somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

চা-র-ব-ছ-রঃ একজন সামু গ্রাজুয়েটের গল্প !:#P !:#P !:#P

১৬ ই জুন, ২০১৪ রাত ৮:৪৪
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :


No more inter pass, I am graduate now

চা-র-ব-ছ-র। আশ্চর্য। দেখতে দেখতে সামুতে চার বছর কেটে গেল। যদি এই চার বছর কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে দিতাম তাহলে আজকে গ্রাজুয়েট হয়ে বের হতাম আর হাতে থাকত বিশ্ববিদ্যালত কর্তৃপক্ষের দেয়া একটা গ্রাজুয়েশন সার্টিফিকেট।

তো সামুকে যদি একটা বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে ধরে নেই তাহলে আমিও আজ একজন সামু গ্রাজুয়েট। গ্রাজুয়েশন কমপ্লিট করে আজ থেকে শুরু হল পোস্ট গ্রাজুয়েশন মানে মাস্টার্স। সামনে পিএইচডি, পোস্ট ডক্টরেট এবং এরপর আরো যা কিছু সম্ভব সব ডিগ্রীই সামু বিশ্ববিদ্যালয় থেকে নেয়ার আশা রাখি।

মাঝে মাঝে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর সমাবর্তনে কৃতি ছাত্রদের মঞ্চে উঠে কিছু বলার সুযোগ দেয়া হয়।ধরে নেয়া যাক এই পোস্টটাই আমার সমাবর্তন স্পিচ। স্পিচের শুরুতেই ধন্যবাদ জানাতে চাই বিশ্ববিদ্যালয় ফ্যাকাল্টি (মডারেশন প্যানেল) এবং মাননীয়া ভাইস চ্যান্সেলর মহোদয়া(ব্লগ মাতা)কে আমাকে এই বিদ্যাপীঠে অধ্যয়নের(ব্লগিং) সুযোগ দেয়ার জন্য।সাথে ধন্যবাদ জানাতে চাই সকল ক্লাসমেট (যাদের সাম্প্রতিক সময়ে চার বছর পূর্ন হয়েছে বা অচিরেই হবে) এবং সিনিয়র-জুনিয়র ভাইয়া আপুদের।



যেদিন সামু বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হয়েছিলাম (১৬ই জুন ২০১০, সকাল ১০.৫০ কিংবা ১১.০০ ঘটিকা) সেদিন ভাবতেও পারিনি সামু থেকে কোন ডিগ্রী নিয়ে বেরুতে পারব। আজ শুধু একট ডিগ্রী পেয়েছি তা-ই নয়, বরং সামনে আরো নতুন ডিগ্রী অর্জনের জন্য ঝাপিয়ে পড়ব।

গ্রাজুয়েশনের এই দিনে মনে পড়ছে সামুতে ভর্তির আগের দিনগুলো।সামুতে ভর্তির আগে প্রায় সাত মাস (ডিসেম্বর ২০০৯ থেকে মধ্য জুন ২০১০) সামু ভর্তি কোচিং (ব্লগ আইডি খোলার আগে কেবল ব্লগারদের লেখা পড়া) করেছিলাম। এক বন্ধুর মাধ্যমে সামু নামক এই বিশ্ববিদ্যালয়ের কথা জেনেছিলাম। বন্ধুর স্টুডেন্ট আইডি(ব্লগ নিক) ভুলে গেলেও আজ তাকে ধন্যবাদ।





তো প্রথমেই দেখে নেয়া যাক। এই বিদ্যাপীঠে ছাত্র হিসেবে কেমন ছিলাম।
• পোস্ট করেছেন: ১২১ টি
• মন্তব্য করেছেন: ১২০৪৮ টি
• মন্তব্য পেয়েছেন: ৭৬৭৩ টি
• ব্লগ লিখেছেন: ৪ বছর ৯ মিনিট
• ব্লগটি মোট ১৭৫৩৮৮ বার দেখা হয়েছে

