অনুসন্ধান:
cannot see bangla? সাধারণ প্রশ্ন উত্তর বাংলা লেখা শিখুন আপনার সমস্যা জানান ব্লগ ব্যাবহারের শর্তাবলী transparency report
উঠবোই, পাহাড়টা ওই...


localtalk@gmail.com

fusionfactory.blogspot.com
আর এস এস ফিড

পোস্ট আর্কাইভ

জনপ্রিয় মন্তব্যসমূহ

আমার প্রিয় পোস্ট

আমরা যদি না জাগি মা, কেমনে সকাল হবে...

ফিরে দেখা ২০১১ : বছরজুড়ে সামহোয়্যারইন ব্লগে যা কিছু আলোচিত-সমালোচিত...

৩০ শে ডিসেম্বর, ২০১১ রাত ১১:৫৯ |

শেয়ারঃ
1 0

উৎসর্গ ■ নোবেলবিজয়ী_টিপু
২৪ নভেম্বর ব্লাডক্যান্সারে ভুগে ২২ বছর বয়সে মারা যাওয়া এই ব্লগারের মৃত্যুতে ব্লগে নেমে আসে শোকের ছায়া, জানানো হয় শ্রদ্ধাঞ্জলি
----
এই মুহূর্তে সারা বিশ্বে মোট ওয়েবসাইটের সংখ্যা প্রায় ৫৬ কোটি। এর মধ্যে যদি সেরা তিন হাজার সাইটের কোনো তালিকা তৈরি করা হয়, তাতে বাংলাদেশ থেকে থাকবে মাত্র তিনটি সাইট, এর একটি সামহোয়্যারইন ব্লগ! ছয় বছরে পা দেওয়া বিশ্বের বৃহত্তম এই বাংলা ব্লগ কমিউনিটির আলোচিত-সমালোচিত উল্লেখযোগ্য সব ঘটনার সারাংশ নিয়ে এই আয়োজন—

ফ্যাক্টস ফাইল : সামহোয়্যারইন... ২০১১
(২৬ ডিসেম্বর ২০১০ থেকে ২৫ ডিসেম্বর ২০১১ পর্যন্ত)
■ রেজিস্টার্ড ব্লগারের সংখ্যা ১,০০,০০০+
■ চলতি বছরে সামহোয়্যারইন ব্লগ ভিজিট হয়েছে ৭৯ লাখ ৫০ হাজার ২৩১ বার।
■ মোট পেইজভিউ হয়েছে ৬ কোটি ৯৯ লাখ ৩০ হাজার ৩৮৪টি।
■ সামহোয়্যারে একজন ভিজিটর গড় সময় কাটিয়েছেন ২৫ মিনিট ৪৬ সেকেন্ড।
■ ব্লগে সর্বাধিক উপস্থিতি ছিল গত ১১ ডিসেম্বর (৩৭ হাজার ৮২৬ ভিজিট)
■ মোট ১৯৭টি দেশ থেকে ব্লগার ও ভিজিটররা সামহোয়্যারে এসেছেন
■ পেইজ লোড হওয়ার গড় সময় ছিল ৩.১০১ সেকেন্ড
■ এ বছর সামহোয়্যারইনের মোবাইল সাইট ভিজিট হয়েছে ১২ লাখ ৫৬ হাজার ৪৪১ বার।
■ মোবাইল সাইটে একজন ভিজিটর গড় সময় কাটিয়েছেন ৬ মিনিট ৪৬ সেকেন্ড।
■ ব্লগ ব্যবহারকারীদের দুই-তৃতীয়াংশই মোবাইল সাইটে ঢুকেছেন অপেরা মিনির মাধ্যমে।
■ সামহোয়্যারইনের এক লক্ষতম ব্লগার : আশিকুর রাসেল
■ অ্যালেক্সা র‌্যাংকিংয়ে বাংলাদেশে জনপ্রিয়তার বিচারে সামহোয়্যারইনের অবস্থান ১০ নম্বরে, সারা বিশ্বে ২৯৭৫। তবে শুধুমাত্র বাংলাদেশি সাইট ধরলে সামহোয়্যারইনের অবস্থান তৃতীয়, বিডিনিউজ ও প্রথম আলোর পরই।
■ গুগল পেইজ র‌্যাংকে অবস্থান : ৪/১০
■ গুগল অ্যানালাইটিকসের নিখুঁত পরিসংখ্যানে ব্লগের ভেতরবাড়ি - এক | দুই | তিন
সূত্র : গুগল অ্যানালাইটিকস এবং অ্যালেক্সা

