somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

পনেরো হাজার টাকায় গোয়া ভ্রমণ!!! স্বপ্ন নয়, বাস্তব... (কম খরচে ঘোরাঘুরি)

২৪ শে নভেম্বর, ২০১৭ দুপুর ২:০৬
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :



গোয়া!!! ড্রিম টুরিস্ট সিটি অফ ইন্ডিয়া। ভারতীয়দের কাছে সর্বাধিক জনপ্রিয় টুরিস্ট শহর। বিশ্বের নানান দেশের পর্যটকে ঠাসা পর্যটন নগরী। যেখানে ক্যাসিনো থেকে শুরু করে নানান বিনোদনের পসরা সাজিয়ে বসে আছে পর্যটন ব্যবসায়ীরা। তো আজকের নোট এর প্রধান আকর্ষন তথা লক্ষ্য হল পনেরো হাজার টাকায় গোয়া ভ্রমণ। এর আগের একটি নোটে লিখেছিলাম, বারো হাজার টাকায় মুম্বাই দর্শন এর সাতকাহন। আসুন আজ শুরু করা যাক গোয়া ভ্রমণের প্যাচালী।

আগের পর্বগুলোতে পাসপোর্ট এবং ভিসা সংক্রান্ত আলোচনা কয়েকবার করা হয়েছে, তাই এখন থেকে পাসপোর্ট এবং ভিসা নিয়ে আলোচনা বাদ দেয়া হল। আসুন এবার যাত্রা শুরু করি।

ঢাকা টু কলকাতাঃ
বাংলাদেশ থেকে অতি অল্প খরচে দিল্লী যাওয়ার রুট হলঃ ঢাকা থেকে যশোহর হয়ে বেনাপল; ভাড়া ছয়শত টাকা’র মধ্যে হয়ে যাবে। এরপর ইমিগ্রেশন শেষে বর্ডার পার হয়ে পেট্রাপল হতে বনগাঁ হয়ে হাওড়া। খরচ একশত টাকার মত, আর বাসে করে কলকাতা গেলে খরচ ২০০-৩০০ টাকা। তো সবমিলিয়ে সাতশত থেকে হাজার টাকায় কলকাতা। যাওয়া আসা দুই হাজার। এছাড়া ঢাকা থেকে সরাসরি কলকাতার বাস আছে ১৫০০-২০০০ টাকার মধ্যে। আর বাই এয়ার গেলে রিটার্ন টিকেট ৮০০০-১২,০০০ টাকার মধ্যে পাওয়া যাবে ঢাকা টু কলকাতা রুটের জন্য।

কলকাতা টু গোয়া
কলকাতা থেকে গোয়া যাওয়ার জন্য সবচেয়ে সহজ উপায় ট্রেনে করে যাওয়া। এতে একটু সময় বেশী লাগলেও বাজেট এর কথা চিন্তা করে এটাই বেস্ট। এছাড়া মুম্বাই/ব্যাঙ্গালুরু হয়ে গোয়া যেতে পারেন। কলকাতা থেকে গোয়া যাওয়ার বেস্ট চয়েজ হল Amaravati Express (Train No.: 18047)। কলকাতা হতে রাত সাড়ে এগারোটায় সপ্তাহে চারদিন (সোম, মঙ্গল, বৃহস্পতি এবং শনি’বার) ছেড়ে যায় গোয়া’র উদ্দেশ্যে। পরেরদিন সারাদিন ট্রেনে কাটিয়ে তৃতীয়দিন দুপুর তিনটা নাগাদ পৌঁছে VSG/Vasco-da-Gama জংশনে। প্রায় চল্লিশ ঘন্টার এই জার্নি’র জন্য ভাড়া স্লিপার ক্লাস ১,০০০ রুপী’র মধ্যে, থ্রি-টিয়ার এসি ২,৫০০ রুপী এর টু-টিয়ার এসি ৪,০০০ রুপী’র মধ্যে। রিটার্ন ট্রেন একই ষ্টেশন হতে কলকাতার দিকে (রবি, মঙ্গল, বৃহস্পতি, শুক্র’বার) সকাল সাতটা দশে ছেড়ে পরদিন রাত পৌনে এগারোটা নাগাদ হাওড়া স্টেশনে পৌঁছে।

এই ট্রেন ছাড়াও আরও কিছু ট্রেনে করে সরাসরি গোয়া, অথবা মুম্বাই বা ব্যাঙ্গালুরু হয়ে গোয়া চলে যেতে পারেন। সেক্ষেত্রে মুম্বাই বা ব্যাঙ্গালুরু হতে গোয়া যাওয়ার স্লিপার, সেমি স্লিপার, চেয়ার কোচ (এসি/নন এসি) বাস রয়েছে।