তো দেখা যাচ্ছে এই চার বছরে মোট একশ একুশ ক্রেডিট কমপ্লিট করেছি। সামু গ্রাজুয়েট হতে হলে মোট কত ক্রেডিট কমপ্লিট করতে হয় তা নিয়ে কোন বাধাধরা নিয়ম নেই। তাই মাত্র ১২১ ক্রেডিট কমপ্লিট করেই আমি আজ একজন গর্বিত সামু গ্রাজুয়েট।

পড়াশোনার প্রথম দুবছরে আমার মেজর ছিল ১৮+ কৌতুক। ডিপার্টম্যান্টের এক বড় ভাই (সিনিয়র ব্লগার) এর পরামর্শেই এটা মেজর নিয়েছিলাম।মূল কারন ছিল এই কোর্সগুলোতে অল্প পরিশ্রমেই ভাল মার্ক্স (প্রচুর হিট) পাওয়া যায়।


তো প্রথমেই দেখে নেই কৌতুক থেকে যে ১৭ ক্রেডিট কমপ্লিট করেছি।
পর্ব ১-কিছু কমন কৌতুক
পর্ব ২- আরও কিছু কমন কৌতুক ( কঠিনভাবে ১৮+)
পর্ব ৩- এবং কিছু কমন কৌতুক ( কঠিনভাবে ১৮+)
পর্ব ৪- মাঝরাত্তিরে কমন কৌতুক
পর্ব ৫- আবার কিছু কমন কৌতুক (এইগুলাও ১৮+)
পর্ব ৬- চরম একখান কৌতুক(১৮+ কিন্তু)
পর্ব ৭- ছাগু আর রাজাকারগো লাইগা কৌতুক(১৮+ কিন্তু)
পর্ব ৮- আরকখান চরম কৌতুক(কঠিনভাবে ১৮+)
পর্ব ৯- আবার কিছু চরম কৌতুক(কঠিনভাবে ১৮+)
পর্ব ১০- সেইরকম একটা কৌতুক{ দূর্দান্তভাবে ১৮+}
পর্ব ১১-মদনকাণ্ড ও শৌচকর্ম {ফাটাফাটি একটা কৌতুক। না পড়লেই মিস}
পর্ব ১২- একজন মানুষের জীবনে যত টেনশন{কঠিনভাবে ১৮+}
পর্ব ১৩- কোপাকুপি একখান জুক্স(১৮+)
পর্ব ১৪- হাসিনা-খালেদা-এরশাদের স্বর্গযাত্রা
পর্ব ১৫- অবিশ্বাস্য রকমের দুর্দান্ত ও কোপাকুপি একখান জুক্স ( না পড়লেই মিস)
পর্ব ১৬- সামুর ইতিহাসে সর্বাধিক পঠিত ১৮+ জোক্সের পোস্ট ও তার পরের পর্ব
পর্ব ১৭- মধ্যরাতের মজারু (১৮+, বাচ্চারা খেলতে থুক্কু ঘুমাতে যাও)

কিন্তু কৌতুকে মেজর করায় প্রচুর মার্ক্স পাওয়া গেলেও ক্লাসের এলিট শ্রেনীর ছাত্র(আঁতেল ও সুশীল ব্লগার)দের কাছে গ্রহনযোগ্যতা পাওয়া যায় না। এরা এসে ১৮+ জুক্স পড়ে যায় ঠিকই (সাম্প্রতিক ব্লগ দেখেছেন যারা- এর দিকে তাকালেই বোঝা যায়) কিন্তু মন্তব্য করেন না নিজেদের সুশীলতার মুখোশ খুলে যাওয়ার ভয়ে, কেউ কেউ আবার উপদেশ দিয়ে যান এসব কৌতুক বন্ধুদের আড্ডার জন্য তোলা থাক, ব্লগে না পোস্টানোই ভাল আর সবচেয়ে ধুরন্ধর শ্রেনীর ছাত্ররা অফলাইনে এসে পোস্ট পড়ে যান যাতে সাম্প্রতিক ভিজিটরেও তাদের নাম না দেখা যায়।

