলে ইয়ার অর্থে ব্যবহৃত হয় ( কি লাট! খবর কি?)। প্রভু বা সর্বময় কর্তা অর্থেও লাট... বাকিটুকু পড়ুন

৬ টি মন্তব্য      ৯৭৮ বার পঠিত     like!

শব্দের পোস্টমর্টেম - ২০৬ (লাইব্রেরি)

লিখেছেন সাইমুম, ১৫ ই এপ্রিল, ২০১১ দুপুর ১২:০০

মূলানুগ অর্থে লাইব্রেরি মানে ‘যেখানে লিবার বা সংরক্ষিত রয়েছে।’ লাতিন ভাষায় লিবার (liber) মানে গাছের ছাল। এদিক থেকে লাইব্রেরি মানে ‘যেখানে গাছের ছাল সংরক্ষিত থাকে’।



কাগজ আবিষ্কারের আগে মানুষ গাছের ছালেই লিখতো। বাংলা ভাষায় ‘পাততাড়ি’ শব্দটি তারই প্রমাণ।



এদিক থেকে লাইব্রেরি শব্দটি ইতিহাসগন্ধী। কারণ শব্দটি মানুষের লেখনীর একটি আদিম উপাদানকে... বাকিটুকু পড়ুন

৪ টি মন্তব্য      ২১৬ বার পঠিত     like!

শব্দের পোস্টমর্টেম -২০৫ (রামকান্ত)

লিখেছেন সাইমুম, ১২ ই এপ্রিল, ২০১১ বিকাল ৪:০২

বাংলায় (ব্যঙ্গে) উত্তমরূপে পেটানোর জন্য লাঠি বা জুতো অর্থে রামকান্ত শব্দটি ব্যবহৃত হয় (তাকে রামকান্ত দিয়ে পেটানো হল)।

বাংলা একাডেমীর ব্যবহারিক বাংলা অভিধানে শব্দটির মূল অজ্ঞাত দাবি করা হয়েছে। হরিচরণ তাঁর অভিধানে সন্দেহের সাথেই লিখেছেন, ‘জুতার পাটির মত দীর্ঘ পুরু চামড়ার পাটি’।



অথচ দীনবন্ধু মিত্র তাঁর ‘নীলদর্পণ’ নাটকে রামকান্ত শব্দটি বেশ... বাকিটুকু পড়ুন

৪ টি মন্তব্য      ৩৭৬ বার পঠিত     like!
আরো পোস্ট লোড করুন
ব্লগটি ২২০৮২৩ বার দেখা হয়েছে

আমার পোস্টে সাম্প্রতিক মন্তব্য

আমার করা সাম্প্রতিক মন্তব্য

আমার প্রিয় পোস্ট

আমার পোস্ট আর্কাইভ