নাগরিক সাংবাদিকতার অভূতপূর্ব চর্চা
নাগরিক সাংবাদিকতা বলতে যা বোঝায়, বাংলাব্লগে তার চর্চা নেই - এমন অভিযোগ অনেকটাই ঘুচেছে এই বছরে। ভিকারুন্নিসা নূন স্কুল ও কলেজের বসুন্ধরা শাখার শিক্ষক পরিমল জয়ধর কর্তৃক ছাত্রী নিপীড়নের ঘটনায় মূলধারার গণমাধ্যমের ভূমিকা ছিল অস্বাভাবিক, রহস্যময়। অচিরেই ক্ষুব্ধ মানুষের আশ্রয়স্থল হয়ে ওঠে বিকল্প গণমাধ্যম—ব্লগ ও ফেসবুক। সাহস নিয়ে মুখ খুলতে শুরু করেন অনেকেই। এটিই বছরের সবচেয়ে সফল গণআন্দোলন, যা সংগঠিত হয়েছে পুরোটাই বিকল্প গণমাধ্যমের ওপর ভর করে। নাগরিক সাংবাদিকতার ভালো উদাহরণ হিসেবে বঙ্গোপসাগরের ভয়াল দূষণ, যুদ্ধে জড়িয়ে পড়া লিবিয়ার সীমান্ত থেকে সরাসরি আপডেট, চট্টগ্রামের ইপিজেড পরিস্থিতি কিংবা সত্যিকারের ডিজিটাল হয়ে ওঠা গ্রামটির কথা যেমন বলা যায়, তেমনি আনা যায় মূলধারার গণমাধ্যমে চাপা দেওয়া সেই মর্মন্তুদ কাহিনী কিংবা ২৬ নাবিক পরিবারের আর্তনাদের গল্প, ভুলে যাওয়া বিপ্লবী নারী কিংবা মিডিয়ার অন্ধকার
উদ্যমের অভাবেই চলতি বছর লাইভ ব্লগিং তেমন একটা দেখা যায়নি। নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে প্রার্থীদের মুখোমুখি বিতর্ক এবং ছবিমেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানই সম্বল কেবল।

সদ্য সংবাদ : ব্লগেই প্রথম
১৬ ডিসেম্বর সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান এবং প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই শিক্ষার্থীর নিখোঁজ হওয়ার ঘটনা প্রথম প্রকাশিত হয় সামহোয়্যারইনেই। মন্ত্রী সৈয়দ আবুল হোসেনের দৌড় প্রতিযোগিতা নিয়ে প্রথম লেখা হয় ব্লগেই, এরপরই সেটি পত্রপত্রিকাগুলোর মুখরোচক সংবাদে পরিণত হয়। হূমায়ূন আহমেদের ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার খবরও প্রথম আসে ব্লগেই। এমনকি চিত্রনায়িকা কেয়ার গ্রেপ্তার হওয়ার খবরটিও ব্লগে প্রথম আসার পর একটি অনলাইন দৈনিক সেটি নিয়ে খবর প্রকাশ করে। লিবিয়া যুদ্ধে মরণাপন্ন এক ব্লগারের অভিজ্ঞতা কিংবা মূলধারার গণমাধ্যমে এড়িয়ে যাওয়া সেই দুর্ধর্ষ বাস ডাকাতির ঘটনাও ভোলার মতো নয়। এমনকি উত্তাল ওয়ালস্ট্রিট থেকেও ব্লগারের স্বর শুনেছি আমরা। সেটাই শুধু নয়, ব্লগকে নিখোঁজ সংবাদ দেওয়ার জায়গা বলেও বিবেচনা করেছেন কেউ কেউ। কোনো কোনো প্রতিষ্ঠানকে দেখা গেছে, ব্লগে উত্থাপিত অভিযোগের আনুষ্ঠানিক জবাব দিতেও।

বিকল্প গণমাধ্যমের উত্থানের বছর
বেশ কিছু ঘটনায় মূলধারার গণমাধ্যম যেখানে নীরব ও অস্পষ্ট ভূমিকা পালন করেছে, ব্লগ সেখানে সরব হয়ে উঠেছে, কোনো কোনো ক্ষেত্রে ঘটনার পেছনের ঘটনাও তুলে এনেছে। বিকল্প গণমাধ্যম হিসেবে এ বছরই প্রথম ব্লগ তার উপস্থিতি জানান দিল উচ্চকন্ঠে। সবমিলিয়ে ২০১১ হচ্ছে বাংলাদেশে বিকল্প গণমাধ্যমের উত্থানের বছর।
বছরজুড়েই মূলধারার গণমাধ্যমের সমালোচনায় মুখর ছিল ব্লগাররা। বাণিজ্যবান্ধব গণমাধ্যমের ভেতরটাই শুধু নয়, বাইরেও ছিল কড়া নজরদারি। প্রধান লক্ষ্য যদিও বরাবরের মতোই প্রথম আলো, তবে অন্যান্য গণমাধ্যমেরও রেহাই মেলেনি, টেলিভিশন তো বটেই, এমনকি উন্মোচিত হয়েছে মুখ ও মুখোশও। বিজ্ঞাপন বন্ধের হুমকিতে মূলধারার গণমাধ্যম যে গ্রামীণফোনের বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশ থেকে বিরত থাকছে - এই তথ্যটুকুও মানুষ জেনেছে একমাত্র ব্লগ থেকেই
নানা বিষয়ে আবার মূলধারাও ব্লগের শরণাপন্ন হয়েছে। ভিকারুননিসার ছাত্রী লাঞ্ছনা ছাড়াও নরসিংদীর উপজেলা চেয়ারম্যান লোকমান হত্যার ঘটনায় সামহোয়্যারইন ব্লগকে সূত্র হিসেবে নিয়েছে অনেক পত্রিকা ও টেলিভিশন চ্যানেল। গবেষণার কাজেও ব্লগারদের ডাক পড়ছে। অন্যদিকে সামহোয়্যারইনে প্রকাশিত একটি লেখা হুবহু নকল করে নিজের নামে দৈনিক জনকন্ঠে প্রকাশ করেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. আসলাম ভূঁইয়া। পরে সংশ্লিষ্ট ব্লগার তার আইনজীবীর মাধ্যমে দৈনিক জনকন্ঠ ও অভিযুক্ত অধ্যাপককে উকিল নোটিশ পাঠান। মূলধারার গণমাধ্যমেও অবশ্য ব্লগব্লগারদের নিয়ে একাধিক প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে চলতি বছর।