তো এদের দাতভাঙ্গা জবাব দিতেই থিসিস করি সামুর ওপর। ফলাফল সকলে এসে পিঠ চাপড়ে দিয়ে বলে, চমৎকার কাজ করেছ ভায়া।আপাতত থিসিস সাবমিট করে দিয়েছি, তবে এমএস আর পরবর্তী পড়াশোনায় একই বিষয় নিয়ে থিসিস কন্টিনিউ করার আশা রাখি।


তো দেখে নিন আমার বার ক্রেডিটের থিসিস।
পর্ব ১:সামুর সেরা সব হিটম্যান এবং তাদের এত্ত এত্ত হিট
পর্ব ২:সামু ব্লগের সেরা সব কমেন্টার এবং তাদের ঐতিহাসিক সব কমেন্ট
পর্ব ৩:সামু ব্লগের ইতিহাসে সর্বোচ্চ পোস্ট দিয়েছেন কোন ব্লগার ও তাদের ব্লগ জীবন
পর্ব ৪:সামু ব্লগের সর্বোচ্চ মাইনাস প্রাপ্ত পোষ্ট এবং এসব পোষ্ট লেখা ইউনিক ব্লগারগন
পর্ব ৫:সামুর ইতিহাসে সবচেয়ে বেশী ফেসবুকে শেয়ার হওয়া পোস্টগুলো
পর্ব ৬:সামুর ইতিহাসে সবচেয়ে বেশী পঠিত পোস্টগুলো
পর্ব ৭:সামুর ইতিহাসে সর্বাধিক পঠিত ১৮+ জোক্সের পোস্ট ও তার পরের পর্ব
পর্ব ৮:সামুর ইতিহাসে সর্বকালের সেরা সব ব্লগার
পর্ব ৯:সামুর ইতিহাসে সর্বাধিক প্রিয়তে নেয়া পোস্টগুলো
পর্ব ১০:সামুর ইতিহাসে সর্বকালের সেরা ব্লগ পোস্টগুলো
পর্ব ১১:বিগত বছরগুলোর সামু নিয়ে আসা সেরা যত রিভিউ পোস্ট
পর্ব ১২:সামুর ইতিহাসে সর্বকালের সেরা সিরিজগুলো

থিসিসের বাইরেও সামু নিয়ে এসময় কিছু পেপার পাব্লিশ করেছি।
১.সামু ব্লগে আর কত নির্লজ্জ আর বেহায়া দেখব??? মডুরা দয়া করে ব্যবস্থা নিন
২.আমার পুলার কান্না থামাইতে পারতেছি না।ব্লগার ভাইরা সাহায্য চাই
৩.সামুর যেসব ব্লগার গুপকেশে চুলকানী ও তীব্র প্রসব বেদনায় আক্রান্ত তাদের বলছি
৪.সবার ব্লগ আর্কাইভ বাংলায়, খালি আমারটা হঠাৎ ইংরেজীতে কেন???
৫.অনলাইনে এক "ব্যানড" ব্লগার এবং আমার বিস্মিত হওয়ার গল্প

এছাড়াও সামুতে থার্ড ইয়ার শেষে একটা রিপোর্ট লিখেছিলাম।
সামুতে কেটে যাওয়া তিনটি বছর এবং আমি, তুমি কিংবা অন্য কারো না বলা গল্প

সামুতে এসে আমি কখনোই নিজের শেকড়কে ভুলে যাইনি। তাই এসময় চট্টগ্রাম এবং বুয়েট নিয়েও করেছি কিছু কোর্স।