থাকাঃ
গোয়া মূলত বীচ কেন্দ্রিক পর্যটন নগরী। এর বেশ কিছু প্রধান প্রধান বীচ ঘিরে গড়ে উঠেছে হোটেল-মোটেল জোন। মিরামার, বাগা, কোলভা, পানজিম, আনজুনা প্রভৃতি বীচ এরিয়ায় হোটেল এর অভাব নেই। আপনি চাইলে এসব এলাকায় ৫০০-৫০০০ রুপির মধ্যে যে কোন মানের (আপনার পছন্দ অনুযায়ী) হোটেলে রাত যাপন করতে পারেন। গোয়া টুরিজম এর সরকারী বেশ কিছু হোটেল মোটেল রয়েছে, সেগুলোতেও থাকতে পারেন।

খাওয়াঃ
খাওয়ার জন্য নানান রেস্টুরেন্ট রয়েছে। জনপ্রতি ১৫০-৪০০ রুপীর মধ্যে প্রতিবেলা (সকালের নাস্তা ৫০-১২০ রুপী) হয়ে যাবে।

ঘোরাঘুরিঃ
গোয়া ঘুরে দেখার জন্য বিভিন্ন পাবলিক/প্রাইভেট বাস কোম্পানীর প্যাকেজ রয়েছে; ৩০০-৫০০ রুপীর মধ্যে। সাউথ গোয়া, নর্থ গোয়া, দুধ সাগার ফলস এন্ড ওয়াইল্ড প্যাকেজ; এরকম প্যাকেজগুলো ঘুরে দেখতে পারেন সহজেই। এর চার-ছয়’জনের টিম হলে প্রাইভেট গাড়ি ভাড়া করে অনায়াসে ঘোরা যায়। এর বাইরে গোয়ার অন্যতম জনপ্রিয় জিনিস, মোটর বাইক ভাড়া। দিন হিসেবে বাইক ভাড়া নিয়ে তেল ভরে নিন নিজ খরচায়, দাপিয়ে বেড়ান গোয়ার গলি গলি’তে। তবে সাথে যেন ড্রাইভিং লাইসেন্স নিতে ভুলবেন না।

একটি খসড়া পরিকল্পনা, কম বাজেটে গোয়া ভ্রমনঃ (দুধ সাগার উইথ ওয়াইল্ড ট্রিপ বাদ দিয়ে)

দিন ০০ঃ ঢাকা থেকে রওনা হয়ে যান কলকাতার উদ্দেশ্যে।

দিন ০১ঃ কলকাতা থেকে রাতের যে কোন ট্রেনে রওনা হয়ে যান গোয়া’র উদ্দেশ্যে। সবচেয়ে ভাল হয় Amaravati Express ধরতে পারলে।

দিন ০২ঃ সারাদিন ট্রেন জার্নি। সাথে গল্প বই কিনে নিতে পারেন কলকাতার কলেজ স্ট্রিট বা যে কোন দোকান হতে, ট্রেনে পড়ার জন্য। আর গ্রুপ হলে তো কথাই নেই।

দিন ০৩ঃ দুপুর বেলা গোয়া পৌঁছে বাজেটের মধ্যে কোন হোটেলে উঠে পড়ুন। আমি সাজেস্ট করব পানজিম অথবা মিরামার বীচ এরিয়ায় থাকার জন্য। Goa Tourism Development Corporation এর হোটেলগুলোতে উঠতে পারেন। আমি এই প্ল্যানে থাকবো “Miramar Residency” এর Beach Heaven প্যাকেজে। হোটেলে চেকইন করে নিজের মত করে ঘুরে বেড়ান মিরামার বীচ। চাইলে সানসেট ভিউ প্যাকেজে বেড়িয়ে আসতে পারেন সমুদ্রপথে, ২০০-৩০০ রুপী ভাড়া জনপ্রতি। সন্ধ্যের পর হোটেলের কম্পাউন্ড এবং রাস্তা ধরে ঘুরে বেড়ান। রাত্রী যাপন করুন হোটেলে।

দিন ০৪ঃ সকালের নাস্তা শেষে আপনাকে হোটেলে হতে নয়টা নাগাদ পিক করে নেবে মিনিবাস। আজকে সারাদিন ঘুরে দেখানো হবে নর্থ গোয়ার বেশ কিছু স্থান, যার মধ্যে রয়েছেঃ Handicraft Emporium, - Coco beach, - Aguada Fort, Vagator Beach, -Anjuna Beach and Calangute Beach. (Lunch Halt : at Calangute), drop for one hour River Cruise with DJ Music and Cultural Dance performances on board। সন্ধ্যের পর হোটেলে ফিরে নিজের মত করে সময় কাটান।