তুমুল বিতর্ক বছরজুড়ে
বছরজুড়ে বিতর্ক যথারীতি ছিলই নানা বিষয়ে, নানা ইস্যুতে। গত কয়েক বছরের 'হটকেক' আস্তিক-নাস্তিক বিতর্ক এ বছরও ছিল, তবে তেজ তুলনামূলক কম। যথারীতি ছিল ভারত-বিরোধিতাও। সমসাময়িক ঘটনাবলীই বরং উত্তাপ ছড়িয়েছে বেশি। স্বামীর হাতে নির্যাতিত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষিকা রুমানা মঞ্জুরের পক্ষেবিপক্ষে বিস্তর আলোচনা, ঢাকায় জাগো ফাউন্ডেশনের তৎপরতার পক্ষেবিপক্ষে, নানা ইস্যুতে মুহাম্মদ জাফর ইকবালের পক্ষেবিপক্ষে তুমুল বিতর্ক। আলোচনায় ছিল সীমান্তে ফেলানী হত্যাকাণ্ড, পারসোনার ক্যামেরা কেলেঙ্কারি, বিয়ের আসরেই তালাকপ্রাপ্ত শিক্ষক শওকত আলী খান হিরন। বাদ যায়নি ইউনূস থেকে কনোকো-ফিলিপস, শেয়ারবাজার থেকে টিপাইমুখ বাঁধ, বিশ্বকাপ ক্রিকেট থেকে আর্জেন্টিনা]র সফর কিংবা জাপানের ভূমিকম্প, অরুণ চৌধুরী, সৈয়দ আবুল হোসেন থেকে কবিতা-টবিতা এমনকি সমকামিতার মতো স্পর্শকাতর বিষয়ও।