বুয়েট নিয়ে করেছি মোট ১২ ক্রেডিট।
১.পেইনফুল ক্লাস
২.একজন বুয়েট ছাত্রের হতাশ হৃদয়ের কিছু কথা
৩.যে রামছাগলে বুয়েট আর ঢাবি নিয়ে পোস্ট দিছে এই পোস্টটা তার জন্য
৪.বুয়েট তার কৃতি ছাত্রদের কি প্রাপ্য সম্মানটুকু দিয়েছে??আসুন দেখি
৫.ছাঁকিব খানের পর বাংলা সিনেমায় নতুন বুয়েটিয়ানের আগমন
৬.ওরে কেউ আমারে ধর। সামু ব্লগের ইতিহাসের সর্বকালের সেরা ব্লগার(!!!) য়চিনপুর বুয়েট নিয়ে আরেকখান জ্ঞানী পোস্ট প্রসব করেছেন।আসুন তার এসব ব্যাপক জ্ঞানী পোস্ট পড়ি আর বিনুদুন নেই
৭.ভালো থেকো বুয়েট, ভালো থেকো ভিসি! / ভালো থেকো ঘৃণা, ভালো থেকো ছিছি!
৮.সাধারন বুয়েটিয়ানদের বিজয়। আমরা প্রমান করলাম আমরা চাইলেই সব পারি
৯.এইডা কি ভিডিও দেখলাম বুয়েট স্টুডেন্ট নিয়া? হাসতে হাসতে পুরা মইরা গেলাম
১০.বুয়েটের এক স্মার্ট শিক্ষক ও তার পিছনে আমার ঘুরার গল্প
১১.বুয়েটের Kung fu Panda
১২.পিশাচ কাহিনীঃ পৈশাচিক প্রতিশোধ

বুয়েট ছাড়াও প্রকৌশলবিদ্যার প্রতি ভালবাসা থেকে অবশ্বাস্য ইঞ্জিনিয়ারিং এর ওপর করেছিলাম ২ ক্রেডিট কোর্স।
১.বুর্জ আরবের শীর্ষে টেনিস কোর্টঃ ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের এক দূর্দান্ত নিদর্শন
২.জার্মানীতে নদীর ওপর নদীঃ ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের অবিশ্বাস্য নিদর্শন


আর চাটগা নিয়ে মাত্র ৩ ক্রেডিট :(
১.চট্টগ্রাম!চট্টগ্রাম!!চট্টগ্রাম!!!আসুন চট্টগ্রামের ভাষা শিখি
২. সবাই মিলে কি চাটগাবাসীদের মেরে ফেলবে? শু**র বাচ্চাদের ফাসি দেয়া দরকার
৩. চট্টগ্রামে আবার ফ্লাইওভার ধ্বস ও শতাধিক মানুষের মৃত্যুঃ আমাদের কি বাচার অধিকার নেই???

এর বাইরেও ক্রিয়েটিভ ব্লগিং এর অংশ হিসেবে করতে হয়েছে গল্প এবং কবিতার ওপর কোর্স।

গল্পের ওপর করেছি মোট ১২ ক্রেডিট।
গল্প: দৃশ্যাবলী
গল্পঃ যে কারণে ভালবাসি বলা হয় না{পর্ব-১}
গল্পঃ যে কারণে ভালবাসি বলা হয় না {পর্ব-২}
গল্পঃ যে কারণে ভালবাসি বলা হয় না { তৃতীয় ও শেষ পর্ব}
গল্পঃ বাতাসে বোমার গন্ধ{একটি ভয়ঙ্কর থ্রিলার- না পড়লে মিস করবেন}
গল্পঃভালো থেকো বুয়েট, ভালো থেকো ভিসি! / ভালো থেকো ঘৃণা, ভালো থেকো ছিছি!
গল্পঃ ভালবাসার বৃষ্টি
গল্পঃএক স্মার্ট শিক্ষক ও তার পিছনে আমার ঘুরার গল্প
গল্পঃ জানু, তোমার জন্য... ...
গল্পঃপৈশাচিক প্রতিশোধ
গল্পঃ তোমার বসন্ত দিনে ... ...{প্রথম পর্ব}
গল্পঃ তোমার বসন্ত দিনে ... ... {দ্বিতীয় ও শেষ পর্ব}