দিন ০৫ঃ আগের দিনের মত এদিন সকালের নাস্তা শেষে আপনাকে হোটেলে হতে নয়টা নাগাদ পিক করে নেবে মিনিবাস। সারাদিন ঘুরে দেখানো হবে সাউথ গোয়ারঃ Colva Beach, - Ancestral Goa at Loutolim which is a “mock village” open air museum depicting traditional Goan village life, lunch halt at Farmagudi Residency. Next proceed to the temples of Mangueshi – dedicated to Shiva and Shanta Durga Temple at Kavlem dedicated to the Goddess of Peace Then visit to Heritage Monuments like Churches at Old Goa which include, Basilica of Bom Jesus wherein lie the mortal remains of St Francis Xavier and the magnificent Se Cathedral which houses the famous Golden Bell. . After the Churches visit the lovely Miramar Beach. রাত্রি বেলা হোটেলে ফিরে আসুন। চাইলে রিভার ক্রুজ ডিনার সারতে পারেন এদিন।

দিন ০৬ঃ খুব ভোরে হোটেল হতে চেক আউট করে ট্রেন ধরতে হবে সকাল সাতটায়। সারাদিন ট্রেনে জার্নি।

দিন ০৭ঃ কলকাতা এসে পৌছবেন রাতের বেলা। নিউ মার্কেট এলাকায় চলে এসে হোটেলে উঠে পড়ুন। চাইল, হাওড়া স্টেশনে রাত কাটিয়ে দিয়ে সকালের প্রথম বাস ধরার প্ল্যান করতে পারেন।

দিন ০৮ঃ সকালবেলা নাস্তা করে বাসে বনগাঁ হয়ে বেনাপল। চাইলে দুপুর পর্যন্ত কলকাতায় কাটিয়ে দুপুরের বাসে বেনাপল রওনা হয়ে যান। বিকেলের মধ্যে বর্ডার ক্রস করে রাতের গাড়িতে বেনাপল হতে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা হয়ে যান।

খরচের হিসেবঃ
ঢাকা-কলকাতা-ঢাকা (১,০০০X২)= ২,০০০ টাকা।
কলকাতা-গোয়া-কলকাতা (১,০০০ রুপী হিসেবে ১,২০০X২)= ২,৪০০ টাকা।
হোটেল প্যাকেজ ০৩ রাত/০৪ দিন (১০,২০০ রুপী পার কাপল হিসেবে জনপ্রতি ৫,১০০ রুপী হিসেবে)= ৬,৪০০ টাকা।
খাবার ০৮ দিন, প্রতিদিন (২৫০ রুপী হিসেবে ৩০০X৮)= ২,৪০০ টাকা।
অন্যান্য (ইমারজেন্সি মানি সহ) ১,০০০ টাকা।
বর্ডার স্পিডমানি এবং ট্রাভেল ট্যাক্স ৮০০ টাকা।
সর্বমোটঃ ১৫,০০০ টাকা।

তো? কবে যাচ্ছেন গোয়া ভ্রমণে? :)

আগ্রহীদের জন্য, মিরামার রেসিডেন্সী’র প্যাকেজ সামারি দিয়ে দেয়া হল নীচের ছবিগুলোতে। বিস্তারিত জানতে ঢুঁ মারুনঃ Goa Tourism Development Corporation. A Govt. of Goa Undertaking (Tour Packages)


















এই সিরিজের আগের পোস্টগুলোঃ
(১) দিল্লী-হিল্লি (নিজে নিজে ঘুরে আসুন অল্প খরচে সমগ্র দিল্লী)
(২) কাশ্মীর ভ্রমণ পরিকল্পনা এবং বাজেট (একটি অপূর্ণাঙ্গ পোস্ট ;) :P )
(৩) এবার চলুন সিমলা (ঘুরে আসি কম খরচে)
(৪) চল যাই মানালি... (কম খরচে ঘোরাঘুরি) :)
(৫) এবার ঘুরে আসা যাক গোল্ডেন ট্রায়াঙ্গেল (দিল্লী-আজমীর-জয়পুর-আগ্রা) (কম খরচে ঘোরাঘুরি - পর্ব ০৫) :)
সর্বশেষ এডিট : ২৪ শে নভেম্বর, ২০১৭ দুপুর ২:০৮
১০টি মন্তব্য ১০টি উত্তর