আন্দোলন-গ্রেপ্তার : অনলাইন থেকে অফলাইনে
■ ৩ জুলাই মার্কিন কোম্পানি কনোকো-ফিলিপসের সঙ্গে অন্যায্য চুক্তির প্রতিবাদ করতে গিয়ে গ্রেপ্তার হন ব্লগার দিনমজুর নিকের অন্যতম লেখক অনুপম সৈকত শান্ত। বাংলা ব্লগের ইতিহাসে মূলধারার কোনো আন্দোলনে অংশ নিয়ে ব্লগার গ্রেপ্তার হওয়ার ঘটনা সেটিই প্রথম। ওইদিন রাতেই অবশ্য তাকে মুক্তি দেওয়া হয়। এছাড়া তেল-গ্যাস-খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটি আহূত হরতাল ও সমাবেশ কর্মসূচিতে বিপুলসংখ্যক ব্লগার অংশ নেন।
■ সেপ্টেম্বরে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে সরকারি অর্থসহায়তা বন্ধ করে দেওয়ার প্রতিবাদে শিক্ষার্থীরা আন্দোলনে নামলে ব্লগারদের একাংশ তাদের সঙ্গে একাত্মতা ঘোষণা করেন। মিছিল-সমাবেশেও তারা সক্রিয়ভাবে অংশ নেন। এর একপর্যায়ে ১ অক্টোবর গোয়েন্দা পুলিশ ব্লগার আসিফ মহিউদ্দিনকে থানায় ডেকে নিয়ে আটক করে। প্রায় ১৮ ঘণ্টা আটকে রাখার পর মুচলেকা নিয়ে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়। পরে আসিফ জানান, তার ব্লগিং জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের আন্দোলন উসকে দিচ্ছে অভিযোগ করে তাকে ব্লগে এবং ফেইসবুকে লেখালেখি করতে নিষেধ করেন পুলিশ কর্মকর্তারা। তবে ভিন্ন একটি ভাষ্যও মিলেছে ব্লগেই। পুলিশ সূত্রের উদ্ধৃতি দিয়ে সেখানে দাবি করা হয়, নিষিদ্ধঘোষিত হিযবুত তাহরীর প্রধান অধ্যাপক মহিউদ্দিনের আত্মীয় সন্দেহে আসিফ মহিউদ্দিনকে আটক করা হয়েছিল। পরিচয় নিশ্চিত হওয়ার পর তাকে থানা থেকেই ছেড়ে দেওয়া হয় বলে ওই সূত্রের দাবি। তবে তৃতীয় কোনো পক্ষ আসিফ কিংবা ওই ব্লগারের দাবির সত্যাসত্য নিশ্চিত করেনি।
■ সৌদি আরবে আট বাংলাদেশির শিরচ্ছেদের মর্মন্তুদ ঘটনার পর ম্যাজিক মুভমেন্ট নামের একটি সংগঠন ১৫ অক্টোবর ঢাকায় এক অভিনব প্রতিবাদ কর্মসূচির আয়োজন করে। সংগঠনটি ব্লগভিত্তিক না হলেও সামহোয়্যারইন ওই কর্মসূচির সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করে একটি ঘোষণা স্টিকি করে। এই কর্মসূচির খবর গুরুত্ব দিয়ে প্রকাশ করে সৌদি আরবসহ আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম।
■ অক্টোবরে জাতীয় সম্পদ রক্ষার লংমার্চেও ব্লগারদের একাংশ যোগ দেন। চিহ্নিত যুদ্ধাপরাধীর বিরুদ্ধে সংবাদ প্রচার করার দায়ে নিগ্রহের শিকার এক তরুণ সাংবাদিকের সমর্থনে ৯ অক্টোবর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ব্লগারদের উদ্যোগে মানববন্ধনের ডাক দেওয়া হয়। বছরের শেষদিকে তিতাসের ওপর রাস্তা তৈরি করে নদী হত্যার বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়ে ওঠেন ব্লগাররা। তিতাস নদীর মরণাপন্ন দশা সরেজমিনে দেখার জন্য ব্লগাররা একটি উদ্যোগও নেন।

ব্লগ ঘিরে মৌলবাদের বিষবাষ্প
ব্লগ যেমন ধীরে ধীরে সরকারের চক্ষুশূল হয়ে উঠছে, তেমনি স্বাধীনতাবিরোধী মৌলবাদি গোষ্ঠীগুলোও ব্লগ প্ল্যাটফর্মকে নানা কৌশলে নিজেদের স্বার্থে ব্যবহার করার চেষ্টা করে যাচ্ছে। বছরের শুরুতেই ব্যাপারটা ধরা পড়ে হাতেনাতে। ব্লগমণ্ডলে বহুল আলোচিত এই ঘটনার জের ধরে সামহোয়্যারইন কর্তৃপক্ষকে অশালীনভাবে আক্রমণ করা হয় ব্লগ এবং ব্লগের বাইরে। এরকম এক আক্রমণের ঘটনায় একটি ব্লগের কর্তৃপক্ষ আনুষ্ঠানিকভাবে দুঃখ প্রকাশও করে। বছরের শেষদিকে ব্লগমণ্ডল ঘিরে মৌলবাদি গোষ্ঠীর তৎপরতার অভিযোগ পুনর্বার উত্থাপিত হয়।