এছাড়াও গল্প বিষয়ক আরো দুটি কোর্স করেছিলাম।
সাম্প্রতিক সময়ে আমার পড়া অসাধারন কিছু ছোট গল্প
পৃথিবীর সবচেয়ে ছোট ও সেরা গল্পঃ সাথে একটা ফাও

এসময় রম্য গল্পের ওপরও করেছি মোট ৩ ক্রেডিট কোর্স।রম্য গল্পগুলো ছিল মূলত বিভিন্ন প্রচলিত কৌতুকের অ্যাম্পলিফিকেশন।
১.রম্য গল্পঃ তথ্যমন্ত্রীর ঘড়ি
২.রম্য গল্পঃ টিভি অথবা একজন নোয়াখাইল্যার গল্প
৩.রম্য গল্পঃহাসিনা-খালেদা-এরশাদের স্বর্গযাত্রা

রম্য গল্প সেকশানে কোর্সগুলোতে গ্রেড (হিট) ভাল হওয়ায় পরবর্তীতে আরো যেসব রম্য গল্প লেখার চেষ্টা করিঃ
রম্য গল্পঃ সাহারা খাতুনের ঘড়ি
রম্য গল্পঃ আবুল হোসেনের ঘড়ি
রম্য গল্পঃ কালো বিড়ালের ঘড়ি


আর কোবতের ওপর করা কোর্সগুলো নিম্নরূপঃ
সব ইগনোর
সত্যের জয়
নাস্তিকগো লাইগা কিছু অনুকাব্য
অভাগার এক দিন
আমার পরাণ পাখিগুলো ঝগড়া করে
ছাগু এবং নাস্তিক বলদাগো লাইগা অবশ্য পাঠ্য কবিতা
যে রামছাগলে বুয়েট আর ঢাবি নিয়ে পোস্ট দিছে এই পোস্টটা তার জন্য
ভাদা আর দাদাদের গদাম দিনঃ এইটাও একটা ভাদা
ভালোবাসার অনুকাব্য
নুডুলস-পিয়াজ-রসুন এবং ভালবাসার গল্প
আবুল হাসানের মুখোমুখি আবুল মাল ও আবুল হোসেন
বুয়েটের Kung fu Panda


ছাত্র সমাজ সবসময়ই বর্তমান আর পারিপার্শ্বিক নিয়ে সচেতন। সমসাময়িক বিষয়াবলীর ওপর কোর্স করেছিলাম মোট ১৩ ক্রেডিট।

৫০ কোটির কোঠা পেরোলো ফেসবুক
কে মিথ্যাবাদী??? প্রথম আলো না কালের কন্ঠ??? এইটা আমি কি দেখলাম???
বয়স কমিয়ে শেষ পর্যন্ত আমাদের ফায়দা কি???শেষ পর্যন্ত আমরা কেন বয়স কমাই?
এইটা আমি কি দেখলাম??? ওবায়দুল কাদের এটা কি কইল?? লোকটা কি রামছাগল???
অবশেষে আসছে বাংলাদেশে তৈরী ল্যাপটপ “দোয়েল” ।আসুন জেনে নিই “দোয়েল” সম্পর্কে আর স্বদেশী পন্য কিনে ধন্য হই
"ইডা আর নতুন কি ? যাগো ডারলিং নাই তারা ডারলিং ভাড়া নেয়।" কালে কালে আর কত লাম্পট্য আর নির্লজ্জতা দেখব???
আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে বিশেষ গুগল ডুডলের জন্য তরুণদের প্রচারণা
ভাষার মাসে ভাষা নিয়ে এর চেয়ে বড় প্রহসন আর কি হতে পারে
ফটোশপের এই যুগে কারে বিশ্বাস করুম??? পুরাই বোকাচু হইয়া গেলাম
চোরঞ্জিত-ইলিয়াস-সোহেল তাজের সাম্প্রতিক রাজনীতি এবং চরম ত্যক্তবিরক্ত আমি তুমি আমরা
এইডা আমি কি দেখলাম?রবীন্দ্রনাথ বাইচা থাকলে শিওর আত্মহত্যা করত(পৈশাচিক বিনোদন)
হ্যাপি বার্থডে ইউটিউব ও সাথে কিছু ঐতিহাসিক ইউটিউব ভিডিও
রোহিঙ্গাদের প্রতি সহানুভূতি থাকলেও যেসব কারনে আমি তাদের বাংলাদেশে আশ্রয়দানের বিপক্ষে... ...