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছবি সংযুক্ত করতে এখানে ড্রাগ করে আনুন অথবা কম্পিউটারের নির্ধারিত স্থান থেকে সংযুক্ত করুন (সর্বোচ্চ ইমেজ সাইজঃ ১০ মেগাবাইট)
Shore O Shore A Hrosho I Dirgho I Hrosho U Dirgho U Ri E OI O OU Ka Kha Ga Gha Uma Cha Chha Ja Jha Yon To TTho Do Dho MurdhonNo TTo Tho DDo DDho No Po Fo Bo Vo Mo Ontoshto Zo Ro Lo Talobyo Sho Murdhonyo So Dontyo So Ho Zukto Kho Doye Bindu Ro Dhoye Bindu Ro Ontosthyo Yo Khondo Tto Uniswor Bisworgo Chondro Bindu A Kar E Kar O Kar Hrosho I Kar Dirgho I Kar Hrosho U Kar Dirgho U Kar Ou Kar Oi Kar Joiner Ro Fola Zo Fola Ref Ri Kar Hoshonto Doi Bo Dari SpaceBar
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :
আলোচিত ব্লগ

কোলকাতার পথে পথে - ১ (ছবি ব্লগ)

লিখেছেন রাজীব নুর, ১৬ ই নভেম্বর, ২০১৯ সকাল ১১:৩৯



পাঁচ দিন কোলকাতায় থাকলাম।
বহু অলি-গলি ঘুরে বেড়িয়েছি প্রয়োজনে অপ্রয়োজনে। বেশ কিছু ছবি তুলেছি। ঢাকায় থাকলেও এমনটাই করি। কোলকাতার ছবি গুলো আপনাদের জন্য তুলে এনেছি। ওদের সাথে আমাদের ঢাকার পুরোপুরি... ...বাকিটুকু পড়ুন

চিরতার রসঃ নেতা কহিলেন,‘পেঁয়াজের ঝাঁঝ আন্ডার…?’

লিখেছেন আখেনাটেন, ১৬ ই নভেম্বর, ২০১৯ দুপুর ১:০২



নেতার বাণীতে ভরসা পেয়ে হুমড়ি খেয়ে তুমড়ি বাজিয়ে ছাতন ব্যাপারী হাটে গেলেন পেঁয়াজ কিনতে। গিয়ে দেখেন দোকানি কালু মিঞা সোনা যেরূপ সাজিয়ে রাখে সেরূপ কাচের চারকোনা খোপে অত্যন্ত যতনে বিভিন্ন... ...বাকিটুকু পড়ুন

অসমাপ্ত ছবি

লিখেছেন স্বপ্নবাজ সৌরভ, ১৬ ই নভেম্বর, ২০১৯ দুপুর ১:২৬



অতঃপর ক্ষুধার্ত শিশুটি ক্যামেরাবন্দী হলো,
অসমাপ্ত ছবিটি ফ্রেমবন্দী হয়ে চলে গেল
আর্ট গ্যালারী অথবা সুসজ্জিত ছবির দোকানে,
দিস্তা দিস্তা কাগুজে টাকায়
বিক্রি হলো খুব,
সুসজ্জিত দোকান থেকে ছবি চলে গেলো
মর্যাদাপূর্ণ ড্রয়িং... ...বাকিটুকু পড়ুন

সেন্ট্রালিয়া : জ্বলন্ত,পরিত্যক্ত এক আমেরিকান শহরের কাহিনী আর কিছু স্বদেশ ভাবনা

লিখেছেন মলাসইলমুইনা, ১৬ ই নভেম্বর, ২০১৯ দুপুর ১:৫৭



আমেরিকার ইস্ট কোষ্টের অন্যতম জনবহুল, শিল্প শহর ফিলাডেলফিয়া থেকে পঁচাশি মাইল উত্তর পশ্চিমে পেনসিলভানিয়ার কলম্বিয়া কাউন্টির এক ছোট শহর সেন্ট্রালিয়া (Centralia) I খনিজ সম্পদে সমৃদ্ধ সেন্ট্রালিয়া ১৮৬২... ...বাকিটুকু পড়ুন

কবিতাঃ সুন্দরী আমি, হার্টথ্রব মডেল হতে চাই! - ৩

লিখেছেন নীল আকাশ, ১৬ ই নভেম্বর, ২০১৯ দুপুর ২:০৮



শরীরে কি পাপ হে বিশুদ্ধতাবাদী?
সুদর্শনী এই দেহ নিয়ে কি স্বর্গে যাবো আমি?
এক পুরুষে হয় না আমার, যৌবন বহুগামী।

চাহিদা আমার বহুরূপী, সমকামী/ডির্ভোসী/বিদেশী/বিপত্নীক
ধর্মের পরোয়া করি না, ক্ষুধা আমার অতলান্তিক!
পুরাতন সব বৃষ্টিভেজা... ...বাকিটুকু পড়ুন

×