ব্লগ দিবসের জমকালো আয়োজন
১৯ ডিসেম্বর পালিত হয় তৃতীয় বাংলা ব্লগ দিবস। এবার যুক্ত হয়েছিল ভিন্ন মাত্রা। ১৩টি ব্লগ প্ল্যাটফর্মের যৌথ আয়োজনে দিবসটি আয়োজিত হলেও পরে যুক্ত হয় আরো বেশ কয়েকটি ব্লগ। দিবসটি ঘিরে অফলাইনে যেমন ব্লগারদের স্বতস্ফূর্ত অংশগ্রহণ দেখা গেছে, তেমনি কেবল অনুষ্ঠানের লাইভ স্ট্রিমিং দেখতেই অনলাইনে ভিড় জমিয়েছিলেন লক্ষাধিক মানুষ। এবারের প্রতিপাদ্য বিষয় ছিল 'গণজাগরণে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ও সাইবার আইন'। ঢাকার কেন্দ্রীয় গণগ্রন্থাগার মিলনায়তনে এ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন শিক্ষাবিদ সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী, আনিসুজ্জামান, সাপোর্ট টু ডিজিটালবাংলাদেশ প্রকল্পের জাতীয় প্রকল্প পরিচালক নজরুল ইসলাম খান প্রমুখ। এর আগে ১৫ ডিসেম্বর সামহোয়্যার ইন ব্লগের ষষ্ঠ জন্মবার্ষিকী সামহোয়্যার ইন অফিসে অনাড়ম্বর পরিবেশে পালন করা হয়।
অংশ নেওয়া ১৩টি ব্লগউন্মোচনএকুশে ব্লগপ্রজন্ম ফোরামকমজগত ব্লগমুক্ত ব্লগপ্রথম আলো ব্লগবিডিনিউজ ব্লগপ্রিয় ব্লগটেকটিউনস ব্লগদৃষ্টিপাত ▪ বাংলানিউজ ব্লগ ▪ ইউনিয়ন তথ্য ও সেবা কেন্দ্রসামহোয়্যারইন...ব্লগ
ছবিব্লগএকদুইতিনচারপাঁচছয়সাতআটনয়
আলোচনা-সমালোচনাসামথিং সামথিংব্লগ ডে অভিজ্ঞতাব্লগ দিবস : আমার চোখেআমি আর অন্য ব্লগাররা!ব্লগ করতে যেয়ে ব্লক যেন না হইব্লগ দিবস ২০১১আড্ডা মুখরিত সময়যেমন ছিলো ব্লগ ডে!ব্লগারের সাথে চ্যাটকথনকেকটা সেইরকম...একজন সাধারণ ব্লগারের দৃষ্টিতেভালো-মন্দ দিক এবং মজার কিছু উক্তিসামু ইজ দ্য বেস্টআমার ব্লগকথনএকটি মূল্যায়ন১০০০০০তম ব্লগার পুরস্কৃতঅভিনন্দন না লেইখাই জাতে ওঠার জন্যএকটি নেতিবাচক বিশ্লেষণ পোস্টযা বলেছেন এবং যা বলতে পারেন নাই
সহযোগী ব্লগেপ্রথম আলো ব্লগটেকটিউনসবিডিনিউজ ব্লগপ্রিয়ব্লগমুক্তব্লগকমজগৎ ১কমজগৎ ২প্রজন্ম ফোরাম
গণমাধ্যমেফেসবুক ইভেন্টপ্রথম আলো ১প্রথম আলো ২ব্লগ দিবস নিয়ে সভাসমকালবিডিনিউজবাংলানিউজ ১বাংলানিউজ ২বাংলানিউজ ৩লক্ষতম ব্লগারের কথাবার্তা টোয়েন্টিফোরডয়চে ভেলে

এই প্রথম সেরা ১০ ব্লগার
তৃতীয় ব্লগ দিবসে আনুষ্ঠানিকভাবে এই প্রথমবারের মতো নানা দিক বিবেচনায় দশজনকে সেরা ব্লগার হিসেবে নির্বাচন করা হয়। বর্ণক্রম অনুসারে এরা হলেন - আরিয়ানা, আলিম আল রাজি, আসিফ মহিউদ্দিন, ইমন জুবায়ের, জাহাজী পোলা, ডিসকো বান্দর, ফিউশন ফাইভ, মাহমুদুল হাসান কায়রো, রেজোওয়ানা এবং শায়মা। এই অনুষ্ঠানে সামহোয়্যার ইন ব্লগের এক লক্ষতম ব্লগারকে রায়ান্স কম্পিউটারের সৌজন্যে একটি নেটবুক ও ৫০০০ টাকার বই সম্মাননা পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়।
প্রাসঙ্গিক বিতর্কআয়োজন থেকে ফিরেসামুর সেরা দশ ব্লগারের নাম ঘোষনাযে কারণে উনারা সেরা ১০ জন ব্লগারসেরা দশ ব্লগার নির্বাচন মানি নাব্লগ বাঙালীর জন্য না...সেরা দশ বিশ্লেষণসেরা ব্লগার নির্বাচন কি প্রশ্নবিদ্ধ নয়?জুতো মেরে গরু দানের হাস্যকর প্রচেষ্টাসেরা ১০এ আমার নাম আসলোনা কেন?সেরা ব্লগার নির্বাচন...সেরা দশের সাত জনই ধর্মীয় কুসংস্কারমুক্তযে কারণে সেরাদেরকে একযোগে অভিনন্দন জানানো যাবে নাসেরা দশ নিয়ে কিছু কথাশুভেচ্ছা কিন্তু একটাই প্রশ্ন!সম্মানপ্রাপ্তদের নিয়ে একান্ত কথন

সম্মিলিত বিজয় র‌্যালি
১৬ ডিসেম্বর সকালে ঢাকার শাহবাগ জাদুঘরের সামনে থেকে সামহোয়্যারইন ব্লগসহ মোট ১৩টি কমিউনিটি প্ল্যাটফর্মের উদ্যোগে ব্লগারদের বিজয় র‌্যালি বের হয়। এর আগে অভিন্ন একটি পোস্ট সবগুলো ব্লগে একযোগে প্রকাশ করা হয়।
রিভিউশুরু থেকে শেষছবি আর ভিডিওমুহূর্তটুকুছবিব্লগমুক্তব্লগএকমাত্র অনলাইন নিউজ পেপার
ছবিব্লগএকদুইতিনচার
গণমাধ্যমেবাংলানিউজ ১বাংলানিউজ ২