ছাত্র সমাজ কি কেবলই সময় সচেতন? তারা একই সাথে প্রতিবাদী। তাই চার বছর জুড়েই ব্লগের সকল নাস্তিক-ছাগু-ভাদা-আবালদের অপকর্মের বিরুদ্ধে প্রতিনিয়ত সোচ্চার ছিলাম আর তারই ফলশ্রুতিতে অর্জন করি আরো ১৩ ক্রেডিট।

সত্যের জয়
নাস্তিকগো লাইগা কিছু অনুকাব্য
ছাগু এবং নাস্তিক বলদাগো লাইগা অবশ্য পাঠ্য কোবতে
যে রামছাগলে বুয়েট আর ঢাবি নিয়ে পোস্ট দিছে এই পোস্টটা তার জন্য
প্রসংগ ভাদাঃ নূন্যতম দেশপ্রেম না থাকলে এই পোস্টে ঢোকার দরকার নাই
ভাদা আর দাদাদের গদাম দিনঃ এইটাও একটা ভাদা
ভাষার মাসে ভাষা নিয়ে এর চেয়ে বড় প্রহসন আর কি হতে পারে
ঐতিহাসিক দিনে ছাগলগুলার ঐতিহাসিক বলদামী আর কত???
শালার ছাগুগুলা আর মানুষ হইল না। মেজাজ পুরাই বিলা হইয়া গেল
১৪ জনের ভারতকে হারিয়ে জিতল ১১ জনের বাংলাদেশ
দিকে দিকে উঠেছে রব, এবার হবে পাকিস্তান বধ
সবাই মিলে কি চাটগাবাসীদের মেরে ফেলবে? শু**র বাচ্চাদের ফাসি দেয়া দরকার
qubeeর বাদরামি আর কত সহ্য করব??? সময় এসেছে কিউবিকে গদাম দেয়ার


শুধু প্রতিবাদ নয়, জড়িয়ে পড়েছিলাম নানা গঠনমূলক কাজেও। আর সেখানে যাদের রিয়েল লাইফ হিরো হিসেবে পেয়েছিলামঃ

আসুন একজন সত্যিকারের নায়ককে দেখি
ড. জামাল নজরুল ইসলামঃ আরেকজন কৃতী বাঙ্গালীর বিদায়


আর বাংলাদেশ এবং মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে করা কোর্সগুলোর কথা না বললেই নয়।
অবশেষে আসছে বাংলাদেশে তৈরী ল্যাপটপ “দোয়েল” ।আসুন জেনে নিই “দোয়েল” সম্পর্কে আর স্বদেশী পন্য কিনে ধন্য হই
একাত্তরে ছোট্ট শিশুরাও বুঝেছিল স্বাধীনতার মূল্য, আজ স্বাধীন বলেই কি আমরা এর মূল্য বুঝতে পারছি না?
আসুন বিজয়ের মাসে জানি আমাদের বীর ক্রিকেটারদের কথা
১৯৭১, একজন শহীদ জুয়েল এবং আমাদের আজকের ক্রিকেটারগন
ফটো ব্লগঃ আমাদের ভাষা আন্দোলনের কিছু বিরল ছবি
জাতীয় স্মৃতিসৌধঃ আমাদের সংগ্রাম ও বিজয়ের প্রতীক