ব্লগ প্রতিযোগিতা কেলেঙ্কারি
১১ মার্চ শুরু হয় 'ডয়চে ভেলে'র আয়োজনে আন্তর্জাতিক ব্লগ অনুসন্ধান প্রতিযোগিতা 'ববস'। স্বেচ্ছাসেবী অনুবাদক রেজওয়ান এতে বাংলা ভাষার বিচারক ছিলেন। বেশ কয়েকটি বিভাগে একযোগে প্রায় সমসংখ্যক ভোট পেয়ে শীর্ষে থাকলেও শেষপর্যন্ত বাংলাভাষার কোনো ব্লগই বিচারকদের নজর কাড়তে পারেনি। তবে ব্লগাররা শুরু থেকেই বিতর্কিত মনোনয়ন নিয়ে তাদের ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া প্রকাশ করেন। এর মধ্যেই বিশেষ বিশেষ ব্লগারের পক্ষে নজিরবিহীন ভোট জালিয়াতির অভিযোগ উঠলে ব্লগাররা হয়ে ওঠেন প্রতিবাদমুখর। সেই স্বর ছড়িয়ে পড়ে বিভিন্ন অনলাইন মাধ্যমেও। সোচ্চার হন বিদেশী ব্লগাররাও। প্রতিযোগিতার একেবারে শেষ মুহূর্তে ইমন জুবায়ের প্রার্থিতা প্রত্যাহার করে নেন। প্রতিবাদের মুখে অফিসিয়াল বিবৃতি দেয় ডয়চে ভেলে কর্তৃপক্ষ। শেষ পর্যন্ত বিচারকরা বাংলাভাষার কোনো ব্লগকেই শীর্ষতালিকায় রাখেননি। বছরের শেষদিকে পরবর্তী ব্লগ প্রতিযোগিতার নতুন বিচারক ড. শহিদুল আলমের নাম ঘোষণা করে ডয়চে ভেলে কর্তৃপক্ষ।

ব্লগারদের বইয়ের ভুবন
গত ফেব্রুয়ারির একুশে বইমেলায় ব্লগারদের অর্ধশতাধিক বই প্রকাশিত হয়। কাব্যগ্রন্থ, উপন্যাস, প্রবন্ধ, গল্পের বই ছাড়াও কেবল ব্লগের লেখা নিয়েও কয়েকটি সংকলন প্রকাশিত হয়েছে, এমনকি আঞ্চলিক ভাষায়ও। পুরো ফেব্রুয়ারি জুড়েই সামহোয়্যার ইন ব্লগে ছিল নামমাত্র মূল্যে বইয়ের বিজ্ঞাপন প্রচারের সুযোগ
■ একুশে বইমেলায় প্রকাশিত হয় সামহোয়্যারইন ব্লগের লেখা নিয়ে সংকলন অপরবাস্তব-৫। প্রথমবারের মতো এর সঙ্গে যুক্ত হয় নামি প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান শুদ্ধস্বর। এবার মূল লেখার পাশাপাশি সংযোজিত হয় শতাধিক ব্লগারের মন্তব্যও। ১৮ ফেব্রুয়ারি বইমেলা প্রাঙ্গনের নজরুল মঞ্চে বইয়ের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে ব্লগাররা ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন আমন্ত্রিত অতিথিরা। ৯ ফেব্রুয়ারি বইমেলায় ব্লগারদের আড্ডা নিয়ে 'বই বসন্তে' নামের একটি অনুষ্ঠান (ভিডিও) প্রচার করে এনটিভি।
■ নভেম্বরের শেষ দিকে অপরবাস্তব -৬ এর জন্য লেখা আহবান করা হয়। তারও আগে 'অপরবাস্তব' বিষয়ক প্রচারণার জন্য রেডিও ফুর্তি ৮৮ এফ এম ব্যান্ডের মধ্যে ২৪ নভেম্বর একটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। এ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রেডিও ফুর্তির পক্ষে এর চিফ অপারেটিং অফিসার ডেনিয়েল রহমান এবং অপরবাস্তবের পক্ষে শরৎ চৌধুরী, সাদিক মোহাম্মদ আলম , রাশেদুল হাফিজ, বাকীবিল্লাহ, কৌশিক আহমেদ, ফিউশন ফাইভ এবং শুদ্ধস্বরের মালিক আহমেদুর রশীদ চৌধুরী ও সামহোয়ারইনের পরিচালক সৈয়দা গুলশান ফেরদৌস জানা।
■ পুরো বছরে ই-সংকলন প্রকাশিত হয়েছে একটিই। চলচ্চিত্রকে উপজীব্য করে প্রকাশিত ‌'এক মুঠো চলচ্ছবি' ছিল বেশ সমৃদ্ধ একটি প্রকাশনা। ২০১০ সালের শেষ দিনেও একটি ই-সংকলন প্রকাশিত হয়েছিল কল্পবৈজ্ঞানিক গল্প নিয়ে।

ব্লগারদের মিলনমেলা
৬ মে সংসদ ভবন সংলগ্ন লেক-সেতুতে 'কৃষ্ণচূড়া আড্ডা' নানা বয়সী ব্লগারের উপস্থিতিতে জমেছিল বেশ। সিনেমাপ্রেমী ব্লগারদের নিয়ে অপর এক আড্ডার আয়োজন করা হয় ২৩ ডিসেম্বর, টিএসসিতে

মানবিক উদ্যোগে প্রতারকের হানা
বরাবরের মতোই সামহোয়্যারইন ব্লগকে ঘিরে মানবিক উদ্যোগের কমতি ছিল না বছরের শুরু থেকেই। আগস্টে অভাবের দায়ে সন্তান বিক্রি করতে চাওয়া এক মায়ের পাশে দাঁড়ান কয়েকজন ব্লগার। অনেকটা নিরবেই সেই দুঃখিনী মাকে পুনর্বাসন করার কাজটিও করে ফেলেন তারা। কিন্তু বছরের শেষদিকে এসে মাত্র দুটি ঘটনা সব অর্জনকে ম্লান করে দেয়। প্রথমবারের মতো মানবিক সাহায্যের আবেদনগুলো যাচাই-বাছাই করার দাবিও ওঠে।
■ মুক্তিযুদ্ধে এক শহীদের স্ত্রী 'কলমদাদি' নাসেরা বেগমের সাহায্যার্থে কয়েকজন ব্লগার উদ্যোগ নেন চলতি বছরের ১৩ মার্চ। বছরের শেষ দিকে এসে জানা যায়, সংগৃহীত অর্থের সামান্যই কলমদাদির হাতে পৌঁছেছে। বাকি অর্থ কোথায় গেল- সেই অনুসন্ধানে নামতে গিয়ে বেরিয়ে এলো অজানা সব কাহিনী। এ নিয়ে দৈনিক আমার দেশে একটি সংবাদ প্রকাশিত হলে তোলপাড় সৃষ্টি হয় ব্লগমন্ডলে। তবে বেশিরভাগ ব্লগারই উদ্দেশ্যপ্রণোদিত অভিহিত করে ওই সংবাদের নিন্দা জানান। পরে কালের কন্ঠেও একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়।
■ নভেম্বরে মানবিক সাহায্যের মিথ্যা আবেদন জানিয়ে ব্লগারদের কাছ থেকে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ ওঠে আরেক ব্লগার এবং তার স্বামী সেলেস্টিয়ান পিনেরোর বিরুদ্ধে। চট্টগ্রামে বসবাসকারী রোজলীন পিনেরো নামের সেই ব্লগার তার 'গুরুতর অসুস্থ' স্বামীর চিকিৎসার নামে বিভিন্ন ব্লগ থেকে বড়ো অংকের টাকা হাতিয়ে নেন। একটি ইংরেজি দৈনিকে এ নিয়ে সংবাদও প্রকাশিত হয়।
■ বছরের শুরুতে শীতার্তদের জন্য শীতবস্ত্র বিতরণের একাধিক উদ্যোগ নেওয়া হয়। বছরের শেষদিকে এসেও তীব্র শৈত্যপ্রবাহের শিকার মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন ব্লগারদের অনেকে, এমনকি দূরদুরান্তেও।

কিছু স্বীকৃতি-কিছু অর্জন
■ ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠনে ভূমিকা রাখার স্বীকৃতি হিসেবে জুলাইয়ে জাতীয় ডিজিটাল উদ্ভাবনী পুরস্কার অর্জন করে সামহোয়্যারইন। ঢাকায় আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে পুরস্কারটি তুলে দেন অর্থমন্ত্রী।
■ ১ থেকে ৩ ডিসেম্বর ঢাকায় আয়োজিত তথ্যপ্রযুক্তি উৎসব ই-এশিয়াতে সামহোয়্যার ইন…ব্লগ টপ ফাইনালিস্ট হয় বেস্ট বিজনেস মডেল ফর লোকালাইজড অ্যাপ্লাকেশন/কনটেন্ট) বিভাগে। ই-এশিয়ার একটি সেশনে ব্লগার কৌশিক আহমেদ 'সোসিও-লোকালাইজড মিডিয়া : এজেন্ট ফর সোশ্যাল চেঞ্জ' শীর্ষক প্রেজেন্টেশন (ভিডিও) উপস্থাপন করেন।
■ বাংলা ব্লগ দিবস উপলক্ষে সামহোয়্যারইন ব্লগের পরিচালক সৈয়দা গুলশান ফেরদৌস জানার সাক্ষাৎকার প্রকাশ করে ডয়েচে ভেলে এবং বাংলানিউজ। তারও আগে আগস্টে টেকটিউনস ব্লগের পক্ষ থেকে সামহোয়্যার ইন প্রতিষ্ঠাতা আরিল্ড ক্লকারহগের একটি সাক্ষাৎকার নেওয়া হয়।
■ ডিসেম্বরেই বাংলা ভাষায় ব্লগিং নিয়ে বিবিসি বাংলা প্রচার করে একটি বিশেষ প্রামাণ্যচিত্র, যার প্রায় পুরোটা জুড়েই ছিল সামহোয়্যারইন ব্লগ।