ছাত্র থাকাবস্থায় এক্সট্রা কারিকুলার এক্টিভিটি হিসেবে যেসন কুইজের আয়োজন করেছিলামঃ

বলুন দেখি{রাজাকার আর ছাগুগো লাইগা কুইজ}
ফেসবুকে প্রশ্ন প্রশ্ন খেলা আর বাঙ্গালীর গনিত জ্ঞানের ঠেলা
একটি দূর্দান্ত গাণিতিক সমস্যা- আইনস্টাইন ফেল
চমৎকার তিনটি ধাধাঃ পারলে জবাব দিন
চমৎকার কিছু ধাধাঃ পারলে জবাব দিন-২


ছাত্রাবস্থায় টিউশানী টাকায় ক্যামেরা কিনে সবাই পুটুগ্রাফার বনে যায়।এই বছরে যেসব ফটোগ্রাফি বিষয়ক ও ফটোব্লগ দিয়েছিলামঃ

এইটা আমি কি দেখলাম। হাসতে হাসতে শ্যাষ। পুরাই পৈশাচিক বিনোদন।
দিকে দিকে উঠেছে রব, এবার হবে পাকিস্তান বধ(মজাদার ফটো ব্লগ। পৈশাচিক বিনোদন নিশ্চিত)
ফটো ব্লগঃবুর্জ আরবের শীর্ষে টেনিস কোর্ট
ফটো ব্লগঃ পৈশাচিক বিনোদন সুনিশ্চিত
ফটো ব্লগঃজার্মানীতে নদীর ওপর নদী
ফটো ব্লগঃ দূর্দান্ত রকমের পৈশাচিক বিনোদন, না দেখলেই মিস
ফটো ব্লগঃ আরেকবার পৈশাচিক বিনোদন সুনিশ্চিত
ফটো ব্লগঃ আমাদের ভাষা আন্দোলনের কিছু বিরল ছবি
ছবি একটাই-অসংখ্য প্রোফাইল। আসুন দেখি লুল ফালানো ফেক প্রোফাইল
ফটো ব্লগঃ পূর্নিমা রাতে, ফানুস আর বাজির ঝলকানিতে


এর বাইরেও যেসব কোর্স করেছিঃ

এই পুস্টখান ব্লগার জাহাজী পুলার লাইগা।আমার সামনে মূলা ঝুলায় রাখা হইল ক্যান??? জাতি জবাব চায়।
অসাধারন একটা ভালবাসার গল্প
কাজী নজরুল ইসলামের একটি মজার ঘটনা


আর আমার পুরো সামু লাইফে করা প্রথম কোর্সঃ
প্রথম পোস্ট


তো ব্লগ লাইফে যত কোর্স করেছি তার বর্ননা দেয়া শেষ। এবার তাহলে ভার্সিটির ক্যাফেটেরিয়ায় চলবে খানাপিনা।







খানাপিনা শেষ। এবার চলুক চা।



আর ক্যাফে থেকে বেরিয়ে একটুখানি ঝালমুড়ি।



ব্যাস,গ্রাজুয়েশন পার্টি খতম।

সকলকে ধন্যবাদ।
হ্যাপী ব্লগিং :)