এখানে-সেখানে
■ ১২ ফেব্রুয়ারি আয়োজিত হয় ব্লগের প্রথম আলোকচিত্র প্রদর্শনী, অভিনবই বটে।
■ বছরজুড়েই নির্বাচিত পোস্টের সংকলন নিয়ে ব্লগাররা একাধিকবার উদ্যোগ নেন।
■ ব্লগ ও ব্লগারদের নিয়ে অনলাইন রেডিও আহা 'ব্লগারজ' নামে একটি নিয়মিত অনুষ্ঠান প্রচার করছে।

নতুন ফিচার, ভেতরে-বাইরে সমস্যা
২০ জানুয়ারি থেকে দীর্ঘদিনের প্লাস-মাইনাস প্রথা বিলুপ্ত করে 'ভালো লাগলো' বোতাম যোগ করা হয় প্রতিটি পোস্টের শেষে। এছাড়া একটি লেখা কতবার পঠিত হয়েছে তা প্রথম পাতায় দেখার সুবিধা রাখা হয়। ক্রমবর্ধমান ট্রাফিক, পাঁচ বছরের আপলোড করা ডাটা ছাড়াও সার্ভার হোস্টিং কোম্পানির কিছু সমস্যার কারণে বছরের মাঝামাঝি সময়ে ব্লগারদের কাছ থেকে প্রায়ই লগইন সমস্যাসহ ধীরগতির লোডিং টাইম নিয়ে অভিযোগ উঠছিল। সেপ্টেম্বরে ব্লগের সার্ভার আপগ্রেডেশনমেইনটেন্যান্স কাজের পর থেকে লগইন সমস্যা ছাড়াও ব্লগের লোডিং সময় কমে আসে। কপিপেস্ট কিংবা একেবারেই মামুলি জিজ্ঞাসামূলক পোস্টের ভিড়ে ভালো লেখা হারিয়ে যায় - এমন অভিযোগ ছিল সারা বছরই। বছরশেষের এই সময়ে আনন্দের খবর হল - ব্লগের চিরাচরিত ইন্টারফেসে শীঘ্রই পরিবর্তন আসতে যাচ্ছে। সেই সঙ্গে কপি-পেস্ট-রিপোস্ট-বিজ্ঞাপনমূলক পোস্ট থেকে ভালো পোস্টগুলো বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে আলাদা করার জন্য ব্লগ টিম কাজ করে যাচ্ছে। এই সংক্রান্ত ঘোষণা আসবে শীঘ্রই। চলতি বছর অবশ্য মডারেশন নিয়ে অভিযোগ ছিল গত বছরের তুলনায় কম। তবে ব্লগ ছাড়িয়ে বাইরেও ব্লগারদের মধ্যে অন্তর্দ্বন্দ্বের ঘটনা ঘটেছে একাধিক। এমনকি প্রতিপক্ষ ব্লগারের খোঁজে দলবল নিয়ে হানা দেওয়ার উদাহরণও তৈরি হয়েছে চলতি বছর। কারো কারো বিরুদ্ধে ওঠে সিন্ডিকেট ব্লগিংয়ের অভিযোগ

 

সর্বশেষ এডিট : ৩১ শে ডিসেম্বর, ২০১১ রাত ৩:১৩ | বিষয়বস্তুর স্বত্বাধিকার ও সম্পূর্ণ দায় কেবলমাত্র প্রকাশকারীর...

 


৩৬৬টি মন্তব্য

 

সকল পোস্ট     উপরে যান

সামহোয়‍্যার ইন...ব্লগ বাঁধ ভাঙার আওয়াজ, মাতৃভাষা বাংলায় একটি উন্মুক্ত ও স্বাধীন মত প্রকাশের সুবিধা প্রদানকারী প্ল‍্যাটফমর্। এখানে প্রকাশিত লেখা, মন্তব‍্য, ছবি, অডিও, ভিডিও বা যাবতীয় কার্যকলাপের সম্পূর্ণ দায় শুধুমাত্র সংশ্লিষ্ট প্রকাশকারীর...

 

© সামহোয়্যার ইন...নেট লিমিটেড | ব্যবহারের শর্তাবলী | গোপনীয়তার নীতি | বিজ্ঞাপন