সর্বশেষ এডিট : ১৩ ই জানুয়ারি, ২০১৫ বিকাল ৩:১০
৫০টি মন্তব্য ৫৪টি উত্তর

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছবি সংযুক্ত করতে এখানে ড্রাগ করে আনুন অথবা কম্পিউটারের নির্ধারিত স্থান থেকে সংযুক্ত করুন (সর্বোচ্চ ইমেজ সাইজঃ ১০ মেগাবাইট)
Shore O Shore A Hrosho I Dirgho I Hrosho U Dirgho U Ri E OI O OU Ka Kha Ga Gha Uma Cha Chha Ja Jha Yon To TTho Do Dho MurdhonNo TTo Tho DDo DDho No Po Fo Bo Vo Mo Ontoshto Zo Ro Lo Talobyo Sho Murdhonyo So Dontyo So Ho Zukto Kho Doye Bindu Ro Dhoye Bindu Ro Ontosthyo Yo Khondo Tto Uniswor Bisworgo Chondro Bindu A Kar E Kar O Kar Hrosho I Kar Dirgho I Kar Hrosho U Kar Dirgho U Kar Ou Kar Oi Kar Joiner Ro Fola Zo Fola Ref Ri Kar Hoshonto Doi Bo Dari SpaceBar
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :
আলোচিত ব্লগ

লজ্জা !!

লিখেছেন গেছো দাদা, ২৪ শে অক্টোবর, ২০২১ রাত ১২:০১

গল্পঃ কাছের মানুষ

লিখেছেন ইসিয়াক, ২৪ শে অক্টোবর, ২০২১ সকাল ১০:১৩



(১)
শরৎ পূর্ণিমার নিশি নির্মল গগন,
মন্দ মন্দ বহিতেছে মলয় পবন।

লক্ষ্মীদেবী বামে করি বসি নারায়ণ,
বৈকুন্ঠধামেতে বসি করে আলাপন।

হেনকালে বীণা হাতে আসি মুনিবর,
হরিগুণগানে মত্ত হইয়া বিভোর।

গান সম্বরিয়া উভে বন্দনা করিল,
বসিতে... ...বাকিটুকু পড়ুন

পৃথিবীর অন্যতম দামী খাবার পাখির বাসার স্যুপ

লিখেছেন মোঃ মাইদুল সরকার, ২৪ শে অক্টোবর, ২০২১ সকাল ১০:৩৫




পাখির বাসা দিয়ে বানানো স্যুপ চীনে বেশ জনপ্রিয় ও কয়েকশ বছরের পুরনো অভ্যাস। বিশ্বের সবচেয়ে ব্যয়বহুল-পাখির বাসা দিয়ে রান্না করা স্যোপ এমনই স্বাদ যে, বারবার খেতে ইচ্ছে... ...বাকিটুকু পড়ুন

প্রেমের টানে

লিখেছেন দীপঙ্কর বেরা, ২৪ শে অক্টোবর, ২০২১ সকাল ১১:৪৪


ফুলের শোভা পাপড়ি রঙে
মধুর রসে ভরা
ভ্রমর এসে সেই টানেতে
নিজেকে দেয় ধরা।

পাপড়ি মেলে ফুল তো ফোটে
জমায় মধু বুকে
ভ্রমরকে সে ডাকতে থাকে
মিলন মোহ সুখে।

ফুলের রেণু মেখে ভ্রমর
খিলখিলিয়ে হাসে
ফুলের কথা... ...বাকিটুকু পড়ুন

আমার, আমার ভাইদের, বাবা, দাদু বাড়ির সবার নির্যাতনের বিচার চাই

লিখেছেন দয়িতা সরকার, ২৪ শে অক্টোবর, ২০২১ দুপুর ১:২২

আমাদের দাদু বাড়ি ছোট বেলায় ছিল সিরাজগঞ্জ জেলার দেলুয়া গ্রামে। আমার দাদুর নাম বেলাল সরকার, বাবার নাম আমির হামজা সরকার। ছোট বেলা থেকেই দেখেছি আমাদের বাড়ির প্রত্যেক ছেলে- মেয়েদের মায়ের... ...বাকিটুকু পড়ুন

×